ঢাকা, সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭, ৪ পৌষ ১৪২৪, ২৯ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
স্বাধীনতা বিরোধীদের মানুষ ভোট দেবে না : প্রধানমন্ত্রী নতুন মানচিত্র শিগগিরই প্রকাশ হবে পাঠ্যপুস্তকসহ সর্বত্র চির নিদ্রায় শায়িত হলেন প্রয়াত মন্ত্রী ছায়েদুল হক সংযুক্ত আরব আমিরাতের ব্যবসায়ীদের আরো বিনিয়োগের আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজারের আশ্রয়কেন্দ্রে ডিপথেরিয়া রোগী সনাক্ত, টিকাদান চলছে ৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু সুষ্ঠু ও অবাধ হবে রংপুর সিটি নির্বাচন: ওবায়দুল কাদের  ডিএনসিসি উপ-নির্বাচন ফেব্রুয়ারিতে  প্রিয় নেতার বাড়িতে প্রতিনিয়ত শোকার্ত নেতাকর্মীদের ভিড় প্রশ্নপত্র ফাঁসে সরকারি লোকজন জড়িত- দুদক শেষ মুহূর্তের প্রচারণায় জমজমাট রংপুর নগরী রাকসু’র নির্বাচনের দাবিতে গণস্বাক্ষর কর্মসূচি  আন্তর্জাতিক অভিবাসন দিবস সোমবার যুব গেমস উপলক্ষ্যে র‌্যালি ও আলোচনা সভা  বৈশ্বিক তাপমাত্রা ৩ ডিগ্রি পর্যন্ত বাড়ার আশঙ্কা  মুক্তিযুদ্ধের আদর্শিক লড়াই শেষ হয়নি আজও কংগ্রেসের সভাপতি হিসেবে রাহুল গান্ধীর অভিষেক সুশাসন প্রতিষ্ঠায় বারবার হোচট খেয়েছে বাংলাদেশ নাটোরে চালু হয়নি কৃষকদের ৫টি শস্য মার্কেট রাজধানীর বাজারে পেঁয়াজের দাম বেড়েছে দ্বিগুণ

দিনাজপুরে আট বছরের শিশু বিরল রোগে আক্রান্ত 

প্রকাশিত: ০৯:১১ , ১১ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৯:১১ , ১১ নভেম্বর ২০১৭

দিনাজপুর প্রতিনিধি: দিনাজপুরের বিরলের আট বছরের শিশু মাহমুদা। এই বয়সে সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যাওয়ার কথা। কিন্তু জন্মের পর থেকে বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে সংগ্রাম করছে পঙ্গুত্বের সাথে। ফোস্কা পড়ে সারা শরীরে সৃষ্টি হয়েছে দগদগে ঘা-এর। হাতে ও পায়ের আঙ্গুলে চামড়ার মতো প্রলেপ পরায় প্রায় অচল। সন্তানের চিকিৎসার করিয়ে সর্বশান্ত ভ্যানচালক বাবা। উন্নত চিকিৎসার জন্য সরকারের সহায়তা চাইলো পরিবারের সদস্যরা। 

দিনাজপুরের বিরল উপজেলার বনগাঁও গ্রামের ভ্যানচালক আব্দুর রহিমের ৮ বছর বয়েসী মেয়ে মাহামুদা। এবয়সে সহপাঠীদের সাথে স্কুলে যাওয়ার কথা। কিন্তু বাস্তবতা বিরল রোগে আক্রান্ত হয়ে ঠিকমত হাটতেও পারেনা সে।

মাহামুদার সারা শরীরে ফোস্কা পড়ে সৃষ্টি হয়েছে দগদগে ক্ষত। হাত ও পায়ের আঙ্গুলে ঘায়ের কারণে সৃষ্টি হয়েছে চামড়ার মতো একধরণের প্রলেপ। ফলে হাত দিয়ে যেমন কিছু ধরতে পারে না তেমনি, ভর দিতে পারে না পায়ে।

জন্মের পর থেকে এই রোগে আক্রান্ত হয় মাহমুদা বলে জানিয়েছেন তার বাবা-মা সন্তানের চিকিৎসা করাতে বিক্রি করেছেন সহায়-সম্বল। 

দিনাজপুর বিরল উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডাঃ ফজলুর রহমান বলছেন, এই রোগের নাম ‘এপি ডারমো লাইসিস বেলোসা’। জীনগত বৈশিষ্টের কারণে এই রোগ হয়। 

শিশু মাহামুদার স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে প্রয়োজন উন্নত চিকিৎসা। যার সামর্থ নেই পরিবারের। এজন্য সরকারের সহযোগীতা চান মাহামুদার বাবা-মা। 
 

এই বিভাগের আরো খবর

বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ড পরবর্তী বাংলাদেশ

মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস প্রচারে অগ্রনী ভূমিকা রাখেন মহিউদ্দিন চৌধুরী

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি : বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার পর শুরু হয় নতুন প্রজন্মকে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস বিকৃতভাবে জানানোর প্রক্রিয়া।...

নয়াদিল্লিতে নিযুক্ত ১৯ দেশের রাষ্ট্রদূতের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন

কক্সবাজার প্রতিনিধি: আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের দুর্ভোগের কথা শোনতে কক্সবাজারের উখিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করছেন ভারতের...

৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু

মাদারীপুর প্রতিনিধি : ঘন কুয়াশার কারণে প্রায় ৬ ঘণ্টা বন্ধ থাকার পর কাঁঠালবাড়ী-শিমুলিয়া নৌরুটে ফেরি চলাচল শুরু হয়েছে। মেরিন কর্মকতা...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is