ঢাকা, রবিবার, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, ৩ পৌষ ১৪২৪, ২৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
মহান বিজয় দিবস আজ  মহান বিজয় দিবসে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শ্রদ্ধা বিজয় দিবসে বর্ণিল সাজে রাজধানী আতশবাজি ও ফানুস উড়িয়ে ঢাবিতে বিজয় উদযাপন মুক্তিযুদ্ধের আদর্শিক লড়াই শেষ হয়নি আজও মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী ছায়েদুল হকের ইন্তেকাল মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুতে চট্টগ্রামে শোকের ছায়া বিজয় দিবসে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে রাহুল গান্ধীর অভিষেক ফিফা ক্লাব বিশ্বকাপ ফুটবলে রাতে মাঠে নামছে রিয়াল মাদ্রিদ মানুষের অন্তরে মহিউদ্দিন চৌধুরী জননেতা হিসেবেই বেঁচে থাকবেন স্বপ্নের ফেরিওয়ালা মহিউদ্দিন চৌধুরী মহান বিজয় দিবস উদযাপনে দেশজুড়ে নানা আয়োজন  সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বারবার হোচট খেয়েছে বাংলাদেশ নাটোরে চালু হয়নি কৃষকদের ৫টি শস্য মার্কেট কুমিল্লায় বাস চাপায় নিহত দুই রংপুর সিটি নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা শেষ মুহূর্তে জমজমাট রাজধানীর বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ টি-টেন ক্রিকেট লিগে কেরেলা কিংসের জয় হাসপাতালে জনবল-শয্যার অভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত ঝিনাদহের নিউমোনিয়া আক্রান্ত শিশুরা

চিত্রনায়ক জসিমের ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ০৯:৫৫ , ০৮ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ০৯:৫৫ , ০৮ অক্টোবর ২০১৭

বিনোদন ডেস্ক:  আজ রোববার বাংলা চলচ্চিত্রের কিংবদন্তি চিত্রনায়ক জসিমের ১৯তম মৃত্যুবার্ষিকী।

ঢাকাই ছবিতে জসিমের আবির্ভাব হয়েছিলো খলনায়ক হিসেবে। কিন্তু সময়ের পরিক্রমায় নিজেকে তিনি প্রতিষ্ঠিত করেছিলেন দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নায়কদের একজন হিসেবে। বিশেষ করে অ্যাকশন নায়ক হিসেবে বাংলা চলচ্চিত্রে আজও তিনি কিংবদন্তি হয়ে আছেন।

১৯৯৮ সালের ৮ অক্টোবর জসিম মস্তিষ্কে রক্তক্ষরণজনিত কারণে সুন্দর পৃথিবী ছেড়ে চলে যান। তিনি ছিলেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রে অ্যাকশনধর্মী চলচ্চিত্রের প্রবর্তকদের একজন।

জসিমের আসল নাম আবদুল খায়ের জসিম উদ্দিন। জন্ম ১৯৫০ সালের ১৪ আগস্ট ঢাকার  কেরানীগঞ্জের বক্সনগর গ্রামে। লেখাপড়া করেন বিএ পর্যন্ত।

এ ছাড়া তার অন্যতম বড় পরিচয়— তিনি ছিলেন মুক্তিযোদ্ধা। ১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধে একজন সৈনিক হিসেবে দুই নম্বর সেক্টরে মেজর হায়দারের নেতৃত্বে নায়ক জসিম পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করেছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধের পর হঠাৎ কী খেয়াল হলো, নেমে পড়লেন চলচ্চিত্রে। ১৯৭২ সালে ‘দেবর’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে অভিনয় শুরু করেন জসিম। আর এ ছবিতে অভিনয়ের মধ্য দিয়েই পরিচালকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতে সক্ষম হন। কিন্তু সাফল্য পেতে আরও কিছুটা সময় লেগে যায়।

এরপর দেওয়ান নজরুলের পরিচালনায় ‘দোস্ত দুশমন’ ছবিতে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয় করেন। আর এ ছবিতে নিজের চরিত্রেটিকে চলচ্চিত্রের পর্দায় ফুটিয়ে তোলার জন্য ভূয়সী প্রশংসা পান। খলনায়ক হিসেবে তিনি দীর্ঘদিন একক রাজত্ব করেন ঢালিউডে। ‘বারুদ’ ‘আসামী হাজির’, ‘ওস্তাদ সাগরেদ’, ‘ জনি’, ‘কুরবানী’ প্রভৃতি ছবিতে তিনি নিজেকে মেলে ধরেন। 

খলনায়ক চরিত্রে বেশ কিছু ছবিতে অভিনয় করলেও, যার লক্ষ নায়ক হবেন তিনি তো তাঁর পথে চলবেনই। আর এ পথের যাত্রা শুরু হয় ‘সবুজ সাথী’ ছবির মধ্য দিয়েই। আশির দশকের সফল ও জনপ্রিয় নায়কদের মধ্যে জসিম অন্যতম। নায়িকা শাবানা ও ববিতার সাথে জুটিবদ্ধভাবে অভিনয় করে সফলতা পান জসিম।

