ঢাকা, সোমবার, ২২ জানুয়ারী ২০১৮, ৯ মাঘ ১৪২৪, ৫ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ

ইউনাইটেড হাসপাতালের এমডির বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

প্রকাশিত: ০৪:০৬ , ১১ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০৪:০৬ , ১১ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: ইউনাইটেড হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ফরিদুর রহমান খানসহ দুইজনের বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর গুলশান থানায় দুদকের উপপরিচালক মাহাবুবুর রহমান বাদি হয়ে হোল্ডিং-করবাবদ সাড়ে ২১ কোটি টাকা আত্মসাতের দায়ে মামলাটি দায়ের করেন।

মামলায় অপর আসামি হলেন অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রাক্তন কমিশনার মিসেস রহিমা বেগম।

মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, অনুসন্ধান টিম অনুসন্ধানকালে প্রাপ্ত রেকর্ডপত্র অনুসারে ২০০৬ সালের ২৪ আগস্টে গুলশান-২  আবাসিক এলাকায় (প্লট নং-১৫, রোড নং-৭১)  ৮ তলা ভবনের নির্মাণ কাজ সমাপ্ত হয়। কিন্তু ভবনটিতে কন্টিনেন্টাল হাসপাতাল নামে কার্যক্রম শুরু হয়। পরবর্তীতে ২০০৭ সালে মালিকানা ও নাম পরিবর্তন হয়ে ইউনাইটেড হাসপাতাল লিমিটেডের কার্যক্রম শুরু হয়।

দুদকের অনুসন্ধানে দেখা যায়, ডিসিসির প্রাক্তন কমিশনার রহিমা বেগম ও ইউনাইটেড হাসপাতালের এমডি ফরিদুর রহমান খান পরস্পর যোগসাজশে ক্ষমতার অপব্যবহার এবং অন্যায়ভাবে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু থেকে ২০১১ সালের ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত ঢাকা সিটি করপোরেশন কর্তৃক নির্ধারিত হোল্ডিং ট্যাক্স তথা সরকারি রাজস্ব বাবদ মোট ২১ কোটি ৪৪ লাখ ২৬ হাজার ৯৯৩ টাকা পরিশোধ না করে নিজেরা অন্যায়ভাবে লাভবান হয়েছেন।  যা দুদক আইনের দণ্ডবিধির ৪০৯/১০৯ ধারা এবং ১৯৪৭ সনের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় দণ্ডনীয় অপরাধ।

২০১২ সালের শেষের দিকে অনুসন্ধান শুরু করেছিল দুদক। তদন্তকালে বর্ণিত ঘটনার সাথে অন্য কারো সংশ্লিষ্টতা ও অন্য কোনো তথ্য পাওয়া গেলে তা আমলে নেওয়া হবে বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

বিরোধী দলের নেতাদের জেলে রেখে নির্বাচন হবেনা : ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক : বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, বিরোধী রাজনৈতিক দলের নেতাদের কারামুক্তি দিয়ে সবার জন্য সমান সুযোগ...

আইভীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হওয়ায় আজ রোববার তাঁকে করোনারি কেয়ার ইউনিট...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is