ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮, ৬ ভাদ্র ১৪২৫

2018-08-20

, ৮ জিলহজ্জ ১৪৩৯

দুর্ঘটনায় আহতদের হাসপাতালে জরুরি সেবা দিতে হাই কোর্টের রুল

প্রকাশিত: ০৫:৫৫ , ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ আপডেট: ০৬:০৮ , ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: দুর্ঘটনায় আহত যে কোনো ব্যক্তিকে তাৎক্ষণিক জরুরি চিকিৎসা দিতে সব হাসপাতাল ও ক্লিনিককে নির্দেশনা দিতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রতি রুল জারি করেছে হাই কোর্ট। রাজধানীতে পৃথক দুটি ছিনতাইয়ের ঘটনায় দুই ব্যক্তির প্রাণহানির ঘটনায় দায়ের করা রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে আজ সোমবার রুলটি জারি করেন বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি মো. আতাউর রহমান খানের বেঞ্চ। 

গত ২৬ জানুয়ারি ভোরে সায়েদাবাদ এলাকায় ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে খুলনার ব্যবসায়ী মো. ইব্রাহিম আহত হলে নিজেই নিকটস্থ টিকাটুলির সালাহউদ্দিন হাসপাতালে যায। এসময় তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা না দিয়ে কর্তৃপক্ষ তাকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে যাওয়ার পরামর্শ দেন। পরে ঢাকা মেডিকেলে গেলেও বিনা চিকিৎসায় তার মৃত্যু হয়।

বরিশাল থেকে এসে ভোরে রাজধানীর ধানমণ্ডির সাত নম্বর রোডে মিরপুর সড়কের ক্রসিং স্বামীর হাত ধরে রাস্তা পার হচ্ছিলেন গ্রীন লাইফ হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতা কর্মী হেলেনা বেগম। রাস্তার মাঝামাঝি অংশে আসতেই ছিনতাইকারীরা চলন্ত প্রাইভেটকার থেকে হেলেনা বেগমের ভ্যানিটি ব্যাগ ধরে আচমকা হ্যাঁচকা টান দেয়। এতে হেলেনা বেগম ব্যাগসহ প্রাইভেট কারের সঙ্গে ঝুলে পড়েন। ওই অবস্থায় ছিনতাইকারীরা গাড়ির গতি বাড়িয়ে দিলে হেলেনা বেগম গাড়ির নিচে পড়ে যান। তখন তার মাথার উপর দিয়ে গাড়ি চালিয়ে চলে যায় ছিনতাইকারীরা। সঙ্গে সঙ্গে তার মৃত্যু হয়।

এ দুটি ঘটনার প্রকাশিত খবর যুক্ত করে রোববার হিউম্যান রাইটস পিস ফর বাংলাদেশের (এইচআরপিবি) পক্ষে আইনজীবী ছারওয়ার আহাদ চৌধুরী ও মাহবুবুল ইসলাম হাই কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় জনস্বার্থে রিট আবেদন করেন। আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মনজিল মোরসেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

পরে আদালত ছিনতাইয়ের এ দুই ঘটনায় আদালত রুল জারি করে। খুলনার ব্যবসায়ী মো. ইব্রাহিম ও গ্রিন লাইফ হাসপাতালের পরিচ্ছন্নতা কর্মী হেলেনা বেগমের জীবন রক্ষায় ব্যবস্থা নিতে প্রশাসনের নিস্ক্রিয়তাকে কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না এবং যে কোনো দুর্ঘটনায় আহত যে কোনো রোগীকে প্রাথমিক চিকিৎসা  দিতে দেশের সব হাসপাতাল ও ক্লিনিকের প্রতি নির্দেশনা জারি করতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়কে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

এছাড়াও ভিকটিম মো. ইব্রাহিমের পরিবারকে হিসেবে দশ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে সালাহউদ্দিন স্পেশালাইজড হাসপাতালকে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়েছে রুলে।

স্বাস্থ্য সচিব, পুলিশ প্রধান, স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ও বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যান্ড ডেন্টাল কাউন্সিলের মহাপরিচালক, ডিএমপি কমিশনার, গেণ্ডারিয়া, যাত্রাবাড়ি, ধানমন্ডি, ওয়ারি থানার ওসি ও সালাহউদ্দিন স্পেশালাইজড হাসপাতালকে দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জাবাব দিতে বলা হয়েছে।

এই বিভাগের আরো খবর

আলুবোখারার উপকারিতা

ডেস্ক প্রতিবেদন: আলুবোখারা বাংলাদেশিদের কাছে একটা অতি পরিচিত ফল। এই ফল স্থান ভেদে ভিন্ন নামে হয়ে থাকে। যেমন: কাটিংকা, ফ্লাউমেন, হানিটা,...

জন্ম নিয়ন্ত্রণ করবে মোবাইল অ্যাপ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: জন্ম নিয়ন্ত্রণ রোধ করতে বিভিন্ন ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এবার তার সাথে যুক্ত হলো আরও এক পদ্ধতি। মোবাইল অ্যাপের সাহায্যে...

চোখের জন্য বিপজ্জনক স্মার্টফোন! 

ডেস্ক প্রতিবেদন: মোবাইল ফোন প্রয়োজনে ব্যবহার হয়ে থাকলেও কখনও কখনও অপ্রয়োজনে এর ব্যবহার করে থাকে অনেকে। বিশেষ করে উঠতি বয়সীদের কাছে মোবাইল...

জুতার দুর্গন্ধ দূর করবে যে ডিভাইচ

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: অফিস হোক বা বেড়াতে যাই না কেন সবাই চায় একটু পরিপাটি করে সেজে গুজে বের হতে। এজন্য চাই ভালো মানের শার্ট বা টি-শার্ট জুতা,...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is