ঢাকা, বুধবার, ২২ নভেম্বর ২০১৭, ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

মুদ্রা ছাপার ব্যয় কমাতে ইলেক্ট্রনিক লেনদেন পদ্ধতিতে যাবার চিন্তা ভাবনা চলছে

প্রকাশিত: ১১:২৬ , ১৪ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৩:৫৫ , ১৪ নভেম্বর ২০১৭


নিজস্ব প্রতিবেদক : : নিরাপত্তার কথা বিবেচনায় আগামীতে দেশে নগদ অর্থহীন ইলেকট্রনিক লেনদেনের পদ্ধতিতে যাবার চিন্তা চলছে। সেই বিবেচনায় নগদ নোট ছাপানোর হার কমাবে বাংলাদেশ।

এখন পর্যন্ত যতগুলো নকশায় টাকা ছাপানো হয়েছে তাতে বঙ্গবন্ধুর ছবি, দেশের মানচিত্র, দেশজ শস্য, ফলমূল,  বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থাপনা, পশু-পাখি স্থান পেয়েছে। তবে এখনও স্থান পায়নি মহান মুক্তিযুদ্ধ। আগামীতে আসছে নতুন নকশায় পাঁচ টাকার নোট; যেখানে ব্যবহৃত নক্সায় স্থান পাবে মুক্তিযুদ্ধ।

ব্যবহার অনুপোযোগী নোট বাংলাদেশ ব্যাংক বিভিন্ন ব্যাংক, প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তির মাধ্যমে সংগ্রহ করে থাকে প্রতি বছর। প্রতি বছর পরিচ্ছন্ন নীতির আওতায় বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যবহার অনুপোযোগী নোট কুচি কুচি করে কেটে অথবা পুড়িয়ে ফেলে। এই বিশাল কর্মযজ্ঞ চালাতে ও নতুন টাকা ছাপতে প্রতি বছর বিশাল ব্যয় হয়।

নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে আধুনিক বিশ্বে বর্তমানে নগদ টাকার লেনদেন কমে ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থের প্রবাহ সবচেয়ে জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এতে একদিকে মুদ্রা ছাপাতে ব্যয় কমছে অন্যদিকে আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোর কর্মকান্ডকে আরো বেশি নিরাপদ করছে। বাংলাদেশও এমন লেনদেন  পদ্ধতির দিকে যেতে চায়। কমাতে চায় কাগজের টাকা ও ধাতব মুদ্রা ছাপানোর পরিমাণ।

ইলেকট্রনিক লেনদেন পদ্ধতিতে যাবার পরিকল্পনা চলছে বলে বাংলাদেশ ব্যাংক কাগজের টাকা ছাপতে এবং ধাতব মুদ্রা তৈরী নিয়ে আর বড় ধরনের কোন পরীক্ষা-নিরীক্ষা ও সংস্কারে ভবিষতে না যাবার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

 

এই সম্পর্কিত আরো খবর

নানা প্রতিবন্ধকতায় সব ইপিজেড কাঙ্খিত ভূমিকা রাখতে পারছে না

নিজস্ব প্রতিবেদক : পরিসংখ্যান ইপিজেডের সাফল্যের গল্প বললেও এ ধরনের সব অঞ্চল সেই কৃতিত্ব অর্জন করতে পারেনি। ৮টি ইপিজেডের মধ্যে শিল্পের...

শ্রমিক অসন্তোষ মুক্ত ইপিজেড, শিল্প বিকাশে সম্ভাবনাময় এলাকা

নিজস্ব প্রতিবেদক: শ্রমিক অসন্তোষ দেশের শিল্প বিকাশের ক্ষেত্রে বড় চ্যলেঞ্জ। তবে ইপিজেডগুলো এই সংকট থেকে মুক্ত বললেই চলে। দিন দিন...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is