ঢাকা, শনিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৮, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-17

, ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

প্রাথমিকসহ সকল স্তরে তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করা হবে : জয়

প্রকাশিত: ১১:৫৫ , ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭ আপডেট: ০৫:৪১ , ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক: তথ্যপ্রযুক্তি সেবা ও পণ্য রপ্তানিই বাংলাদেশের ভবিষ্যত, বললেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। আগামীতে প্রাথমিকসহ সকলস্তরে তথ্যপ্রযুক্তি শিক্ষা বাধ্যতামূলক করার কথাও জানান তিনি। সকালে, রাজধানীতে ডিজিটাল ওয়ার্ল্ড প্রদর্শনীর দ্বিতীয় দিনে আয়োজিত মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্সে এসব কথা বলেন সজীব ওয়াজেদ জয়। আধুনিক প্রযুক্তির সহায়তায় দেশের মানুষের উন্নয়নের জন্য নতুন নতুন প্রকল্প হাতে নেয়া হচ্ছে বলেও জানান জয়।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে তথ্যপ্রযুক্তির প্রদর্শনী ‘ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের’ দ্বিতীয় দিনে অনুষ্ঠিত হয় মিনিস্ট্রিয়াল কনফারেন্স। এতে বিভিন্ন দেশের মন্ত্রী ও প্রতিনিধির পাশাপাশি যোগ দেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

কনফারেন্সে ভুটান, মালদ্বীপ, কম্বোডিয়াসহ পাঁচ দেশের মন্ত্রী ও  সাত দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন। এসময় তারা বলেন, তথ্য প্রযুক্তির বিকাশে বাংলাদেশের সাফল্য প্রশংসনীয়। বিশ্বের উন্নত প্রযুক্তি গ্রহণের মাধ্যমে বাংলাদেশ আরো এগিয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেন প্রতিনিধিরা।  

এসময় প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেন, বেসরকারি খাতকে সঙ্গে নিয়ে সরকার তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে কাজ করছে। বাংলাদেশ পরিবর্তনশীল ভবিষ্যতের তথ্য প্রযুক্তির নেতৃত্ব দিতে প্রস্তুত বলেও জানান তিনি।

তিনি বলেন, দেশের মানুষ তথ্যপ্রযুক্তির সুফল পাওয়ায় দেশে প্রযুক্তির ব্যবহার বহুগুন বেড়েছে। শিক্ষা খাতে তথ্যপ্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে নানা ভবিষ্যত পরিকল্পনার কথাও জানান প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা।  

প্রযুক্তির সুবিধা নিশ্চিত করে দেশের মানুষের জন্য নতুন দিগন্ত উন্মোচনের ঘোষণাও দেন সজীব ওয়াজেদ জয়। কনফারেন্সে ভুটান, মালদ্বীপ, কম্বোডিয়াসহ পাঁচ দেশের মন্ত্রী ও  সাত দেশের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।
 

এই বিভাগের আরো খবর

কর্মস্থলে যৌন হেনস্তা রুখতে কড়া ব্যবস্থা গুগলের

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: কর্মস্থলে নারীদের যৌন হেনস্তা রুখতে এক সপ্তাহ আগেই প্রতিবাদে নেমেছিলেন গুগলে শীর্ষস্থানীয় ইঞ্জিনিয়ার থেকে প্রায় সব...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is