ঢাকা, শনিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৭, ৬ কার্তিক ১৪২৪, ৩০ মহাররম ১৪৩৯
শিরোনামঃ
উন্নত বাংলাদেশ গড়তে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন: জয় বেড়িবাঁধ ভেঙে বিভিন্ন জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ব্যাহত ফেরি চলাচল টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা টানা বৃষ্টিতে দেশের বিভিন্ন বন্দরের কার্যক্রমে স্থবিরতা ডি-এইট সম্মেলনে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে রোহিঙ্গা ইস্যু আওয়ামী লীগে জঙ্গি-সন্ত্রাসি ও চাঁদাবাজের ঠাঁই নেই: ওবায়দুল সু চি’র নীরবতায় রোহিঙ্গাদের ওপর সেনা নিপীড়ন চলছে: ইউনূস ভারী বর্ষণে কলাপাড়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে ১১ গ্রাম প্লাবিত রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ: আমীর খসরু মালয়েশিয়ায় ৩৯ বাংলাদেশিসহ ১১৩ অভিবাসী আটক একটি গোষ্ঠী রোহিঙ্গাদের সন্ত্রাসী কাজে ব্যবহার করতে চায়: কামরুল প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিত করার আহ্বান ইনজুরির কারণে শেষ ওয়ানডেতেও খেলতে পারছেন না তামিম দিনাজপুর ও নেত্রকোনার চাষিরা দিশাহারা স্পেনের অংশ কাতালোনিয়া আছে, থাকবে: রাজা ষষ্ঠ ফিলিপ আলফাডাঙ্গায় মধুমতির ভাঙন এলাকায় ড্রেজিং প্রকল্প উদ্বোধন আফগানিস্তানে দু’টি মসজিদে আত্মঘাতী বোমা হামলা, নিহত ৭২ হাঁস পালন করে ঝিনাইদহের শতাধিক খামারির মুখে হাসি ড্রাগন চাষে লাভবান হচ্ছেন পটুয়াখালীর চাষিরা ভারী বর্ষণে কলাপাড়ায় বেড়িবাঁধ ভেঙে ১১ গ্রাম প্লাবিত

জেনে নিন কারা ডায়াবেটিসের ঝুঁকিতে

প্রকাশিত: ১২:২৮ , ১১ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ১২:২৮ , ১১ অক্টোবর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: অতিরিক্ত ক্ষুধা বা তৃষ্ণা, ওজন কমা, দৃষ্টিশক্তি হ্রাস প্রভৃতি উপসর্গ সাধারণত ডায়াবেটিসের লক্ষণ। কিন্তু লক্ষণগুলো সবসময় না-ও থাকতে পারে। প্রতি দুজন ডায়াবেটিস রোগীর মধ্যে একজন জানেনই না, তিনি ডায়াবেটিস রোগে আক্রান্ত। অনেক  ক্ষেত্রে চোখের জটিলতা, হৃদরোগ, স্ট্রোক, কিডনি জটিলতা, পায়ে পচন, প্রভৃতি জটিলতা নিয়ে ডায়াবেটিস শনাক্ত হয়। সঠিক সময়ে রোগনির্ণয় তাই ডায়াবেটিসের চিকিৎসা ও জটিলতা প্রতিরোধের অন্যতম পূর্বশর্ত। তাই ডায়াবেটিসের কোনো লক্ষণ না থাকলেও যাঁরা ঝুঁকিতে রয়েছেন তাঁদের নিয়মিত ডায়াবেটিস পরীক্ষা করানো উচিত।

যাঁরা ঝুঁকিতে রয়েছেন

১. বয়স ৪৫ বা তার বেশি

২. স্থূল ব্যক্তি

৩. শারীরিক পরিশ্রমের ঘাটতি

৪. রক্তসম্পর্কিত নিকটাত্মীয়ের ডায়াবেটিস থাকলে

৫. উচ্চরক্তচাপ, স্ট্রোক বা হৃদরোগ

৬. পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম

৭. গর্ভকালীন ডায়াবেটিস বা অধিক ওজনের সন্তান প্রসবের পূর্ব ইতিহাস

৮. রক্তে ট্রাইগি­সারাইডের মাত্রা বেশি এবং এইচডিএলের মাত্রা কম থাকলে

তা ছাড়া গর্ভবতী নারীদের সময়মতো ডায়াবেটিস নির্ণয় না হলে, বেশি ওজনের শিশু জন্মদান, অকাল গর্ভপাত, মৃত সন্তান প্রসব, প্রসব-পরবর্তী শিশুমৃত্যু, জন্মগত ত্রুটি বা প্রসব-পরবর্তী মা ও সন্তানের বিভিন্ন জটিলতাও দেখা দেয়।

শিশুদের সাধারণত টাইপ-১ ডায়াবেটিস বেশি দেখা যায়। তবে ১৮ বছরের নিচেও টাইপ-২ ডায়াবেটিস থাকার আশঙ্কা থাকে। তাই স্থূলকায় বাচ্চা এবং সেই সঙ্গে রক্তসম্পর্কীয় নিকটাত্মীয়ের ডায়াবেটিস বা মায়ের গর্ভকালীন ডায়াবেটিসের ইতিহাস থাকলে অথবা ইনসুলিন রেজিস্ট্যান্টের উপসর্গ, যেমন—  ঘাড়ের কালো দাগ, উচ্চরক্তচাপ, পলিসিস্টিক ওভারি সিনড্রোম প্রভৃতি থাকলে ১০ বছর বয়সের পর যেকোনো শিশুর ডায়াবেটিস পরীক্ষা করা উচিত।

 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

‘গর্ভকালীন মায়ের জন্য রক্ত প্রয়োজন’-স্লে­াগানে চট্টগ্রামে ক্যাম্পেইন

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘গর্ভকালীন মায়ের জন্য রক্ত প্রয়োজন’- স্লে­াগানে চট্টগ্রামে মানববন্ধন ও সচেতনতামূলক ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়েছে।...

রাগ নিয়ন্ত্রণে কি করবেন?

ডেস্ক প্রতিবেদক: কারো সাথে দারুণ বন্ধুত্বের কোনো সম্পর্ক নিমিষেই শত্র“তায় পরিণত হতে পারে যে কারণে তা হলো রাগ। বহুদিনের কোনো কষ্টের কিংবা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is