ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৯ সফর ১৪৩৯

বিশ্বজিৎ হত্যা

চার আসামির খালাসের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রপক্ষের আবেদন

প্রকাশিত: ১২:০৪ , ০৬ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০২:২০ , ০৬ নভেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: পুরান ঢাকার আলোচিত বিশ্বজিৎ হত্যার ঘটনায় চার আসামিকে খালাস দিয়ে হাইকোর্টের দেয়া আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করেছে রাষ্ট্রপক্ষ।

গত ৬ আগস্ট বিশ্বজিৎ হত্যার দায়ে বিচারিক আদালতের রায়ে মৃত্যুদণ্ড পাওয়া সাইফুল ইসলাম সাইফুল ও কাইয়ূম মিয়া টিপু এবং যাবজ্জীবন কারাদণ্ডপ্রাপ্ত গোলাম মোস্তফা ও এ এইচ এম কিবরিয়াকে খালাস দেন হাইকোর্ট। বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি ভীষ্মদেব চক্রবর্তীর বেঞ্চে দেয়া ওই আদেশে দু’জনের মৃত্যুদণ্ডাদেশ বহাল রাখা হয়।

গত ০১ নভেম্বর হাইকোর্টের ৮০ পৃষ্ঠার পূর্ণাঙ্গ রায়টি প্রকাশিত হয়। এর ভিত্তিতে সোমবার সকালে, আপিল বিভাগের চেম্বার বিচারপতির আদালতে ওই চারজনের খালাসের রায় স্থগিত চেয়ে আবেদন করা হয় বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল নজিবুর রহমান।

এই হত্যা মামলায় বিচারিক আদালতের রায়ে ফাঁসির আদেশ পাওয়া ৮ জনের মধ্যে রফিকুল ইসলাম শাকিল ও রাজন তালুকদারের মৃত্যুদণ্ড বহাল রয়েছে। তাদের মধ্যে রাজন পলাতক। অন্য ছয়জনের মধ্যে মাহফুজুর রহমান নাহিদ, ইমদাদুল হক এমদাদ, জি এম রাশেদুজ্জামান শাওন ও মীর মোহাম্মদ নূরে আলম লিমনের সর্বোচ্চ সাজা কমিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। লিমন পলাতক থাকলেও অন্য তিনজন কারাগারে আছেন।

২০১২ সালের ০৯ ডিসেম্বর বিএনপি-জামায়াতের অবরোধ কর্মসূচির মধ্যে পুরান ঢাকার বাহাদুর শাহ পার্কের কাছে বিশ্বজিৎকে প্রকাশ্যে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যা করে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা।

২০১৩ সালের ১৮ ডিসেম্বর এ হত্যা মামলার রায়ে ২১ আসামির  মধ্যে আটজনকে মৃত্যুদণ্ড ও ১৩ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেন ঢাকার চার নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ বি এম নিজামুল হক।

 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

বিচার বিভাগের সাথে নির্বাহী বিভাগের মতপার্থক্য কেটেছে- আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : নিম্ন আদালতের বিচারকদের শৃঙ্খলাবিধী নিয়ে বিচার বিভাগের সাথে নির্বাহী বিভাগের মত দূর হয়েছে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী...

প্রধান বিচারপতি নিয়োগে সময় নিয়ে বাধ্যবাধকতা নেই- জানালেন আইনমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রধান বিচারপতি নিয়োগে কোনো সময় নির্ধারণ বা সময় নিয়ে বাধ্যবাধকতা নেই বলে মন্তব্য করেছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is