ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৭, ১ পৌষ ১৪২৪, ২৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
মহিউদ্দিন চৌধুরীকে সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা, জানাজা সম্পন্ন মহিউদ্দিন চৌধুরীর মৃত্যুতে চট্টগ্রামে শোকের ছায়া মানুষের অন্তরে মহিউদ্দিন চৌধুরী জননেতা হিসেবেই বেঁচে থাকবেন স্বপ্নের ফেরিওয়ালা মহিউদ্দিন চৌধুরী মহান বিজয় দিবস উদযাপনে দেশজুড়ে নানা আয়োজন  সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বারবার হোচট খেয়েছে বাংলাদেশ নাটোরে চালু হয়নি কৃষকদের ৫টি শস্য মার্কেট কুমিল্লায় বাস চাপায় নিহত দুই রংপুর সিটি নির্বাচনের প্রচার-প্রচারণা শেষ মুহূর্তে জমজমাট রাজধানীর বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ টি-টেন ক্রিকেট লিগে কেরেলা কিংসের জয় হাসপাতালে জনবল-শয্যার অভাবে চিকিৎসা বঞ্চিত ঝিনাদহের নিউমোনিয়া আক্রান্ত শিশুরা পূর্ব জেরুজালেমকে ফিলিস্তিনের রাজধানী হিসেবে সৌদি বাদশাহর স্বীকৃতি নির্বাচনের আগে সংস্কারের জন্য ৩১ প্রস্তাবনা চূড়ান্ত  নেপালে নির্বাচনে বামপন্থী জোটের জয় চট্টগ্রামে রেডকিন সমাধিতে রাশিয়ার সশস্ত্র বাহিনীর শ্রদ্ধা ত্রিদেশীয় ও বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা সিরিজের সময়সূচি ঘোষণা রংপুর সিটি নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীকে সরিয়ে দেয়ার ষড়যন্ত্র হচ্ছে টাঙ্গাইলে ৩০ কিলোমিটার এলাকায় যানজট  থার্টিফার্স্ট নাইটে উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠান নয়: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সাগরে ভাসানো চিঠি ২৯ বছর পর ফেরত

প্রকাশিত: ০৭:১৭ , ২১ অক্টোবর ২০১৭ আপডেট: ০৭:১৭ , ২১ অক্টোবর ২০১৭

ডেস্ক প্রতিবেদন: চিঠি লিখে বোতলে ভরে সমুদ্রে ফেলার ২৯ বছর পর তা ফেরত পেলেন এক তরুণী। ১৯৮৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর খেলার ছলে চিঠি লিখে সমুদ্রে ভাসিয়েছিল আট বছরের ছোট্ট মেয়ে মিরান্ডা। সেই চিঠিই আবার ফেরত পেলেন তিনি। তবে এর পেছনে বড় ভূমিকা রেখেছে সোশ্যাল মিডিয়া। শোন যাক সেই গল্প।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় মিরান্ডার খোঁজ পান লিন্ডা হাম্ফ্রি ও তাঁর স্বামী ডেভিড। যাদের সংগ্রহে ছিলো বোতলবন্দী সেই চিঠি। হাম্ফ্রি দম্পতি জানিয়েছেন, চিঠির নীচে লেখা নাম ঠিকানা দেখে লেখিকাকে শনাক্ত করেন তাঁরা।

চিঠি পড়ে তারা জানতে পারেন, ২৯ বছর আগে যখন মিরান্ডার বয়স আট, তখন দক্ষিণ ক্যারোলিনার এডিস্টো সৈকতের ধারে বেড়াতে গিয়েছিলেন তিনি। সেখানেই এই চিঠি লিখে বোতলে ভরে সমুদ্রে ভাসিয়ে দেন মিরান্ডা।

২৯ বছর পরে সেই চিঠি উদ্ধার হয় জর্জিয়ার স্যাপেলো দ্বীপ থেকে। বোতল সমেত চিঠি খুঁজে পান হাম্ফ্রি দম্পতি। ডেভিড জানিয়েছেন, চিঠির নাম ও ঠিকানা দেখে তাঁরা চিঠির ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন। যেহেতু চিঠিতে লেখা ঠিকানা বদলে ফেলেছিলেন মিরান্ডা, তাই সোশ্যাল মিডিয়ার শরণাপন্ন হন হাম্ফ্রি দম্পতি।

ফেসবুকে নিজের চিঠি দেখে উচ্ছ্বসিত মিরান্ডা। সেই ছোট্ট বয়সের অপরিণত হস্তাক্ষরে লেখা চিঠি পড়ে আবেগে বিহ্বল তিনি। এ যে তারই লেখা চিঠি। সেই তো এটা ভাসিয়ে দিয়েছিল সাগরের বুকে। বারবার হাম্ফ্রি দম্পতিকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

তাঁর কথায়, ‘‘খুব ছোট ছোট বিষয়ও জীবনে ছাপ রেখে যায়। আমরা যতই এগিয়ে চলি না কেন, কিছু ছোট ঘটনা ফের শৈশবের স্মৃতিকে তাজা করে দেয়। এই ঘটনা আমার জীবনের সবচেয়ে আনন্দঘন মুহূর্তগুলোর একটি।’’ আগামী সপ্তাহেই লিন্ডা ও ডেভিডের সঙ্গে দেখা করবেন বলে জানিয়েছেন মিরান্ডা। নতুন এই বন্ধুদের সঙ্গে তাঁর শৈশবের স্মৃতি ভাগ করে নিতে চান তিনি।

 

এই বিভাগের আরো খবর

বর্ণাঢ্য ও অনন্য আনিসুল হক

নিজস্ব প্রতিবেদক : বর্ণাঢ্য কর্মজীবনের অধিকারী ছিলেন আনিসুল হক। ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের এই মেয়র নেতৃত্ব দিয়েছেন উদ্যোক্তা ও...

সাগরে ভাসানো চিঠি ২৯ বছর পর ফেরত

ডেস্ক প্রতিবেদন: চিঠি লিখে বোতলে ভরে সমুদ্রে ফেলার ২৯ বছর পর তা ফেরত পেলেন এক তরুণী। ১৯৮৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর খেলার ছলে চিঠি লিখে সমুদ্রে...

লালন শাহ’র তিরোধান দিবস

কুষ্টিয়ার বাউল সম্রাটের আখড়ায় জড়ো হয়েছেন ভক্ত-অনুসারীরা

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি: বাউল সম্রাট ফকির লালন শাহ ! গানের মধ্য দিয়ে জাতভেদের বিরোধিতা আর অহিংসার বাণী ছড়িয়েছিলেন এই আধ্যাত্মিক বাউল। তাইতো...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is