ঢাকা, শুক্রবার, ১৯ জানুয়ারী ২০১৮, ৬ মাঘ ১৪২৪, ২ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
ইজতেমার দ্বিতীয় পর্ব, জুমার নামাজে লাখো মুসল্লি ৭৫ উর্ধ্ব প্রবীণ কারাবন্দিদের মুক্ত করার উদ্যোগ সংস্কার হয়নি চট্টগ্রাম মহানগরীর ক্ষতিগ্রস্ত সড়ক সরকারের কারণেই ডিএনসিসি নির্বাচন ভণ্ডুল: বিএনপি এক জঙ্গি চট্টগ্রামের নাফিস তরুণদের অগ্রণী ভূমিকা পালনের আহ্বান স্পিকারের ফরিদপুরে কাভার্ডভ্যানের সাথে সংঘর্ষে মোটরসাইকেলের দু’আরোহী নিহত  ‘ফ্রিডারিকে’ তাণ্ডবে বিপর্যস্ত উত্তর ইউরোপ রংপুরে দগ্ধ আরো দু’জনের মৃত্যু  অস্থির সবজির বাজার, ঝাঁঝ কমেছে পেঁয়াজের স্প্যানিশ কোপা ডেল’রে ফুটবলে রিয়াল মাদ্রিদের জয়  খালেদা মামলার কার্যক্রম ব্যাহত করেছেন: হাছান মাহমুদ শ্রীলংকাকে রেকর্ড ব্যবধানে হারিয়ে ফাইনালে বাংলাদেশ ঢাকা আঞ্চলিক গণিত উৎসব অনুষ্ঠিত উখিয়া ক্যাম্পে বন্য হাতির আক্রমণে রোহিঙ্গার মৃত্যু মজুরি বোর্ড গঠনকে ইতিবাচক দেখছেন পোশাক শ্রমিকরা টঙ্গীতে জোড়া খুনের ঘটনায় ৫ জন গ্রেফতার ডিসেম্বরের মধ্যে পদ্মা সেতু নির্মাণের চেষ্টা চলছে অসুস্থ আইভী ল্যাব এইডে ভর্তি অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হলেন ১৫৫ জন

দিনাজপুর ট্রাজেডি আজ

মাইন বিস্ফোরণে ঝরে যায় পাঁচ শতাধিক বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রাণ 

প্রকাশিত: ০৯:২১ , ০৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ১০:০৩ , ০৬ জানুয়ারী ২০১৮

দিনাজপুর প্রতিনিধি: স্বাধীনতাত্তোর বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধ সংশ্লিষ্ট সবচেয়ে বড় বেদনাদায়ক ঘটনা দিনাজপুর ট্রাজেডি। ১৯৭২ সালের ৬ জানুয়ারি জেলার মহারাজা গিরিজানাথ হাইস্কুলে মুক্তিযোদ্ধাদের ট্রানজিট ক্যাম্পে মাইন বিস্ফোরণে একসাথে ঝরে যায় পাঁচ শতাধিক বীর মুক্তিযোদ্ধার প্রাণ। আহত হন অনেকে। তবে দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো এসব শহীদদের স্মরণে আজো নির্মাণ হয়নি কোন স্মৃতিসৌধ। 

স্বাধীনতার পর দিনাজপুরের বালুবাড়ীর মহারাজা গিরিজানাথ হাইস্কুলে স্থাপন করা হয় মুক্তিযোদ্ধা ট্রানজিট ক্যাম্প। মুক্তিযোদ্ধাদের দায়িত্ব ছিল জেলার বিভিন্ন স্থানে পুঁতে রাখা বা ফেলে রাখা মাইন ও গোলাবারুদ উদ্ধার করে ওই ক্যাম্পে নিয়ে আসা। বাহাত্তরের ৬ জানুয়ারি ক্যাম্পটিতে ঘটে মর্মান্তিক এক দুর্ঘটনা। উদ্ধারকৃত মাইন ও গোলাবারুদ বাংকারে রাখার সময় হাত থেকে পড়ে একটি মাইন বিস্ফোরিত হয়। এতে বিস্ফোরণ ঘটে পুরো অস্ত্রভান্ডারে।

