জনগণের আস্থা অর্জনে শতভাগ সফল নির্বাচন কমিশন: সিইসি

প্রকাশিত: ০৭:৫৯, ০৮ অক্টোবর ২০১৮

আপডেট: ০৭:৫৯, ০৮ অক্টোবর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের মাধ্যমে জনগণের আস্থা অর্জনে নির্বাচন কমিশন শতভাগ সফল হয়েছে বলে দাবি করেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদা। বৃহস্পতিবার ভোট শেষে বিকালে আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে সহকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে সাংবাদিকদের সামনে এসে এই প্রতিক্রিয়া জানান তিনি।
প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা জানান, কুমিল্লা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। কিছু জায়গায় অনিয়মের চেষ্টা হলেও তা কঠোরহাতে দমন করা হয়েছে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, আন্তরিকতা, নিষ্ঠা ও সততার সাথে নির্বাচন পরিচালনায় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ নির্বাচন কমিশন।
নূরুল হুদা বলেন, “সুষ্ঠু ভোটের মাধ্যমে সবার আস্থা অর্জনে শতভাগ সফল হয়েছি। আমরা দাবি করি, এ নির্বাচনে আমরা সফল ও সার্থক হয়েছি।”
সিইসি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর ইসির অধীনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি অংশগ্রহণে এটাই প্রথম নির্বাচন।
সিইসি বলেন, “রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হওয়ায় কুমিল্লার ভোটে ছিল সবার নজর। আমরাও শান্তিপূর্ণ, সবার কাছে গ্রহণযোগ্য করতে পদক্ষেপ নিয়েছি এবং সফলভাবে এ ভোট করতে পেরেছি।”
নতুন ইসি শুরু থেকে বলে আসছে, কাজের মাধ্যমে জনআস্থা অর্জন করতে চায় তারা। বিএনপি বলে আসছিল, কুমিল্লার ভোট ইসির কাছে অগ্নিপরীক্ষা। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বলছে,কঠিন পরীক্ষা।
এ বিষয়ে সিইসি সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, “আমরা আর পরীক্ষা দিতে চাই না। ছোটবেলা থেকে অনেক পরীক্ষা দিয়েছি। এখন পরীক্ষার বিষয় নয়, কাজ করার সময়। আমরা নিষ্ঠা, সততার সঙ্গে কাজ করতে আমরা প্রতিজ্ঞাবদ্ধ।”
নূরুল হুদা জানান, সুনামগঞ্জে সংসদ উপ-নির্বাচন পুরোপুরি শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হলেও কুমিল্লায় দু-একটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ঘটেছে। এ জন্যে দুটি কেন্দ্রে ভোট বন্ধ করা হয়েছে।
বিএনপির পক্ষ থেকে যেসব অভিযোগ করা হয়েছে তা মাঠ পর্যায়ে তদন্ত করে দেখা হয়েছে বলে জানান সিইসি।
তিনি বলেন, “ভোটে কারা প্রভাব খাটিয়েছে তার সুনির্দিষ্ট তথ্য আমাদের কাছে নেই। তবে যে দু’টি কেন্দ্রে অনিয়মের অপচেষ্টা চলেছে তা বন্ধ করে দিয়েছি। এছাড়া যেসব জায়গায় গোলযোগের চেষ্টা করেছে তা কয়েক মিনিটের মোকাবেলা করে তাদের ব্যর্থ করে দিয়েছি।”
বিএনপির পক্ষ থেকে ফ্যাক্স যোগে ভোটের দিনও সুনির্দিষ্ট কিছু অভিযোগ পাঠানো হয়েছে কমিশনে।
এবিষয়ে সিইসি বলেন, “অভিযোগগুলো পেয়ে সচিবের মাধ্যমে তা মনিটরিং করা হয়েছে। মাঠ পর্যায়ে খবর নেওয়া হয়েছে। অধিকাংশ অভিযোগ সঠিক নয়; কিছু বিষয়ে খতিয়ে দেখে ব্যবস্থা নিয়েছি। সেখানে ব্যাপক কিছু হয়নি,”
এক প্রশ্নের জবাবে কে এম নূরুল হুদা বলেন, “আস্থা অর্জনে শতভাগ সফল হয়েছি। আমরা দাবি করি, নির্বাচনে আমরা সফল ও সার্থক হয়েছি। আমরা বলব- আমাদের সময়ে যে কয়টি নির্বাচন হয়েছে সবগুলো সফলভাবে করতে পেরেছি।”
তিনি জানান, যারা বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির চেষ্টা করেছে তাদের কঠোরভাবে দমন করা হয়েছে। আগামীতেও এমন সুষ্ঠু নির্বাচন অব্যাহত থাকবে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

বিএনপির এমপি হারুনের ৫ বছরের কারাদণ্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির যুগ্ম...

বিস্তারিত
শামীম ও খালেদের বিরুদ্ধে দুদকের মামলা

নিজস্ব প্রতিবেদক: জ্ঞাত আয় বহির্ভূত...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *