ঢাকা, রবিবার, ২১ অক্টোবর ২০১৮, ৬ কার্তিক ১৪২৫

2018-10-21

, ১০ সফর ১৪৪০

দিনাজপুরে আট বছরের শিশু বিরল রোগে আক্রান্ত 

প্রকাশিত: ০৯:১১ , ১১ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৯:১১ , ১১ নভেম্বর ২০১৭

দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বিরলের আট বছরের শিশু মাহমুদা। এই বয়সে সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যাওয়ার কথা। কিন্তু জন্মের পর থেকে বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে সংগ্রাম করছে পঙ্গুত্বের সাথে। ফোস্কা পড়ে সারা শরীরে সৃষ্টি হয়েছে দগদগে ঘা-এর। হাতে ও পায়ের আঙ্গুলে চামড়ার মতো প্রলেপ পরায় প্রায় অচল। সন্তানের চিকিৎসার করিয়ে সর্বশান্ত ভ্যানচালক বাবা। উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের সহায়তা চাইলো পরিবারের সদস্যরা। 

দিনাজপুরের বিরল উপজেলার বনগাঁও গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুর রহিমের ৮ বছর বয়েসী মেয়ে মাহামুদা। এবয়সে সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যাওয়ার কথা। কিন্তু বাস্তবতা বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে ঠিকমত হাটতেও পারেনা সে।

মাহামুদার সারা শরীরে ফোস্কা পড়ে সৃষ্টি হয়েছে দগদগে ক্ষত। হাত ও পায়ের আঙ্গুলে ঘায়ের কারণে সৃষ্টি হয়েছে চামড়ার মতো একধরণের প্রলেপ। ফলে হাত দিয়ে যেমন কিছু ধরতে পারে না তেমনি, ভর দিতে পারে না পায়ে।

জন্মের পর থেকে এই রোগে আক্রান্ত হয় মাহমুদা বলে জানিয়েছেন তার বাবা-মা সন্তানের চিকিৎসা করাতে বিক্রি করেছেন সহায়-সম্বল। 

দিনাজপুর বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ফজলুর রহমান বলছেন, এই রোগের নাম ‘এপি ডারমো লাইসিস বেলোসা’। জীনগত বৈশিষ্টের কারণে এই রোগ হয়। 

শিশু মাহামুদার স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা। যার সামর্থ নেই পরিবারের। এজন্য সরকারের সহযোগীতা চান মাহামুদার বাবা-মা। 
 

এই বিভাগের আরো খবর

ঠাকুরগাঁও সীমান্তে বিএসএফের গুলিতে বাংলাদেশি নিহত

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি: ঠাকুরগাঁও সীমান্তে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিএসএফের গুলিতে এক বাংলাদেশি নিহত হয়েছেন। শনিবার ভোরে বালিয়াডাঙ্গী...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is