ঢাকা, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ৯ ফাল্গুন ১৪২৪

2018-02-20

, ৪ জমাদিউল সানি ১৪৩৯

তীব্র তাপদাহে দক্ষিণ এশিয়ায় হতে পারে প্রাণহানিকর মহাদুর্যোগ

প্রকাশিত: ১১:৫৩ , ১২ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ১১:৫৩ , ১২ অক্টোবর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: জলবায়ুর দ্রুত পরিবর্তনে দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলো ভয়াবহ তাপদাহের কবলে পড়তে পারে। আগামী কয়েক দশকের মধ্যেই এ অঞ্চলে ঘটতে পারে ভয়াবহ পরিবেশগত  বির্পযয়। ম্যাসাচুয়েটস ইন্সটিটিউট অব টেকনোলজি-এমআইটির এক গবেষণাপত্রে এই তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে।
গবেষণাপত্রে বলা হয়েছে, পৃথিবীর মোট জনগোষ্ঠীর পাঁচ ভাগের প্রায় এক ভাগ মানুষ বাস করে দক্ষিণ এশিয়ায়। দারিদ্র্যপীড়িত এ অঞ্চলে তীব্র তাপদাহে নেমে আসতেপারে  প্রাণহানিকর  মহাদুর্যোগ। তবে বৈশ্বিক তাপমাত্রা বৃদ্ধির পরিণতি এড়িয়ে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণের মাধ্যমে এখনও এ মহাদুর্যোগ এড়ানো সম্ভব বলে মনে করেন বিশ্লেষকরা।
গবেষণায় উল্লেখ করা হয়, তীব্র এ তাপদাহে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত হবে সিন্ধু ও গঙ্গা অববাহিকায় উর্বর অঞ্চলসহ ভারত,পাকিস্তান ও বাংলাদেশ। আর এ দেশগুলোই প্রধানত এ অঞ্চলের খাদ্য উৎপাদন ও অর্থনৈতিক সমৃদ্ধিতে অবদান রাখছে।
জনপ্রিয় টাইম ম্যাগাজিনও  সাম্প্রতিক এক প্রতিবেদনে এ গবেষণার সত্যতার সঙ্গে একমত হয়ে র বলছে, ২১০০ সালের মধ্যে দক্ষিণ এশীয় এসব দেশগুলোতে গড় তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বৃদ্ধি পাবে।
এ গবেষণাকে গুরুত্ব দিয়ে প্রভাবশালী পত্রিকা দ্য গার্ডিয়ানও  এক প্রতিবেদনে, বাতাশে কার্বন গ্যাস নিঃসরণ কমানো না গেলে, আর পাশাপাশি দ্রুত গুরুত্বের সাথে বিষয়টিতে নজর দিতে না পারলে, দক্ষিণ এশিয়ার এ দেশগুলোতে কোটি মানুষের প্রাণহানি ঘটতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

অস্ত্র নিয়ন্ত্রণের দাবিতে শনিবার ওয়াশিংটনে যাবে ফ্লোরিডার শিক্ষার্থীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে রাজনৈতিক পদক্ষেপের দাবিতে আগামী শনিবার ওয়াশিংটন অভিমুখে যাত্রার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফ্লোরিডা...

ব্যবসা করতে অভিভাবকদের অনুমতির প্রয়োজন নেই সৌদি নারীদের 

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: ধারাবাহিকভাবে একের পর এক সংস্কারে নতুন নতুন সব বিস্ময়ের জন্ম দিচ্ছে সৌদি আরব। এমনই সর্বশেষ বিস্ময়, সৌদি নারীদের ব্যবসা...

রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়ায় বাংলাদেশের গভীর প্রশংসা ট্রাম্পের

নিজস্ব প্রতিবেদক: মিয়ানমার থেকে আসা ১০ লাখের বেশি রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য বাংলাদেশের গভীর প্রশংসা করেছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is