ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮, ৬ ভাদ্র ১৪২৫

2018-08-20

, ৮ জিলহজ্জ ১৪৩৯

ঢাকা টেস্ট ড্রয়ের সুযোগ নেই; নিয়ন্ত্রণে শ্রীলংকা

প্রকাশিত: ০৭:৪৯ , ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ আপডেট: ০৭:৫৭ , ০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাট করাই যেনো ভুলে গেছে বাংলাদেশ। ব্যাটসম্যানদের আত্মহত্যার মিছিলে পড়ে প্রথম ইনিংসে মাত্র ১’শ ১০ রানে অলআউট হয় স্বাগতিকরা। যা মিরপুরে বাংলাদেশের সর্বনি¤œ স্কোর। ঢাকা টেস্টের দ্বিতীয় দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে বাংলাদেশের বিপক্ষে ৩’শ ১২ রানে এগিয়ে শ্রীলঙ্কা; হাতে রয়েছে ২ উইকেট। দিন শেষে সফরকারীদের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২’শ রান।

নিজেদের ফাঁদেই ধরা পড়লো বাংলাদেশ। মিরপুরে স্পিনিং উইকেট দিয়ে আগের দুই টেস্টে ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো দলকে বাংলাদেশ হারিয়েছিলো। কিন্তু শ্রীলঙ্কার বিপক্ষেও সেই স্পিনিং উইকেটে খেলতে গিয়ে মাশুল গুনতে হচ্ছে স্বাগতিকদের। লঙ্কান বোলারদের স্পিন বিষে উল্টো নীল হতে হয়েছে টাইগারদের। প্রথম ইনিংসে ৪ উইকেটে ৫৬ রানে দিন শুরু করা লাল সবুজের দলটিকে বড়ই বিবর্ণ দেখাচ্ছিলো শুক্রবার।

উইকেটে টিকে থাকার বদলে শুরু হয় সাজঘরে ফেরার প্রতিযোগিতা।  শুধু লঙ্কান স্পিনাররাই নন, স্বাগতিকদের যথেষ্ট ভুগিয়েছেন পেসাররাও। লাকমলের কাছে উইকেট বিলিয়ে আসেন লিটন দাস। অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ ও মেহেদী মিরাজ চেষ্টা করেন জুটি গড়তে। তাদের প্রচেষ্টায় দলের রান তিন অঙ্কের ঘরে পৌঁছায়। এরপর হঠাৎই কালো মেঘের ঝাপটায় বাংলাদেশের ব্যাটিং লাইন মুখ থুবড়ে পড়ে।

দলের ১’শ ৭ রানের সময় অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহর উইকেট হারায় বাংলাদেশ। টেস্ট ক্রিকেটে খেলার যোগ্যতা যে সাব্বিরের এখনো হয়নি, তা আবারো প্রমাণ দিলেন। দলের বিপদের সময়ে কোন অবদানই রাখতে পারেননি। রাজ্জাক,  তাইজুল ও মুস্তাফিজ আউট হলে, বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস গুটিয়ে যায় মাত্র ১’শ ১০ রানে। মধ্যাহ্ন বিরতির আগেই শেষ হয় বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের আত্মহত্যার মিছিল।

স্কোর বোর্ডে তিন যোগ করতেই স্বাগতিক দলের শেষ পাঁচ ব্যাটসম্যান আউট হন।  সফরকারী দলের পেসার লাকমল ও স্পিনার আকিলা ধনঞ্জয়া ৩টি করে উইকেট নেন। মিরপুরে নিজেদের সর্বনি¤œ রানে অলআউট হওয়ার লজ্জায়  পুড়েছে বাংলাদেশ দল।

১’শ ১২ রানে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করে অতিথি দল। যেই উইকেটে প্রথম ইনিংসে আত্মহত্যা করেছেন স্বাগতিক ব্যাটসম্যানরা, সেখানেই রান পেয়েছে অতিথি দল। দিমুথ করুণারতেœ, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, দীনেশ চান্ডিমাল, রোশেন সিলভারা স্বাগতিকদের চোখে আঙ্গুল দিয়ে দেখিয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটে কিভাবে ব্যাট চালাতে হয়। তাতে লঙ্কানদের পাশে রানও বাড়তে  থাকে।

মেহেদী মিরাজ, তাইজুল, রাজ্জাকরা ঝুলিতে উইকেট নিলেও ততক্ষণে ম্যাচ চলে গেছে সফরকারীদের হাতের মুঠোয়। যদিও শেষ বিকেলে মুস্তাফিজ পরপর দুই উইকেট শিকার করে হ্যাটট্রিকের আশা জাগিয়ে তোলেন। মুস্তাফিজের বলে লাকমলের ক্যাচ ছাড়েন সাব্বির। টেস্টে টানা চতুর্থ অর্ধ শতক পান রোশেন সিলভা। তাতে দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে সফরকারীদের সংগ্রহ দাঁড়ায় ৮ উইকেটে ২’শ রান।

 

এই বিভাগের আরো খবর

কাতারকে হারিয়ে এশিয়ান গেমস ফুটবলের শেষ ষোলতে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক: ২০২২ সালের বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ কাতার। র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে ঢের এগিয়ে। যেখানে কাতার ৯৮তম স্থানে, সেখানে বাংলাদেশ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is