ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ জুলাই ২০১৮, ৪ শ্রাবণ ১৪২৫

2018-07-18

, ৫ জিলকদ্দ ১৪৩৯

পরিবেশ ও স্বাস্থ্যের জন্যে ক্ষতিকর 

পলিথিনের জায়গায় টিস্যু ব্যাগ!

প্রকাশিত: ১০:৫৬ , ০৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ১০:৫৬ , ০৬ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: পলিথিনের জায়গা দখল করেছে নতুন এক ধরনের টিস্যু ব্যাগ। ডিপার্টমেন্টাল স্টোর, কাপড়ের দোকান, ফ্যাশন হাউস থেকে শুরু করে প্রতিদিনের কেনাকাটায় ব্যাপকভাবে ব্যবহার হচ্ছে এই ব্যাগ। বিশেষজ্ঞরা বলছেন- পলিথিনের মতই এই টিস্যু ব্যাগ পরিবেশ ও মানবস্বাস্থ্যের জন্যে সমান ক্ষতিকর। 

ফুটপাত থেকে শুরু করে বড় বড় বিপণি বিতানে কেনাকাটায় দেখা যাচ্ছে বাহারি রঙ ও ডিজাইনের সুদৃশ্য এক ধরণের ব্যাগ। টিস্যু ব্যাগ বা চায়না ব্যাগ নামে পরিচিত এই ব্যাগ রাসায়নিক পলিমার যৌগ দিয়ে তৈরি। বুয়েটের কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের গবেষণায় এ ব্যাগে এমন কিছু উপাদান পাওয়া গেছে যা মানবদেহ ও পরিবেশের ক্ষতির অন্যতম কারণ।  জানালেন, বুয়েটের কেমিকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক শোয়েব আহমেদ। 

খোঁজ নিয়ে জানা যায়- ছোট বড় প্রায় আশিটি কারখানায় প্রতিদিন উৎপাদন হচ্ছে ত্রিশ লাখের বেশি টিস্যু ব্যাগ। জেনে শুনে অনেকেই ব্যবহার করছেন এই ওভেন ব্যাগ। 

রাজধানীর নিউ মার্কেট, মৌচাক, বাংলামোটরে কেনাকাটা করতে আসা প্রতি দশ জনের মধ্যে আট জনের হাতেই এ ধরণের ব্যাগ দেখা গেছে। দেশী নামী-দামি প্রতিষ্ঠানগুলোও পরিবেশের জন্য ক্ষতিকর এ ব্যাগ ব্যবহার করেছে। 

পাঁচ বছর ধরে এ ব্যাগ পুরো বাজারে সয়লাব হলেও নির্বিকার প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদপ্তর।

টিস্যু ব্যাগের উৎপাদন ও ব্যবহার রোধে এর কাঁচামাল আমদানি বন্ধে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার  আহ্বান জানান পরিবেশবিদরা। 

অপচনশীল এ ব্যাগ আগুনে পুড়লে বিষাক্ত ড্রাই অক্সিন তৈরি হয়। এ ধোঁয়া মানুষের শরীরে প্রবেশ করলে ফুসফুসের ক্যান্সার, হার্টের ব্লকসহ মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। 

এই বিভাগের আরো খবর

গ্যাস বেলুনে হিলিয়ামের পরিবর্তে ব্যবহার হচ্ছে হাইড্রোজেন গ্যাস

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিপজ্জনক ও বিস্ফোরক হাইড্রোজেন গ্যাস দিয়ে বেলুন ফুলিয়ে উড়ানো হচ্ছে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে। নানা উৎসবে শিশুদের হাতে হাতে...

তিনমাসের মধ্যেই কাজ শুরু

ঢাকার নদী-খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার ঢাকার আশপাশের নদী ও খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার একটি...

পরিবেশ বান্ধব করার তাগিদ

কাগজ শিল্পে আসছে নতুন নতুন প্রকল্প 

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিক্রির পরিমাণ হিসেবে দেশে প্রতিদিনের কাগজের বাজার প্রায় চার হাজার মেট্রিক টনের। টাকার অংকে যার পরিমাণ প্রায় আটাশ কোটি...

প্রতিবছরই বাড়ছে রপ্তানির পরিমাণ

কাগজ রপ্তানি তিন হাজার কোটি টাকার 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি চারটি কাগজ কারখানার তিনটি বন্ধ, মাত্র একটি সচল। তবে বেসরকারি খাতে নব্বইটির বেশি কাগজ কারখানা উৎপাদনে রয়েছে।...

প্রায় দশ লাখ মানুষ জড়িত

সরকারি খাতে কাগজ শিল্পের দুর্দশা

নিজস্ব প্রতিবেদক: কাগজের উদ্ভাবন মানব সভ্যতা বিকাশের পথে একটি মাইলফলক ঘটনা। দু’শ খ্রিস্টাব্দেরও আগে এই আবিস্কারের কৃতিত্ব চীনের।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is