ঢাকা, সোমবার, ২২ অক্টোবর ২০১৮, ৭ কার্তিক ১৪২৫

2018-10-22

, ১১ সফর ১৪৪০

স্কুলে ইংরেজি ও বার্মিজ ভাষা 

থামেনি রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ 

প্রকাশিত: ১০:১৩ , ০৫ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০৯:০০ , ০৬ জানুয়ারী ২০১৮

কক্সবাজার প্রতিনিধি: রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন নিয়ে আলোচনা শুরু হলেও, থামেনি তাদের অনুপ্রবেশ। বুধবারও নতুন করে বাংলাদেশে ঢুকেছে কয়েকশ রোহিঙ্গা। কক্সবাজারের আশ্রয় নেয়া প্রায় ৭ লাখ রোহিঙ্গার অর্ধেকই শিশু। এদের জন্য তিন শতাধিক স্কুল চালু করেছে বিভিন্ন সংস্থা। সেখানে ইংরেজি ও বার্মিজ ভাষা শেখানো হচ্ছে। খোলা হয়েছে বিনোদন কেন্দ্রও।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গতবছর ২৫ আগস্ট নিরাপত্তা চৌকিতে সন্ত্রাসী হামলার জেরে অভিযান শুরু করে দেশটির সেনাবাহিনী। এরপর থেকে  নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে দলে দলে বাংলাদেশে আসে রোহিঙ্গারা। ইন্টারসেক্টর কো-অর্ডিনেশন গ্র“প- আইএসসিজি’র তথ্য অনুযায়ী এ সংখ্যা প্রায় ৭ লাখ।

আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের মধ্যে প্রায় অর্ধেকই শিশু। তাদের জন্য বিভিন্ন সংস্থার তত্ববধানে খোলা হয়েছে ৩ শতাধিক স্কুল। যেখানে, পুঁথিগত শিক্ষার পাশাপাশি ইংরেজি ও বার্মিজ ভাষা শেখানো হচ্ছে। 

এছাড়াও, শিশুদের জন্য ইউনিসেফসহ বিভিন্ন সংস্থার পক্ষ থেকে খোলা হয়েছে ১শ’ ২০টি বিনোদন কেন্দ্র।

রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে ফেরত পাঠানো প্রক্রিয়ার পাশাপাশি তাদের মানসিক সুস্থতার জন্য স্কুল ও বিনোদন কেন্দ্র চালু করা হয়েছে বলে জানান কক্সবাজার জেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা এমরান খান।

এদিকে, ডিসেম্বর পর্যন্ত ৯ লাখ ৩৫ হাজার ৭ শত ৫৮ জনের বায়োসেট্রিক নিবন্ধন শেষ হয়েছে।  


 

এই বিভাগের আরো খবর

ঝালকাঠির আটঘরে জমে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় নৌকারহাট

ঝালকাঠি প্রতিনিধি: বর্ষা মৌসুমে ঝালকাঠি ও পিরোজপুর জেলার সীমান্তবর্তী আটঘরে জমে উঠেছে দক্ষিণাঞ্চলের সবচেয়ে বড় নৌকারহাট। স্থানীয়ভাবে...

গ্যাস বেলুনে হিলিয়ামের পরিবর্তে ব্যবহার হচ্ছে হাইড্রোজেন গ্যাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিপজ্জনক ও বিস্ফোরক হাইড্রোজেন গ্যাস দিয়ে বেলুন ফুলিয়ে উড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। নানা উৎসবে শিশুদের হাতে হাতে...

তিনমাসের মধ্যেই কাজ শুরু

ঢাকার নদী-খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার ঢাকার আশপাশের নদী ও খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার একটি...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is