ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯
শিরোনামঃ
ঢাকায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাতে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাত রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থানকে গুতেরেসের সমর্থন গত কদিনে বাংলাদেশে ঢুকেছে প্রায় ৪০ হাজার রোহিঙ্গা ১১ সাক্ষীকে জেরার জন্য খালেদার আবেদন হাই কোর্টে নিষ্পত্তি নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের কাজে নিরপেক্ষতা থাকতে হবে: সিইসি বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১৪ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা শিশু অপুষ্টিতে মারা যেতে পারে নিরাপদ সড়ক গড়ে তোলার লক্ষ্যে সবাই আইন মেনে চলুন টস জিতে ব্যাটিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা আবহাওয়ার উন্নতি: দেশের বিভিন্ন রুটে নৌ চলাচল স্বাভাবিক নির্বাচন নিয়ে সরকার নীল নকশা করছে: রিজভী ২৫টি নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থার সাথে বৈঠকে বসেছে ইসি ফাইনালে আজ মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও মালয়েশিয়া স্পেনের কেন্দ্রীয় শাসন না মানার ঘোষণা কাতালান প্রেসিডেন্টের উন্নত বাংলাদেশ গড়তে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন: জয় ইপিএল-এ জয় পেয়েছে চেলসি ও ম্যানসিটি বেড়িবাঁধ ভেঙে বিভিন্ন জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ব্যাহত ফেরি চলাচল টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা টানা বৃষ্টিতে দেশের বিভিন্ন বন্দরের কার্যক্রমে স্থবিরতা মালয়েশিয়ায় ভূমিধসে তিন বাংলাদেশীসহ ৪ শ্রমিকের মৃত্যু কাতালোনিয়ার স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে দিলো স্পেন

এস এম সুলতানের মৃত্যুবার্ষিকী আজ

প্রকাশিত: ১১:৫২ , ১০ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ১১:৫২ , ১০ অক্টোবর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক : মাটি ও মানুষের শিল্পী  এসএম সুলতান। বাংলার গ্রামীণ জীবন, কৃষক এবং কৃষিকাজের মধ্যে তিনি খুঁজে পেয়েছিলেন জীবনের সুর ও ছন্দ। এজন্যই তার ছবিতে ছিল গ্রামীণ জীবনের পূর্ণতা, শ্রেণি দ্বন্দ্ব আর গ্রামীণ অর্থনীতি। সুলতান স্বপ্ন দেখতেন গ্রামকে ঘিরে গড়ে উঠবে সভ্যতা, আর পেশিবহুল শক্তিশালী কৃষক থাকবেন এর প্রধান চরিত্রে। যা ফুটে উঠেছে তার ছবিতে।

প্রাতিষ্ঠানিক রীতিনীতির ঘোর বিরোধী ছিলেন এসএম সুলতান। ভালবাসতেন শিশুদের। আর তাই শিশুদের বিনোদন ও শিক্ষার জন্য বানিয়েছিলেন ভাসমান শিশুস্বর্গ ও চিড়িয়াখানা।

১৯৯৪ সালের ১০ অক্টোবর না ফেরার দেশে চলে যান সুলতান। নড়াইলের কুড়িগ্রামে নিজ বাড়িতে তাকে শায়িত করা হয়। শিল্পীর মৃত্যুর পর তার বাসভবন, শিশুস্বর্গ ও সমাধিস্থল ঘিরে নির্মাণ করা হয় ‘এসএম সুলতান স্মৃতিসংগ্রহশালা’।

শিল্পীর মৃত্যুবাষির্কী ঘিরে জেলা প্রশাসন ও এসএম সুলতান ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে শিল্পীর প্রতিকৃতিতে পুস্পমাল্য অর্পণ, শিশুদের চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও আলোচনাসভাসহ আয়োজন করা হয়েছে বিভিন্ন কর্মসূচি।

 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is