বিস্ফোরণের পর হতাহতদের উদ্ধারে অংশ নেয়া মুক্তিযোদ্ধা শফিকুল হক ছুটু  ও মোস্তাকিম আলী বলেন, ওই ঘটনায় নিহতের সঠিক সংখ্যা জানা না গেলেও তা পাঁচ শতাধিক হবে।

১৯৯৮ সালে তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকারের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দিনাজপুরের গিরিজানাথ হাইস্কুলে প্রাঙ্গনে শহীদদের স্মরণে স্মৃতিসৌধ নির্মাণের প্রতিশ্র“তি দেন। তবে আজও তা বাস্তবায়ন না হওয়ায়, ক্ষোভ প্রকাশ করেছে দিনাজপুরবাসী। জানালেন, লেখক ও সাহিত্যিক আজহারুল আজাদ জুয়েল।

এদিকে, প্রতি বছরের মতো এবারো বিভিন্ন কর্মসূচির মাধ্যমে ৬ জানুয়ারির ট্রাজেডির শহীদদের স্বরণ করছে শহীদ স্মৃতি পরিষদ। 


 

এই বিভাগের আরো খবর

প্রতিবছরই বাড়ছে রপ্তানির পরিমাণ

কাগজ রপ্তানি তিন হাজার কোটি টাকার 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি চারটি কাগজ কারখানার তিনটি বন্ধ, মাত্র একটি সচল। তবে বেসরকারি খাতে নব্বইটির বেশি কাগজ কারখানা উৎপাদনে রয়েছে।...

প্রায় দশ লাখ মানুষ জড়িত

সরকারি খাতে কাগজ শিল্পের দুর্দশা

নিজস্ব প্রতিবেদক: কাগজের উদ্ভাবন মানব সভ্যতা বিকাশের পথে একটি মাইলফলক ঘটনা। দু’শ খ্রিস্টাব্দেরও আগে এই আবিস্কারের কৃতিত্ব চীনের।...

ব্যাংক ঋণ, প্রশিক্ষণ ও পৃষ্ঠপোষকতা দরকার

দক্ষ কারিগরের অভাবে শতরঞ্জির উৎপাদন ব্যাহত

নিজস্ব প্রতিবেদক: একসময় বিলুপ্তির পথে যাওয়া ঐতিহ্যবাহী শতরঞ্জির ব্যবহার বিগত এক দশকে বেড়েছে অনেক । দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিক্রি হচ্ছে...

শতরঞ্জির ব্যবহার বেড়েছে, আধুনিকায়নে এসেছে উন্নয়ন সংস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদক: প্রাচীন ঐতিহ্য শতরঞ্জি একবার উনিশ'শ সাতচল্লিশে ভারত ভাগের সময়, আরেকবার একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে বড় বিপর্যয়ের মুখে পড়ে।...

এগিয়ে আসছে নতুন উদ্যোক্তা

প্রাচীন ও ঐতিহ্যবাহী শতরঞ্জি শিল্পের সুদিন

নিজস্ব প্রতিবেদক: এই জনপদের কারুশিল্পের ঐতিহ্যের একটি নিদর্শন শতরঞ্জি। প্রায় বিলুপ্তির পথ থেকে ফিরেছে নতুন জীবন-যৌবনে। রং ছড়াচ্ছে দেশের...

পুনঃনির্মাণের উদ্যোগ নিতে দাবি 

চট্টগ্রামে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য ভেঙ্গে ফেলায় ক্ষোভ

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি: বন্দরনগরীর ঐতিহ্যবাহী জহুর হকার মার্কেটের প্রবেশমুখে জাতির জনক এবং চট্টগ্রামের দুই অবিসংবাদিত নেতা প্রয়াত জহুর...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is