ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫

2018-11-13

, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

দেশে বিস্কুটের বাজার পাঁচ হাজার কোটি টাকার, বাড়ছে ১৫ শতাংশ হারে

প্রকাশিত: ১০:১৬ , ১২ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ১১:৫৫ , ১২ নভেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: পাঁচ বা দশ পয়সা দিলেই ছোট ছোট গোটা পাঁচেক গোল বিস্কুট মিলতো দেশে মাত্র তিন দশক আগেও। রাস্তার ধারে চায়ের ছোট দোকানেও ২ টাকার নিচে নয় একটি বিস্কুটের দাম। এসব বিস্কুট কোন পাড়ার ক্ষুদ্র বেকারিতে বানানা হয়। যত বার বেকারি দাম তত বেশি, আর প্যাকেটজাত হলেও মানের ওপর দাম বাড়ে। টাকার অংকে দেশে বিস্কুটের বাজারের আকার বড় হয়ে এখন প্রায় পাঁচ হাজার কোটি টাকায় দাড়িয়েছে।

দেশের বাজারেই শুধু নয়, বিদেশের বাজারেও রপ্তানি বাড়ছে দেশে উৎপাদিত বিস্কুটের। ২০১১-১২ অর্থবছরে প্রায় ৮৬ কোটি টাকা রপ্তানি গেল সাত বছরে বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় ৫০০ কোটি টাকায়।

বিস্কুটের রপ্তানি বাড়লেও এর কাঁচামালের আমদানিও বেড়েছে কেননা দেশে ময়দা বা আটার উৎপাদন কমেছে। এছাড়াও নান সুগন্ধি, বিশেষ পরিশোধিত চিনিসহ বিস্কুট তৈরির নানা অনুষঙ্গও  আমদানি নির্ভর। তবে দেশে বিদেশি বিস্কুটের আমদানি অনেক কমেছে।
দেশীয় বিস্কুটের মানোন্নয়নের জন্য আরও অনেক সুযোগ রয়েছে।  

রপ্তানির ক্ষেত্রে বেকারির বিস্কুট অনুপস্থিত। প্যাকেটজাতরাই রপ্তানীর বাজারে। বেকারী বিস্কুট হাতে তৈরী ও খোলা থাকায় এসব বিস্কুটের ভাল থাকবার মেয়াদ কম, যা রপ্তানি সহায়ক নয়। বেকারী বিস্কুটকে রপ্তানীতে যুক্ত করার উপায় চিন্তা করা হচ্ছে।

বর্তমানে ৯১টি দেশে বিস্কুট রপ্তানি হয়। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় বেশি মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে হয়। চেষ্টা চলছে ইউরোপের বাজার বি¯তৃত করার। 

এই বিভাগের আরো খবর

পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিভাগীয় নির্বাচনী আসন গুলোতে, হোক তা শহরে কিংবা প্রত্যন্ত অঞ্চলে, পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে এরই মধ্যে। কর্মব্যস্ত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is