জসিমের ছবি মানেই সাধারন মানুষের সুখ-দুঃখ ও জীবন সংগ্রামের চিত্র। নায়ক জসিম অভিনীত ছবিগুলোর মধ্যে যেসব ছবি তুমুল জনপ্রিয়তা পায় সেগুলো হল ঃ ‘স্বামী কেন আসামি’ , বৌমা’ , ‘স্বামীর আদেশ’ , ‘টাকা পয়সা’ , ‘অভিযান’, ‘পরিবার’, ‘সারেন্ডার’, ‘ভাই আমার ভাই’, ‘ভাইজান’, ‘গর্জন’, ‘বিজয়’, ‘লালু মাস্তান’, ‘অবদান’, ‘ন্যায় অন্যায়’ , ‘লোভ লালসা’, ‘আদিল’মাস্তান রাজা ‘ , ‘কালিয়া’, ‘ওমর আকবর’, ‘ দাগি সন্তান’, ‘ সম্পর্ক’ , ‘শত্রুতা’, ‘নিষ্ঠুর’ , ‘পাষাণ’, ‘হিংসা’, ‘ভাইয়ের আদর’ , ‘হাতকড়া’ , ‘ডাকাত’ ‘ বাংলার নায়ক’, ‘রাজাবাবু’, ‘রাজাগু-া’ , ‘ মোহাম্মদ আলী ‘, ‘রকি’, ‘হিরো’, ‘অশান্তি’ , ”, ‘কাজের বেটি রহিমা’ , ‘উচিৎ শিক্ষা’, ‘লক্ষ্মীর সংসার’, ‘ঘাত প্রতিঘাত’ প্রভৃতি।  সবমিলিয়ে প্রায় দুইদশ চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছিলেন তিনি।

নায়ক জসিমই আবিষ্কার করেছিলেন আজকের নায়ক রিয়াজকে। ১৯৯৪ সালে রিয়াজ চাচাতো বোন ববিতার সাথে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনে (বিএফডিসি) ঘুরতে এসে জসিমের নজরে পড়েছেন। জসিম তখন তাকে অভিনয়ের প্রস্তাব দেন। পরবর্তীতে জসিমের সাথে ‘বাংলার নায়ক’ নামের একটি ছবিতে ১৯৯৫ সালে অভিনয় করেন রিয়াজ।

জসিমের প্রথম স্ত্রী ছিলেন নায়িকা সুচরিতা। পরে তিনি ঢাকার প্রথম সবাক ছবির নায়িকা পূর্ণিমা সেনগুপ্তার মেয়েকে  নাসরিনকে বিয়ে করেণ।

বিশেষ করে অ্যাকশন নায়ক হিসেবে বাংলা চলচ্চিত্রে আজও তিনি কিংবদন্তি হয়ে আছেন চিত্রনায়ক জসিম। আজও ভক্তদের মনে রয়েছেন কিংবদন্তী এই অভিনেতা।

আজ তার মৃত্যুবাষিকী উপলক্ষে শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে কোরআন খতম ও দোয়ার অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সমিতির সাধারণ সম্পাদক জায়েদ খান। 

কিংবদন্তি এই নায়কের  প্রয়াণ দিবসে  বৈশাখী পরিবারের পক্ষ থেকে রইলো গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলি এবং তাঁর আতœার শান্তি কামনা। 


 

এই বিভাগের আরো খবর

বিজয় দিবসে স্মারক ডাকটিকিট অবমুক্ত করলেন প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে ১০ টাকা মূল্যের একটি স্মারক ডাকটিকিট ও একটি উদ্বোধনী খাম এবং পাঁচ টাকা দামের একটি ডাটাকার্ড...

রাজধানীতে পেঁয়াজ ও চালের দাম উর্ধ্বমুখী, কমছে সবজির দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর বাজারে একমাসে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ। প্রতি কেজি বিক্রি হচ্ছে ১৩০ টাকায়। অন্যদিকে, নতুন চাল আমন এলেও দাম...

পুরো দক্ষিণ এশিয়ার জনগণই হৃদরোগের ঝুঁকির মধ্যে: রাষ্ট্রপতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: শুধু বাংলাদেশ নয়, পুরো দক্ষিণ এশিয়ার জনগণই হৃদরোগের ঝুঁকির মধ্যে বসবাস করছে বলে মন্তব্য করেছেন রাষ্ট্রপতি মোহাম্মদ...

রংপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীকে সরিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: রংপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন থেকে ধানের শীষের প্রার্থীকে সরিয়ে দিতে সরকার ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is