ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ জানুয়ারী ২০১৮, ৩ মাঘ ১৪২৪, ২৮ রবিউস সানি ১৪৩৯
শিরোনামঃ
৩০ দফা ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্টে একমত হয়েছে বাংলাদেশ -মিয়ানমার চট্টগ্রামে প্রণব মুখার্জি বাল্যবিয়ে আজও দেশের বড় সামাজিক সমস্যা বিএনপির মনোনয়ন পেলেন তাবিথ আউয়াল শাহজালালে যাত্রীর অন্তর্বাস থেকে ৪৩টি স্বর্ণের বার আটক শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ী নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু বিগ বস ১১’ জয়ী শিল্পা শিন্ডে জাতীয় সংসদ ভবনের নকশা নিয়ে আজো চলছে গবেষণা আলিয়া-রণবীরকে দেখা যাবে জোয়ারের ছবিতে নিরাপত্তার জন্য সংসদ ভবন পরিদর্শনের সুযোগ কম সাধারণ মানুষের ৫ দিনের সফরে ঢাকায় প্রণব মুখার্জী, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাত আজ বাংলাদেশ-মিয়ানমার জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক শুরু ৪ ঘন্টা বন্ধ থাকার পর শাহজালাল বিমানবন্দরে বিমান উড্ডয়ন-অবতরণ শুরু প্রথম ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টস জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত বাংলাদেশের

জলাবদ্ধতা নিরসনে বাঁধ-সড়ক নির্মাণ

ঠিকাদার নিয়োগ নিয়ে সিডিএর দরপত্রে অস্বচ্ছতার অভিযোগ

প্রকাশিত: ১২:২৯ , ১২ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ০৫:১৭ , ১২ অক্টোবর ২০১৭

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা সমস্যা সমাধানে উদ্যোগ নিয়েছে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ। এর অংশ হিসেবে কালুরঘাট থেকে শাহ আমানত সেতু পর্যন্ত সাড়ে ৮ কিলোমিটার বাঁধ ও চার লেনের সড়ক নির্মাণের দরপত্র আহবান করেছে সিডিএ। তবে শুরুতেই প্রকল্পের ঠিকাদার নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে অস্বচ্ছতার অভিযোগ উঠেছে।
চট্টগ্রাম মহানগরীর দুঃখ জলাবদ্ধতা নিরসনে শুরু হয়েছে মেগা প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ। প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে কালুরঘাট থেকে শাহ আমানত সেতু পর্যন্ত কর্ণফুলী নদীর তীর বরাবর ৮ দশমিক পাঁচ ছয় কিলোমিটার বাঁধ কাম চার লেনের সড়ক নির্মাণ করবে চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ।এরসাথে থাকবে ১২টি খালের মুখে বিশেষ স্লুইস গেইট এবং পাম্প হাউজ। এ প্রকল্পে ব্যয় ধরা হয়েছে ২ হাজার ২৭৫ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন জোয়ার ও অতি বৃষ্টিতে নগরীর বিভিন্ন এলাকা জলাবদ্ধ হয়ে পড়ার মূল কারণ কর্ণফুলীর তীরের প্রায় সাড়ে ৮ কিলোমিটারএলাকায় বাঁধ ও স্লুইস গেইট না থাকা।
কিন্তু অভিযোগ উঠেছে- প্রকল্পের মূল উদ্দেশ্য নগরীর জলাবদ্ধতা নিরসন হলেও দরপত্রে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে সড়ক নির্মাণে। বাঁধ প্রকল্পের ধরণ অনুযায়ী দরপত্র আহবান না করে সীমিত প্রতিষ্ঠানকে সুযোগ করে দেয়া হয়েছে। ফলে বাঁধ নির্মাণে অভিজ্ঞরা দরপত্রে অংশগ্রহণ থেকে বঞ্চিত হতে পারে। চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের প্রকল্পের পরিচালক প্রকৌশলী রাজিব দাশ জানান, ঠিকাদার নিয়োগের প্রাথমিক প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।
ঠিকাদার নির্বাচন প্রক্রিয়ায় কোন অস্বচ্ছতা নেই বলে দাবি করেন সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম। নিয়ম মেনেই প্রকল্পের কাজ শুরু হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।
গুরুত্বপূর্ণ এই প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে দক্ষ ও অভিজ্ঞ ঠিকাদার নিয়োগ হওয়া উচিত বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

নিরাপত্তার জন্য সংসদ ভবন পরিদর্শনের সুযোগ কম সাধারণ মানুষের

নিজস্ব প্রতিবেদক : দূর থেকে দেখে অভিভূত হওয়া ছাড়া জাতীয় সংসদ ভবনের ভেতরে গিয়ে দেখবার সুযোগ সাধারণের জন্য নেই বললেই চলে। অধিবেশন চলার সময়...

সংসদ ভবন নির্মাণের সাথে জড়িয়ে আছে স্থপতি মাযহারুল ইসলামের নামও

নিজস্ব প্রতিবেদক : বর্তমান জাতীয় সংসদ ভবন নির্মাণের পরিকল্পনা শুরু হয় দেশ স্বাধীনের আগে। পঞ্চাশের দশকের শেষে আইয়ূব খানের সামরিক সরকার এই...

ইতিহাস জানা নেই অনেকের

জাতীয় সংসদ ভবনের মূল নকশার বিচ্যুতি সংশোধনের চেষ্টা

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশ পরিচালনায় জাতীয় সংসদের গুরুত্ব সম্পর্কে নাগরিকদের কম বেশি ধারণা আছে। তবে সংসদের পেছনের ইতিহাস, বর্তমান ভবনের...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is