ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

2019-08-21

, ১৯ জিলহজ্জ ১৪৪০

ভোক্তা অধিকার আইনে ক্ষতিপূরণ মিলছে

প্রকাশিত: ০৪:২৫ , ২৭ মার্চ ২০১৭ আপডেট: ০৪:২৫ , ২৭ মার্চ ২০১৭

নিজস্ব প্রতিবেদক:
ভোক্তা অধিকার আইনে প্রতিকারের পাশাপাশি আর্থিক ক্ষতিপূরণও পাচ্ছেন ক্রেতারা। গত দুই বছরে পণ্য বা সেবা ক্রয়ে প্রতারিত হওয়ার প্রায় আড়াই হাজার অভিযোগের নিস্পত্তি করে ১৭ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ আদায় করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এর ২৫ শতাংশ সোয়া চার কোটি টাকা পেয়েছেন অভিযোগকারীরা।

পণ্য বা সেবা ক্রয়ে প্রায়ই প্রতারিত হওয়ার অভিযোগ পাওয়া যায়। তবে কত মানুষ প্রতারিত হচ্ছেন দেশে তার কোন পরিসংখ্যান বা গবেষণা নেই। তাৎক্ষণিক ভাবে অভিযোগ ও প্রতিকার পাওয়ার জন্যও এতদিন ছিল না সরকারের কোন সংস্থা বা কর্তৃপক্ষ। ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন-২০০৯ অনুযায়ী জাতীয় ভোক্তা-অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠার পর সে অবস্থার পরিবর্তন হচ্ছে। কোন ক্রেতা অভিযোগ করলে সাত দিনের মধ্যে তার নিস্পত্তি হচ্ছে। অভিযোগ প্রমাণিত হলে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে যে পরিমাণ অর্থ জরিমানা করা হচ্ছে তার ২৫ শতাংশ পাচ্ছেন ভোক্তা।

অনলাইনেই অভিযোগ করেই প্রতিকার পেতে পারেন ক্রেতারা। নির্ধারিত ফরমের সাথে পণ্য বা সেবা কেনার রশিদ, তা না পেলে বিক্রেতারা সাথে কথোপকথনের অডিও বা ভিডিও রেকর্ড জমা দিতে হবে। শুনানির সময় ক্রেতার উপস্থিত থাকাও বাধ্যতামূলক নয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের তথ্য মতে, এ পর্যন্ত জরিমানা করা হয়েছে প্রায় সোয়া ১৭ কোটি টাকা; যার ২৫ শতাংশ অর্থ পেয়েছেন অভিযোগকারীরা।

কনজিউমার এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ক্যাব সভাপতি গোলাম রহমান মনে করেন, প্রতারিত ভোক্তার সংখ্যা অনেক। সচেতনতার অভাবে সবাই অভিযোগ দায়ের করে না।

তিনি মনে করেন- ভেজালও ও নকল্য পণ্য প্রতিরোধে ভোক্তার সচেতনতাই বড় ভূমিকা রাখতে পারে।

এই বিভাগের আরো খবর

গোলাগুলিতে অটোচালক হত্যার প্রধান আসামির মৃত্যু

ময়মনসিংহ প্রতিনিধি: ময়মনসিংহের গফরগাঁওয়ের পাগলা এলাকায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশের সাথে গোলাগুলিতে এক অটোরিকশাচালক হত্যা মামলার প্রধান আসামি...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is