ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ এপ্রিল ২০১৮, ১১ বৈশাখ ১৪২৫

2018-04-23

, ৭ শাবান ১৪৩৯

হোঁচটে নিতম্বের হাড়ে চিড়, ক্ষতিপূরণ ৬৩ কোটি টাকা

প্রকাশিত: ১১:৩৩ , ১৮ নভেম্বর ২০১৭ আপডেট: ১১:৩৩ , ১৮ নভেম্বর ২০১৭

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: এক হোঁচটের মূল্য ৬৩ কোটি টাকা। এমনই এক ঘটনায় একজন ক্রেতার করা মামলায় জরিমানা গুনতে হচ্ছে বিশ্বের সর্ববৃহৎ খুচরা পণ্য বিক্রেতা প্রতিষ্ঠান ওয়ালমার্টকে।

যুক্তরাষ্ট্রের আলবামা অঙ্গরাজ্যের ফেনিক্স শহরে ওয়ালমার্টের বিক্রয়কেন্দ্র থেকে তরমুজ কেনার সময় হেনরি ওয়াকার নামের ওই ক্রেতা হোঁচট খেয়ে পড়ে যান। ২০১৫ সালে ঘটে যাওয়া এ ঘটনায় হেনরির নিতম্বের হাড় ভেঙে যায়। এ ঘটনায় ওয়াকার ওয়ালমার্টের বিরুদ্ধে অবহেলা এবং অমনযোগিতার অভিযোগ এনে মামলা করেন।

ওয়াকার আদালতে জানান, যখন তিনি বিক্রয়কেন্দ্রেতরমুজ কেনার জন্য নির্ধারিত স্থানে যাচ্ছিলেন, তখন ফ্লোরে কাঠের তৈরি একটি প্রতিবন্ধকে হোঁচট খেয়ে পড়ে যান। যার কারণে তার নিতম্বে চিড় দেখা দেয়।

ওয়াকারের আইনজীবী শন ও হারা জানান, বিচারকরা বিক্রয়কেন্দ্রটির ক্যামেরায় ধারণ করা ফুটেজে দেখেছেন ওয়াকার যে জায়গায় হোঁচট খেয়েছেন সেখানে এর আগেও অনেকে একই ধরণের পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন। যা বিচার প্রক্রিয়াকে সাহায্য করেছে ।

বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন হওয়ার পর বিচারক ওয়াকারকে ৭৫ লাখ মার্কিন ডলার দেওয়ার নির্দেশ দেন। তিনি শারিরীক আঘাতের ক্ষতিপূরণ হিসেবে পাবেন ২৫ লাখ ডলার। একই সাথে প্রতিষ্ঠানকে করা ৫০ লাখ ডলার শাস্তিমূলক জরিমানাও পাবেন তিনি।

শন ও হারা আরও জানান, ওয়াকার একজন উর্ধ্বতন সেনা কর্মকর্তা। তিনি প্রতি সপ্তাহে বন্ধুদের সাথে অন্তত তিনবার করে বাস্কেটবল খেলতেন । অথচ দুর্ঘটনাটি ঘটার পর থেকেই তাকে ক্রাচে ভর দিয়ে চলাফেরা করতে হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

লবণের ইতিকথা

ডেস্ক প্রতিবেদন: বিশ শতকের শুরু পর্যন্ত এক পাউন্ড লবণের বার মুদ্রা হিসেবে ব্যবহৃত হতো বর্তমান ইথিওপিয়াতে। মধ্যযুগে বিশ্বের অনেক অঞ্চলে...

জেলে বদলে গেছেন রাম রহিম?

ডেস্ক প্রতিবেদন: ভারতের পাঞ্জাবের ডেরা সাচ্চা সওদা’র প্রাক্তন প্রধান গুরমিত রাম রহিম সিংহ ইনসান এবং তাঁর পালিত কন্যা হানিপ্রীত। দুই...

মাইন্ড ম্যাপিংয়ে বাড়ে সৃজনশীলতা 

ডেস্ক প্রতিবেদন: আমাদের মস্তিষ্কের ব্যবহার, চিন্তার চিত্রায়ন, মনে ছবি আঁকা বা মাইন্ড ম্যাপিংয়ের মাধ্যমে সৃজনশীলতা বৃদ্ধি করা যায়। শব্দ,...

যে গ্রহে রাত নেই

ডেস্ক প্রতিবেদন: এ গ্রহটিকে বলা হয় ‘ট্যাটুইন গ্রহ’। কিন্তু তার সঙ্গে ‘ট্যাটু’ বা উল্কির কোনো সম্পর্ক নেই। আসলে ‘স্টার ওয়রস’ ছবির...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is