ঢাকা, সোমবার, ২৮ মে ২০১৮, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

2018-05-27

, ১২ রমজান ১৪৩৯

সিলেটের পর্যটন নিয়ে আগ্রহ বাড়ছে

প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা তেমনটা বাড়েনি

প্রকাশিত: ০৯:৫০ , ১০ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ১০:০৪ , ১০ নভেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে সিলেট অঞ্চলের সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থা ভালো।  এই অঞ্চলের অধীবাসীদের অনেকে প্রবাসী, ফলে আর্থিক স্বচ্ছলতাও বেশী, যা সিলেটের পর্যটন খাতকে সমৃদ্ধ করতে বিশেষ সহায়ক। তবে সিলেটের পর্যটন নিয়ে দেশের ভ্রমন পিপাসুদের আগ্রহ অনেক বাড়লেও সে তুলনায় প্রয়োজনীয় সুযোগ-সুবিধা তেমনটা বাড়েনি।

মাটির দেখা নেই। ডুবে আছে মিঠা পানিতে। তার মধ্যে বৃক্ষরাজি এক বিস্তীর্ণ জঙ্গল। এটা সিলেট অঞ্চলের এক বণাঞ্চল। “রাতারগুল সোয়াম্প ফরেস্ট” নামে পরিচিত পর্যটকদের কাছে। এমন প্রকৃতিক সৌন্দর্য বিশ্বে বিরল, আর দেশে একমাত্র।

হিজল করচ, বরণ আর পাটি বেতে ছাওয়া এই ঘন অরণ্য। পায়ে হেটে দেখবার উপায় নেই। নৌকায় বসলেও অনেক সময় গাছের সাথে সংঘাত এড়াতে মাথা নিঁচু করতে হয়। গাছের শেকড় থাকে জলে ডুবে। আছে পাখির বিচরণ, গাছে পানিতে সাপ, আরও নানা প্রাণী। স্থানীয়দের জানার গন্ডি পেরিয়ে ২০১১ সাল থেকে রাতারগুল পর্যটন এলাকা হিসেবে পরিচিত হতে শুরু করে।

রাতারগুলের মতো সিলেট অঞ্চলের বেশিরভাগ দর্শনীয় জায়গা স্থানীয় জনগন এবং বিভিন্ন পর্যটক দলের প্রচারণায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেশে-বিদেশে পরিচিতি লাভ করছে। পরে যাচাই বাছাই করে সেই এলাকাগুলোকে আনা হচ্ছে পর্যটন কর্পোরেশনের তদারকির আওতায়।

সিলেটের পর্যটনকে বিকশিত করতে বিক্ষিপ্তভাবে ব্যক্তিগত পর্যায়ে বেশ কিছু উন্নত মানের হোটেল, মোটেল এবং রেস্টুরেন্ট তৈরি হয়েছে বিগত বেশ অনেক বছরে। বিলাসবহুল বিনোদন কেন্দ্রও করা হয়েছে।

এসব বিত্তবান দেশি-বিদেশি পর্যটকদের টানছে। তবে তা যথেষ্ট নয়, সরকারের পরিকল্পিত উদ্যোগ প্রয়োজন বলেও মনে করেন পর্যটনের সাথে যুক্ত স্থানীয় উদ্যোক্তারা।

সিলেটে মনিপুরী, খাসিয়াদের মত নানান ক্ষুদ্র জাতি গোষ্ঠীর জীবনযাত্রার প্রতি পর্যটকদের আকর্ষণ আছে। কিন্তু তাদের সংস্কৃতিকে তুলে ধরার মতো তেমন কোন পরিকল্পিত উদ্যোগ চোখে পড়ে না।

এই বিভাগের আরো খবর

নিরাপত্তা সংস্থার জন্য নেই নীতিমালা, অপরাধে জড়ানোর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত তিন দশক ধরে বাণিজ্যিক নিরাপত্তা সংস্থাগুলো কাজ করলেও তাদের ব্যবসা পরিচালনার জন্য কোনো নীতিমালা তৈরি হয়নি আজও।...

বেসরকারি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে ১০ লাখেরও বেশি মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে মাত্র তিন দশকে ৭’শর বেশী বাণিজ্যিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান সরকারি, বেসরকারি স্থাপনায় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ...

সফটওয়্যার খাতে রয়েছে দক্ষ জনশক্তি আর অবকাঠামো সুবিধার অভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে বিদেশে প্রতি বছরই সফটওয়্যারের বাজার সম্প্রসারণ হচ্ছে ত্রিশ থেকে চল্লি¬শ শতাংশ। ফলে প্রচুর সম্ভাবনা এ খাতে থাকলেও...

সফটওয়্যার রপ্তানি আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে আটশ’ মিলিয়ন ডলারে

নিজস্ব প্রতিবেদক : দক্ষ জনশক্তি, অবকাঠামোগত সীমাবদ্ধতার মধ্যেও ২০০০ সালে সফটওয়্যার রপ্তানি আয় ছিল যেখানে দুই দশমিক আট মিলিয়ন ডলার, এ বছর তা...

সফটওয়্যার খাতে কর্মসংস্থান হয়েছে পাঁচ লাখ মানুষের

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের সফটওয়্যারের অভ্যন্তরীণ বাজার প্রায় এক বিলিয়ন ডলারের আর বৈশ্বিক বাজার পাঁচ শত বিলিয়ন ডলারের। প্রযুক্তি খাতে গত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is