ঢাকা, রবিবার, ২১ জানুয়ারী ২০১৮, ৮ মাঘ ১৪২৪, ৪ জুমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯
শিরোনামঃ
আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো দ্বিতীয় পর্বের আয়োজন আইন সংশোধন করে পাহাড়িদের জমির মালিকানা বুঝিয়ে দেয়া হবে- প্রধানমন্ত্রী ন্যাম ভবনে এমপি লুৎফুল্লাহর ছেলের ঝুলন্ত লাশ বদলে যাচ্ছে পদ্মা পাড়ের আর্থসামাজিক চিত্র এ’বছর হজে যেতে পারবেন ১ লাখ ২৭ হাজার ১৯৮ জন সংগঠন অনুযায়ী জঙ্গিদের আলাদা সেলে রাখা হচ্ছে- কারা মহাপরিদর্শক ঢাবি’র রেজিস্টার্ড গ্রাজুয়েট নির্বাচনে গণতান্ত্রিক ঐক্য পরিষদের জয় আইভীর শারীরিক অবস্থার উন্নতি জামিন পেলেন আপন জুয়েলার্সের মালিক দিলদার আহমেদ ফাইনালে যেতে জিততেই হবে শ্রীলংকাকে ভৈরবে আমন ধানের বাম্পার ফলন দিল্লিতে বাজির গুদামে আগ্নিকাণ্ডে নিহত ১৭ পোঁড়া বেগুনের অনেক গুণ সরকারি উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয়ের স্বচ্ছতা দেখবে দুদক উপকূলে কৃষি উন্নয়নে ব্লুগোল্ড প্রকল্প জাতিসংঘের দূতের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন মাশরাফি শাইনপুকুরে, সাকিব মোহামেডানে, তামিম কলাবাগানে নড়াইলে দু’গ্রুপের সংঘর্ষে ১২ জন গুলিবিদ্ধ  ট্রাম্পের ক্ষমতা গ্রহণের এক বছর যশোরে গুলিবিদ্ধ চার মৃতদেহ উদ্ধার

নড়াইলে হত্যা মামলায় ৯ জনের মৃত্যুদণ্ড

প্রকাশিত: ০৫:০৫ , ১৪ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০৫:৫৮ , ১৪ জানুয়ারী ২০১৮

খুলনা প্রতিনিধি: নড়াইলে ভদ্রভিলা ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রভাষ রায় হত্যা মামলায় নয়জনকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আজ রোববার দুপুর ১টা ২০মিনিটে খুলনা বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এম এ বারী হাওলাদার এই আদেশ দেন।

মৃত্যুদণ্ড প্রাপ্তরা হলো মো. শাহিদুর রহমান, মো. ইলিয়াস মিনা, মো. আশিকুর মিনা, রাসেল মিনা, এনায়েত মোল্লা, ইয়াসিন মোল্লা, মামুন মিনা, বাসার মোল্লা ও রবিউল মোল্লা। সবার বাড়ি নড়াইলে।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গত বছরের ১ ফেব্র“য়ারি রাত আটটার দিকে ভদ্রভিলা ইউনিয়নের মিরাপাড়া বাজারে প্রভাষ রায় ছুরিকাঘাতে জখম হন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে প্রথমে নড়াইল সদর হাসপাতালে এবং অবস্থার অবনতি হলে যশোরে স্থানান্তর করা হয়। পরে রাতে যশোর জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আব্দুর রশিদ তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভদ্রবিলা ইউপি চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা শহিদুর রহমান ও তার লোকজন প্রভাষ রায়কে হত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠে। পরবর্তীতে ৩ ফেব্র“য়ারি  সন্ধ্যায় নিহতের স্ত্রী টুটুল রানী বাদী হয়ে নড়াইল সদর থানায় ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুর রহমান, ছেলে আশিক, ভাতিজা রাসেল মিনাসহ নয়জনের নাম উল্লেখ এবং সাতজন অজ্ঞাতের নামে মামলা করেন। হত্যাকাণ্ডের পর ওই রাতেই শহিদুর রহমান ও ছেলে আশিকসহ পাঁচজনকে আটক করে পুলিশ।

এই বিভাগের আরো খবর

যশোর রোডের শতবর্ষী গাছ কাটার ওপর ৬ মাসের স্থিতাবস্থা আদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ যশোর থেকে বেনাপোল পর্যন্ত রোডকে চার লেনে উন্নীত করতে গিয়ে সেখানে থাকা শতবর্ষী গাছ কাটার ওপর ছয় মাসের জন্য স্থিতাবস্থার...

নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ও দলীয় ব্যবস্থা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ নারায়ণগঞ্জে সংসদ সদস্য শামীম ওসমান ও সিটি মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে...

উত্তরা মেডিকেলে ৫৭ শিক্ষার্থীর শিক্ষা কার্যক্রমে বাধা নেই

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজের ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষে সাধারণ কোটায় ভর্তি হওয়া ৫৭ শিক্ষার্থীর একাডেমিক কার্যক্রম...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is