ঢাকা, রবিবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৭, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৪, ২৯ সফর ১৪৩৯

এলিয়েনদের সঙ্গে যোগাযোগ গড়ে তুলছে চীন

প্রকাশিত: ০৩:১৭ , ১৪ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৩:১৭ , ১৪ নভেম্বর ২০১৭

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: ভিনগ্রহী বা এলিয়েনদের নিয়ে আগ্রহ অনেক দিন ধরেই সারা দুনিয়া জুরে। এলিয়েন নিয়ে বলিউড-হলিউডে অসংখ্য সিনেমাও তৈরি করা হয়েছে। কিন্তু শতভাগ নিশ্চয়তা দিয়ে তাদের উপস্থিতি সম্পর্কে এখনো কোনও সুনির্দিষ্ট প্রমাণ উপস্থিত করতে পারেননি বিজ্ঞানীরা।

তবে এবার মহাকাশ গবেষণায় সুপার পাওয়ার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত চীন। এলিয়েনের সঙ্গে যোগাযোগ স্থাপনের প্রচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের দাবি বিশ্বের বৃহত্তম রেডিও ডিশ ব্যবহার করে বেইজিং খুব শিগগিরই ভিনগ্রহীদের সঙ্গে যোগাযোগ গড়ে তুলতে পারবে।

গবেষকদের মতে, ৫০০ মিটার অ্যাপারচার স্ফেরিকাল টেলিস্কোপটি ডিশটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আরেসিবো অবজারভেটরির আকারের দ্বিগুণ এই টেলিস্কোপ। এটি মহাকাশের গভীর থেকে সমস্ত সিগন্যাল খুঁজে বের করতে পারবে। আর চীন একাধিকবার মহাকাশের রহস্যজনক বস্তুর সঙ্গে সাক্ষাতের দাবি জানিয়েছে। এমনকি গত সপ্তাহে চীনের গ্রেট ওয়ালের ওপর ইউফোতে দেখা যায় এমন দাবিসহ কয়েক ডজন সন্দেহভাজন-বহির্মুখী সংঘর্ষের পর চীন এই পদক্ষেপটি নিয়েছে।

রিপোর্ট অনুযায়ী, ওই টেলিস্কোপের মাধ্যমে মহাকাশে ভিনগ্রহী খুঁজে বের করতে চীন কয়েক বিলিয়ন পাউন্ড খরচ করেছে। যে কোনও গ্যালাক্সি থেকে সিগন্যাল ধরে ফেলবে এটি। এর মাধ্যমে চীন ক্রমশ স্পেস পাওয়ারে পরিণত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। তিনি বলেছিলেন যে সাহসী প্রকল্পটি স্থান মহাকাশ অনুসন্ধানে বড় এবং আরও পদক্ষেপ নিতে সক্ষম হবে এবং চীনকে একটি স্থান পাওয়ার হিসেবে নতুন অবদান রাখতে পারবে।

তবে প্রথম দুই তিন বছর এই টেলিস্কোপের প্রতিক্রিয়া বুঝতে বৃহত্তর গবেষণার দিকে যাওয়া যাবে না বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। তারা ছোট ছোট জিনিসের উপর গবেষণা করে এগোতে চান।

গত মাসে রুশ টেলিস্কোপে ধরা পড়ে ছিল একটি অজানা শক্তিশালী সংকেত। এই সংকেত বিভিন্ন বিজ্ঞানীদের কৌতূহল বাড়িয়ে দিয়েছিল কিন্তু এত দূর থেকে সংকেত এসেছিল যে তার কিনারা করতে পারেননি তারা।

সূত্র: সিয়াসেট

এই সম্পর্কিত আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is