ঢাকা, শুক্রবার, ২৬ এপ্রিল ২০১৯, ১৩ বৈশাখ ১৪২৬

2019-04-25

, ১৯ শাবান ১৪৪০

তিনমাসের মধ্যেই কাজ শুরু

ঢাকার নদী-খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ

প্রকাশিত: ০৮:২৮ , ২৬ জানুয়ারী ২০১৮ আপডেট: ০৮:২৯ , ২৬ জানুয়ারী ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: এবার ঢাকার আশপাশের নদী ও খাল দূষণমুক্ত ও নাব্যতা বৃদ্ধির উদ্যোগ নিয়েছে সরকার। এজন্য প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার একটি প্রকল্প চূড়ান্ত করা হয়েছে। আগামী দুই থেকে তিন মাসের মধ্যেই কাজ শুরু হবে বলে জানান বিআইডব্লিওটিএ’র চেয়ারম্যান। পরিকল্পনা বাস্তবায়ন হলে ঢাকার নদী এবং খালগুলো আবারো প্রাণ ফিরে পাবে বলে আশা করছে সংশ্লিষ্টরা। 

বুড়িগঙ্গার তীর ঘেঁষেই একদিন গড়ে উঠেছিল এই নগরী। এছাড়া ঢাকাকে ঘিরে রেখেছে শীতলক্ষ্যা, তুরাগ ও বালু নদী। একসময় এই নদীগুলোর অপার সৌন্দর্য কেবল মানুষকে মুগ্ধই করেনি, ছিল যাতায়াত ও পণ্য পরিবহনের প্রধান পথ। কিন্তু কালক্রমে দখল আর দূষণে হারিয়েছে ঐতিহ্য।

এই নদীগুলোকে দূষণ মুক্ত করতে ট্যানারি সরানোসহ বিভিন্ন সময় নানা পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার। তবুও দৃশ্যত তেমন কোন পরিবর্তন আসেনি। ঢাকার চারপাশের নদী ও খাল দূষণ মুক্ত ও নব্যতা বৃদ্ধি করতে স্থানীয় সরকার এবং নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয় গতবছর একটি উচ্চ পর্যায়ে কমিটি গঠন করে। কমিটি সমীক্ষা চালিয়ে ২৫ হাজার কোটি টাকা ব্যয়ে একটি মহা পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। শিগগিরি এই প্রকল্পের খসড়া অনুমোদনের জন্য উত্থাপন করা হবে বলে জানান বিআইডব্লিওটিএ’র চেয়ারম্যান কমোডর এম মোজাম্মেল হক। অনুমোদন হলে তিন মাসের মধ্যেই কাজ শুরু হবে, শেষ হতে ছয় থেকে সাত বছর সময় লাগবে বলে জানান তিনি।

ঢাকার দূষিত নি¯প্রাণ নদীগুলোতে আবারো স্বচ্ছ পানির প্রবাহ ফিরে আসবে বলে আশা করছে বিআইডাব্লিউটিএ।


 

এই বিভাগের আরো খবর

ক্রাইস্টচার্চে নিহত বাংলাদেশির সংখ্যা বাড়তে পারে: অনারারি কনসাল

নিজস্ব প্রতিবেদক: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন অকল্যান্ডে বাংলাদেশের অনারারি কনসাল শফিকুর রহমান ভুঁইয়া।...

আন্তর্জাতিক নারী দিবস আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: আজ ৮ মার্চ, আন্তর্জাতিক নারী দিবস। সারাবিশ্বের মতো বাংলাদেশেও দিবসটি উদযাপন করা হচ্ছে যথাযথ মর্যাদায়, নানা...

আইনের শাসন সূচকে ১১২তম বাংলাদেশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: বৈশ্বিক আইনের শাসন সূচকে ১২৬ দেশের মধ্যে ১১২তম অবস্থানে রয়েছে বাংলাদেশ। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক আন্তর্জাতিক সংস্থা দ্য...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is