ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫

2018-10-16

, ৫ সফর ১৪৪০

পর্ন তারকার মুখ বন্ধে ঘুষ দেন ট্রাম্প

প্রকাশিত: ০২:০২ , ১৩ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০২:০৪ , ১৩ জানুয়ারী ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারণার সময় এক পর্ন তারকার মুখ বন্ধ রাখতে ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার ঘুষ দেওয়া হয়েছিল। স্টেফেনি ক্লিফোর্ড নামের ওই নারীকে ট্রাম্পের আইনজীবী মাইকেল কোহেন এ অর্থ দিয়েছিলেন। ওই বছরের ডিসেম্বরে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে জয়ী হয়ে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট হন বিতর্কিত ধনকুবের ট্রাম্প। শুক্রবার ওয়াশিংটন পোস্ট এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তৃতীয় স্ত্রী হিসেবে মেলানিয়াকে বিয়ে করার এক বছর পর ২০০৬ সালে ক্যালিফোর্নিয়ার লেক তাহোয়িতে স্টেফেনির সঙ্গে দেখা হয়েছিল ট্রাম্পের। ২০১৬ সালের নির্বাচনের আগে ট্রাম্পের সঙ্গে তার সম্পর্কের বিষয়ে এবিসি চ্যানেলের ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ নামের একটি অনুষ্ঠানের কথা বলার জন্য আলোচনা করেছিলেন স্টেফেনি। পরে তার মুখ বন্ধ রাখতে লস অ্যাঞ্জেলসের সিটি ন্যাশনাল ব্যাংকে অ্যাকাউন্ট রয়েছে এমন একজন মক্কেলের মাধ্যমে তাকে ১ লাখ ৩০ হাজার মার্কিন ডলার দেওয়া হয়েছিল। তবে অর্থ দেওয়ার বিষটি স্বাধীন সূত্র থেকে নিশ্চিত করতে পারেনি ওয়াশিংটন পোস্ট।

স্টেফেনিকে দেওয়ার জন্য ট্রাম্পের কাছ থেকে অর্থ পাওয়ার বিষয়টি তার আইনজীবী কোহেন অস্বীকার করেছেন। তিনি এক বিবৃতিতে বলেছেন,‘ মুখবন্ধ রাখতে ট্রাম্পের কাছ থেকে অর্থ পাওয়ার বিষয়টি পুরোপুরি মিথ্যা।’

নিউ ইয়র্ক টাইমস বলছে, স্টেফানি তার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্কের কথা যেন প্রকাশ্যে না আনেন, তা বন্ধ করতে এই অর্থ দেওয়া হয়েছিল বলে নিশ্চিত হয়েছে তারা।

ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ট্রাম্প ও ক্লিফোর্ড ২০০৬ সালে লেইক তাহোয় একটি গলফ টুর্নামেন্টে এক হয়েছিলেন, তখনই তাদের মধ্যে যৌন সংসর্গ ঘটেছিল। স্টরমি ডেনিয়েলস নামে পর্ন চরিত্রে অভিনয় করে আসা ক্লিফোর্ডও এখন দাবি করেছেন, ওই ধরনের ঘটনা ঘটেনি।

তবে নিউ ইয়র্ক টাইমস অনলাইন সাময়িকী স্লেট-এর প্রধান সম্পাদকের বরাতে দাবি করেছে, ওই ঘটনা আসলেই ঘটেছিল। ২০১৬ সালের অগাস্ট থেকে অক্টোবরের মধ্যে স্লেটের সঙ্গে ধারাবাহিক সাক্ষাৎকারে ক্লিফোর্ড তার সঙ্গে ট্রাম্পের যৌন সম্পর্কের কথা স্বীকার করেছিলেন বলে দাবি সাময়িকীটির সম্পাদক জ্যাকব ওয়েসবার্গের।

তিনি নিউ ইয়র্ক টাইমসকে বলেন, ক্লিফোর্ড তখন বলেছিলেন যে তার সঙ্গে ট্রাম্পের সম্পর্কের বিষয়ে মুখ বন্ধ রাখতে কোহেন ১ লাখ ৩০ হাজার ডলার দেওয়ার প্রতিশ্র“তি দিয়েছিলেন। তবে ওই অর্থ পাওয়ায় দেরি হওয়ায় সম্পর্কের কথা ফাঁস করে দেওয়ার কথাও ভাবছিলেন ক্লিফোর্ড। নিজের বক্তব্যের সত্যতার প্রমাণ হিসেবে ক্লিফোর্ড্রের সঙ্গে আদান-প্রদান করা মেসেজও দেখিয়েছেন ওয়েসবার্গ।

তিনি বলেন, মেসেজ চালাচালির এক পর্যায়ে কথা বন্ধ করে দিয়েছিলেন ক্লিফোর্ড, ফলে তার অনুমতি ছাড়া বিষয়টি নিয়ে সংবাদ প্রকাশ করেননি তারা। মনে করা হচ্ছে, ওই সময়ই অর্থ পেয়ে যাওয়ায় মুখ বন্ধ করে ফেলেন ক্লিফোর্ড।

ঠিক ওই সময়ে এবিসি টিভিতে ‘গুড মর্নিং আমেরিকা’ অনুষ্ঠানেও ট্রাম্পের সঙ্গে সম্পর্ক নিয়ে মুখ খুলতে প্রস্তুতি নিয়েছিলেন ক্লিফোর্ড; কিন্তু সমঝোতা হয়ে যাওয়ায় তা আর ঘটেনি।

এই বিভাগের আরো খবর

কিশোরগঞ্জে জোড়াখুন মামলায় চারজনের মৃত্যুদণ্ড; ২১ জনের যাবজ্জীবন 

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি: কিশোরগঞ্জে ছয় বছর আগের এক জোড়া খুনের মামলায় চারজনকে মৃত্যুদণ্ড এবং ২১ জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। জেলার...

খাশোগজির ঘটনায় পেশাদার খুনীরা জড়িত থাকতে পারে: ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেক্স: তুরস্কে সৌদি সাংবাদিক জামাল খাশোগজির অন্তর্ধানের ঘটনায় পেশাদার খুনীরা জড়িত থাকতে পারে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন...

৭ বছরে সিরিয়া গৃহযুদ্ধে সাড়ে ৩ লাখ মানুষের মৃত্যু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সিরিয়ায় গত ৭ বছরের গৃহযুদ্ধে প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত সাড়ে ৩ লাখ মানুষ। বাস্তুহারা হয়েছে ১০ লাখের ওপর। বিবিসি জানায়, সিরীয়...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is