ঢাকা, শুক্রবার, ২৫ মে ২০১৮, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

2018-05-24

, ৯ রমজান ১৪৩৯

শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের জন্য বাল্যবিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ

প্রকাশিত: ০১:০৭ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০১:৩৬ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: শিক্ষা ও নারীর স্বাস্থ্য-এই দুইয়ের জন্যই বাল্যবিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ। যা গোটা জীবনে বিপদ আনতে পারে। বাল্যবিয়ের শিকার হয়ে স্কুল থেকে ঝরে পড়ে অনেক শিক্ষার্থী। উপবৃত্তির ব্যবস্থা করেও বন্ধ হচ্ছেনা এ প্রবণতা। আইন কার্যকর না হলেও অনেক এলাকায় শিক্ষার্থীরাই ব্যতিক্রমী উদ্যোগ নিয়ে বন্ধ করছেন বাল্যবিয়ে। নারী অধিকার নিয়ে আন্দোলনকারীদের মতে, বাল্যবিয়ের কুফল সম্পর্কে আরও সচেতনতা বাড়াতে হবে অভিভাবকদের মাঝে।

২০১৭ সালের জেএসসি- জেডিসি পরীক্ষায় বরগুনার পাথরঘাটা উপজেলার তিনটি স্কুলের ৪৫জন ছাত্রী অনুপস্থিত ছিল। পরে জানা যায়, তারা প্রত্যেকেই বাল্যবিয়ের শিকার। শিক্ষক অভিভাবকরা বলছেন, সামাজিক পরিস্থিতির কারণে ঝরে পড়ছে কিশোরীরা।

ইউনিসেফের তথ্য মতে, গ্রামেএ হার ৭১ শতাংশ আর শহরে ৫৪ শতাংশ। ছাত্রীরা অনেকেই পরিবারের চাপের মুখে বিয়ে করে। বাল্যবিয়ে দিতে নানা অপকৌশল নেয় পরিবারগুলো, বয়স বেশি দেখিয়ে ভুয়া জন্মনিবন্ধন করে, এফিডেভিটে মিথ্যা বয়স লিখে, জনপ্রতিনিধিদের সহযোগিতা দেখা যায় এসবে। অনেকে অন্য এলাকায় নিয়ে বিয়ে দেন, যেখানে কেউ তাদের চিনবেনা।

বিয়ের পর পড়াশোনা চালিয়ে যেতে পারে এমন মেয়ে খুব কম। পারিবারিক সহিংসতার শিকার হয় বহু মেয়ে। স্বাস্থ্য ঝুঁকি বাড়ে।

শিশু বয়সে নিজের বিয়ে বন্ধ করে পড়াশোনা চালিয়ে যাওয়া এবং বাল্যবিয়ে বন্ধে সমবয়সীদের সংগঠিত করার এক দৃষ্টান্ত কিশোরী সাজেদা। এমন আরও কিছু উদাহরণ আছে যেখানে ব্যতিক্রমী ভূমিকা রাখছে সহপাঠী ও শিক্ষকরা।

বাল্যবিয়ে বিরোধী কঠোর অবস্থান নিয়ে কাজ করছেন বলে দাবি সাভার, ধামরাইয়ের স্থানীয় প্রশাসনের।

বাল্যবিয়ে বন্ধ না হওয়ার পেছনে আর্থসামাজিক কারণের পাশাপাশি অভিভাবকদের অসচেতনতা বড় কারণ বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

কন্যাশিশুর প্রতি বৈষম্যমূলক মানসিকতার পরিবর্তন এনে তার সব ধরনের অধিকার নিশ্চিত করতে বাবা মাকে আরও সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান তারা।

এই বিভাগের আরো খবর

নিরাপত্তা সংস্থার জন্য নেই নীতিমালা, অপরাধে জড়ানোর অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত তিন দশক ধরে বাণিজ্যিক নিরাপত্তা সংস্থাগুলো কাজ করলেও তাদের ব্যবসা পরিচালনার জন্য কোনো নীতিমালা তৈরি হয়নি আজও।...

বেসরকারি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানে কাজ করছে ১০ লাখেরও বেশি মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে মাত্র তিন দশকে ৭’শর বেশী বাণিজ্যিক নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান সরকারি, বেসরকারি স্থাপনায় এবং বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ...

সফটওয়্যার খাতে রয়েছে দক্ষ জনশক্তি আর অবকাঠামো সুবিধার অভাব

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশে বিদেশে প্রতি বছরই সফটওয়্যারের বাজার সম্প্রসারণ হচ্ছে ত্রিশ থেকে চল্লি¬শ শতাংশ। ফলে প্রচুর সম্ভাবনা এ খাতে থাকলেও...

সফটওয়্যার রপ্তানি আয় বেড়ে দাঁড়িয়েছে আটশ’ মিলিয়ন ডলারে

নিজস্ব প্রতিবেদক : দক্ষ জনশক্তি, অবকাঠামোগত সীমাবদ্ধতার মধ্যেও ২০০০ সালে সফটওয়্যার রপ্তানি আয় ছিল যেখানে দুই দশমিক আট মিলিয়ন ডলার, এ বছর তা...

সফটওয়্যার খাতে কর্মসংস্থান হয়েছে পাঁচ লাখ মানুষের

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের সফটওয়্যারের অভ্যন্তরীণ বাজার প্রায় এক বিলিয়ন ডলারের আর বৈশ্বিক বাজার পাঁচ শত বিলিয়ন ডলারের। প্রযুক্তি খাতে গত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is