ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০ ফাল্গুন ১৪২৪

2018-02-21

, ৫ জমাদিউল সানি ১৪৩৯

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন সমাপ্ত হবে দুই বছরের মধ্যে

প্রকাশিত: ১১:১৮ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০৬:৩৩ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া সমাপ্ত হবে দুই বছরের মধ্যে। এই লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারনে ৩০ দফা ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্টে একমত হয়েছে বাংলাদেশ ও মিয়ানমার। সই করেছে টার্মস অব রেফারেন্সের সম্মতিপত্রে। সকালে, মিয়ানমারের নেপিদোতে জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্র“পের বৈঠক শেষে সম্মতিপত্রে সই করে দুদেশের পররাষ্ট্র সচিব। আগামী মাসে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু হবে বলেও আশাবাদী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম।
 
বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে ফেরত পাঠাতে সোমবার মিয়ানমারের নেপিদোতে শুরু হয় বাংলাদেশ-মিয়ানমার জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্র“পের প্রথম আনুষ্ঠানিক বৈঠক। দুই দিনের বৈঠক শেষে মঙ্গলবার, রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ের কর্মপরিকল্পনা নির্ধারণে ৩০দফা ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্টে সম্মত হয় বাংলাদেশ ও মিয়ানমার। সে লক্ষ্যে টার্মস অব রেফারেন্সের সম্মতিপত্রে সই করেন দু’দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্র“পের প্রধান।

সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, রোহিঙ্গা যাচাইবাছাই ও প্রত্যাবাসনের জন্য মাঠপর্যায়ে গঠন করা হবে দুটি কারিগরি ওয়ার্কিং গ্র“প। প্রত্যাবাসনের সময় বাংলাদেশ সীমান্তে ৫টি ট্রানজিট ক্যাম্প এবং মিয়ানমার সীমান্তে ২টি রিসিপশন ক্যাম্প তৈরি করা হবে। সেখান থেকে সাময়িক সময়ের জন্য মিয়ানমারের সীমান্তবর্তী এলাকা ল ফো খুং-এ স্থানান্তর করা হবে রোহিঙ্গাদের। প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ার সময়সীমা এবং প্রতি ধাপে কত রোহিঙ্গা ফেরত পাঠানো হবে তার সিদ্ধান্তও নেয়া হয়েছে ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্টে। প্রাথমিক ধাপে যাচাইবাছাইয়ের জন্য বাংলাদেশ থেকে দেড় লাখ রোহিঙ্গার তালিকা মিয়ানমারের কাছে হস্তান্তর করেছে বাংলাদেশ।

গেলো বছরের ২৫ আগস্টের পর বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া সব রোহিঙ্গাকেই ফেরত নিতে সম্মত হয়েছে মিয়ানমার। সেলক্ষ্যে, আগামী ফেব্র“য়ারি নাগাদ প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করার বিষয়ে আশাবাদী পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী।

প্রতি সপ্তাহে দেড় হাজার রোহিঙ্গা ফেরত পাঠানোর মাধ্যমে আগামী দুই বছরের মধ্যে প্রত্যাবাসন শেষ করার বিষয়ে সম্মত হয়েছে দু’ দেশের জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্র“প।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ইনুর প্রশ্ন, বিএনপি’র সাজা হয়নি, নির্বাচনে আসবে না কেন?

নীলফামারী প্রতিনিধি: জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু প্রশ্ন রেখেছেন, খালেদা জিয়ার সাজা হয়েছে,বিএনপির সাজা হয়নি। তাহলে তারা কেন...

সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে- প্রধানমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীসহ সকল মাতৃভাষা সংরক্ষণের ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। ভাষার চর্চা ও ব্যবহার...

বাংলাকে জাতিসংঘের দাপ্তরিক ভাষা করার দাবিও বিদেশিদেরও

নিজস্ব প্রতিবেদক: মাতৃভাষার জন্য জীবন দেয়ার নজির খুব নগণ্য হওয়ায় বাংলাকে জাতিসংঘের সপ্তম দাপ্তরিক ভাষা করার দাবিও জানাচ্ছেন বিদেশিরাও।...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is