ঢাকা, রবিবার, ২২ অক্টোবর ২০১৭, ৭ কার্তিক ১৪২৪, ১ সফর ১৪৩৯
শিরোনামঃ
ঢাকায় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাতে প্রধানমন্ত্রীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাত রোহিঙ্গা ইস্যুতে বাংলাদেশের অবস্থানকে গুতেরেসের সমর্থন গত কদিনে বাংলাদেশে ঢুকেছে প্রায় ৪০ হাজার রোহিঙ্গা ১১ সাক্ষীকে জেরার জন্য খালেদার আবেদন হাই কোর্টে নিষ্পত্তি নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের কাজে নিরপেক্ষতা থাকতে হবে: সিইসি বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া ১৪ হাজারেরও বেশি রোহিঙ্গা শিশু অপুষ্টিতে মারা যেতে পারে নিরাপদ সড়ক গড়ে তোলার লক্ষ্যে সবাই আইন মেনে চলুন টস জিতে ব্যাটিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা আবহাওয়ার উন্নতি: দেশের বিভিন্ন রুটে নৌ চলাচল স্বাভাবিক নির্বাচন নিয়ে সরকার নীল নকশা করছে: রিজভী ২৫টি নির্বাচন পর্যবেক্ষক সংস্থার সাথে বৈঠকে বসেছে ইসি ফাইনালে আজ মুখোমুখি হচ্ছে ভারত ও মালয়েশিয়া স্পেনের কেন্দ্রীয় শাসন না মানার ঘোষণা কাতালান প্রেসিডেন্টের উন্নত বাংলাদেশ গড়তে আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় রাখুন: জয় ইপিএল-এ জয় পেয়েছে চেলসি ও ম্যানসিটি বেড়িবাঁধ ভেঙে বিভিন্ন জেলার নিম্নাঞ্চল প্লাবিত, ব্যাহত ফেরি চলাচল টানা বৃষ্টিতে ডুবে গেছে ঢাকার বিভিন্ন এলাকা টানা বৃষ্টিতে দেশের বিভিন্ন বন্দরের কার্যক্রমে স্থবিরতা মালয়েশিয়ায় ভূমিধসে তিন বাংলাদেশীসহ ৪ শ্রমিকের মৃত্যু কাতালোনিয়ার স্বায়ত্তশাসন বাতিল করে দিলো স্পেন

মৃত্যুর পর কি হবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর একাউন্ট

প্রকাশিত: ০৮:৩৮ , ১২ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ০৯:১৮ , ১২ অক্টোবর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর সময়ে আমরা এমন কেউ নেই যে এর ব্যবহার থেকে দূরে রয়েছি। এমন লোক খুজে পাওয়া কঠিন যে তার হাতে অন্তত একটি হলেও স্মার্টফোন নেই। এছাড়া ডেস্ক টপ, ল্যাপটপ তো রয়েছেই। এসব ইলেকট্রনিক্স যন্ত্রের সাহায্যে কি না করতে পারি আমরা। এর মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোর ব্যবহার অন্যতম। এসব যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে জীবদ্দশায় খুলে যাওয়া আপনার অ্যাকাউন্টগুলোতে রয়ে যায় অনেক স্মৃতি। মৃত্যুর পর কী হবে এসব সামাজিক যোগাযোগের অ্যাকাউন্টের? সেটা কি অন্য কেউ চালাবে? নাকি নতুন অ্যাকাউন্টের ভিড়ে তা হারিয়ে যাবে চিরতরে? এই প্রশ্নগুলোর উত্তর দিয়েছে প্রযুক্তি বিষয়ক ওয়েবসাইট ম্যাশেবল। তাঁরা জানাচ্ছে, মৃত্যুর আগেই আপনি ঠিক করে যেতে পারবেন সামাজিক মাধ্যমে আপনার অ্যাকাউন্টগুলোর ভবিষ্যৎ।

ফেসবুকঃ সামাজিক যোগাযোগ মাদ্যমগুলোর মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয় একটি সাইট হলো ফেসবুক। মৃত্যুর পর কি হবে আপনার ফেসবুক আইডি? মৃত্যুর পরও আপনি চাইলে আপনার ফেসবুক অ্যাকাউন্টটি চালু রাখতে পারবেন অথবা বন্ধ করে দিতে পারবেন। যদি আপনি মৃত্যুর পরও আপনার অ্যাকাউন্টটি চালু রাখেন, তাহলে সেখানে ‘রিমেমবারিং’ বা স্মরণীয় শব্দটি থাকবে। এ ছাড়া মৃত্যুর আগে আপনার অ্যাকাউন্টটি যে কাউকে দলিল করে দিয়ে যেতে পারেন। এতে আপনার মৃত্যুর পরও অ্যাকাউন্টটির কার্যক্রম সচল থাকবে। এ জন্য এ ব্যাপারে একটি আইনি চুক্তি বা দলিলের কপি ফেসবুকে পাঠাতে হবে। সেখানে ব্যক্তির নাম ও তাঁর সঙ্গে আপনার সম্পর্কের বিষয়টিও উল্লেখ করতে হবে। আপনার মৃত্যুর পর, মৃত্যুসনদ দেখিয়ে উইলে উল্লেখিত ব্যক্তিটি আপনার অ্যাকাউন্টটির দখল নিতে পারবেন। তবে যত দিন ফেসবুক আপনার মৃত্যুসনদ হাতে না পাচ্ছে, ততদিন অ্যাকাউন্টটি আপনারই থাকবে।

ইউটিউবঃ বর্তমানে প্রচুর ইউটিউব চ্যানেলের জনপ্রিয়তাও রয়েছে। এছাড়া ইউটিউবের চ্যানেলগুলো আর্থিক দিক দিয়ে বেশ লাভজনক। এজন্য মৃত্যুর আগে আপনার লাভজনক চ্যানেল বা অ্যাকাউন্টটি দিয়ে যেতে পারেন প্রিয় কাউকে। এক্ষেত্রে প্রক্রিয়াটিও অনেকটা ফেসবুকের মতই। আপনার মৃত্যুর পর কে আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা অ্যাকাউন্টের দায়িত্বভার গ্রহণ করবেন, তা একটি আইনি চুক্তি বা দলিলের মাধ্যমে জানাতে হবে ইউটিউব কর্তৃপক্ষকে। তা না হলে আপনার ইউটিউব চ্যানেল বা অ্যাকাউন্টটি নতুন চ্যানেল ও অ্যাকাউন্টের ভিড়ে হারিয়ে যাবে চিরতরে। কারণ একটি নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত কোনো ইউটিউব চ্যানেল বা অ্যাকাউন্টে তৎপরতা দেখা না গেলে অর্থাৎ আপলোড না করলে ইউটিউব কর্তৃপক্ষ নিজে থেকেই তা বন্ধ করে দেয়।

টুইটারঃ মৃত্যুর পর টুইটার অ্যাকাউন্ট অন্য কারো মাধ্যমে চালু রাখার কোনো সম্ভাবনা নেই। তবে মৃত্যুর পর অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেয়ার ব্যবস্থা রয়েছে। এক্ষেত্রে নিহতের পরিবার বা আত্মীয়স্বজনের যে কেউ ঐ অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দিতে পারবেন। সে ক্ষেত্রে নিহত ব্যক্তির মৃত্যু সনদ এবং তিনি যে আপনার পরিবারের সদস্য বা আত্মীয়, তার প্রমাণ দিতে হবে। প্রমাণ দিতে পারলেই ঐ অ্যাকাউন্টটি অপসারণ করবে টুইটার কর্তৃপক্ষ।

গুগলঃ মৃত্যুর পর আপনার গুগল অ্যাকাউন্টটি আর চালু রাখার সুযোগ নেই। তবে তা বন্ধ করে দেয়ার সুযোগ রয়েছে। এ জন্য যে মানুষটিকে আপনি গুগল অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করার ক্ষমতা দেবেন, সে মানুষটির সঙ্গে একবার হলেও ই-মেইলে আলাপচারিতা থাকতে হবে আপনার। কারণ, আপনার মৃত্যুসনদ এবং গুগল অ্যাকাউন্ট থেকে পাঠানো ই-মেইলগুলোর যেকোনো একটি মেইলের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত বিষয়বস্তু বর্ণনা পাওয়া গেলেই আপনার গুগল অ্যাকাউন্টটি বন্ধ করে দেওয়া হবে।

ইনস্টাগ্রামঃ আপনার ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টটিও মৃত্যুর পর অন্য কারো মাধ্যমে সচল রাখা যাবে। তবে এ ক্ষেত্রে ইনস্টাগ্রামের নীতি কিছুটা ভিন্ন। আপনার মৃত্যুর পর যে ব্যক্তি আপনার মৃত্যুসনদ দেখাতে পারবেন, সেই ব্যক্তিই হবেন অ্যাকাউন্টটির মালিক। তিনিই সিদ্ধান্ত নেবেন, আপনার অ্যাকাউন্টটি চালু থাকবে নাকি বন্ধ করে দেওয়া হবে।

এই সম্পর্কিত আরো খবর

এবার এক মাউসে তিন ডিভাইস

ডেস্ক প্রতিবেদন: এবার এক মাউস দিয়ে কাজ করবে তিনটি ডিভাইস। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলা প্রযুক্তি যেনো ক্রমেই মানুষের খুব কাছে চলে যাচ্ছে। আমরা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is