ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৩ নভেম্বর ২০১৮, ২৯ কার্তিক ১৪২৫

2018-11-13

, ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

খালেদা আগামী প্রধানমন্ত্রীঃ মওদুদ

প্রকাশিত: ০২:৫৬ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০২:৫৬ , ১৬ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মামলা হওয়ায় তাঁর জনপ্রিয়তা বাড়বে ও তিনিই হবেন বাংলাদেশের আগামী প্রধানমন্ত্রী।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার পক্ষে আজ মঙ্গলবার যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে এ মন্তব্য করেন মওদুদ আহমেদ।

তিনি বলেন, ‘এটা আসলে কোনো মামলাই না। এ রকম মামলা বিভিন্ন দেশে রাজনৈতিক নেতাদের ঘায়েল করার জন্য করা হয়ে থাকে। এখানেও তা-ই হয়েছে। এতে আমাদের নেত্রীর কোনো ক্ষতি হবে না; বরং তাঁর জনপ্রিয়তা বাড়বে। তিনিই হবেন বাংলাদেশের আগামী প্রধানমন্ত্রী।’

বকশীবাজারে বিশেষ জজ আদালত-৫-এ মামলার দশম দিনের মতো যুক্তিতর্কের ওপর শুনানি দুপুর পর্যন্ত পর এখন মধ্যাহ্ন বিরতি শুরু হয়েছে। এরপর আবার শুনানি শুরু হবে।

বেলা ১১টা ৩৫ মিনিটে খালেদা জিয়া আজ আদালতে উপস্থিত হন। এর পাঁচ মিনিট পর কার্যক্রম শুরু করেন বিশেষ জজ আদালত-৫-এর বিচারক আখতারুজ্জামান।

যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ আরও বলেন, ‘দুর্নীতি দমন কমিশনের অধীনে মামলাটি করা হয়েছে। তবে এই মামলার প্রক্রিয়া, অনুসন্ধান ও তদন্তকাজে দুর্নীতি দমন কমিশনের আইন যথাযথভাবে অনুসরণ করা হয়নি। তাই এ মামলা চলারই কথা না।’

আদালতের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘এই সব বিবেচনায় আপনি খালেদা জিয়াকে নিঃশর্ত খালাস দেবেন বলে আশা করি।’
ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে খালেদার অব্যাহতির আবেদন নামঞ্জুর

খালেদা জিয়াকে ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার আবেদন জানিয়ে আসামিপক্ষের আরেক আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া আদালতকে বলেন, ব্যক্তিগত এবং পারিবারিক অসুবিধার কারণে খালেদা জিয়া আগামী দুদিন তাঁর ব্যক্তিগত উপস্থিতি থেকে অব্যাহতি চান। তিনি খালেদা জিয়ার স্থায়ী জামিনও প্রার্থনা করেন। তিনি বলেন, এর আগে আদালত খালেদা জিয়ার অস্থায়ী জামিন মঞ্জুর করেছিলেন। সে স্থলে স্থায়ী জামিনের আদেশ দেওয়া হোক।

ওই সময় এর বিরোধিতা করেন রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is