ঢাকা, বুধবার, ২৩ মে ২০১৮, ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

2018-05-22

, ৭ রমজান ১৪৩৯

চীনা কনসোর্টিয়ামের অংশীদারিত্বের খবরে সূচকের বিরাট উত্থান

প্রকাশিত: ০৬:৫২ , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ আপডেট: ০৬:৫২ , ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: চীনের দুটি স্টক এক্সচেঞ্জের সমন্বয়ে গঠিত কনসোর্টিয়াম ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) অংশীদার হওয়ার খবরে একদিনেই সূচকের বিরাট উত্থানে ধুঁকতে থাকা পুঁজিবাজারে যেন বসন্তের হাওয়া ছুঁেয় গেল। রোববার সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবসে দেশের ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের-ডিএসই’র প্রধান সূচক ডিএসইএক্স বেড়েছে ১২৮ পয়েন্ট যা কিনা ২.১৫ শতাংশ বেড়েছে। লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে গত কার্যদিবসের তুলনায় ১৫০ কোটি টাকারও বেশি। অপর বাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৪০০ পয়েন্টের মতো।

শনিবার ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের সভায় চীনের দুটি স্টক এক্সচেঞ্জের সমন্বয়ে গঠিত কনসোর্টিয়ামকেই অংশীদার হিসেবে গ্রহণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ডিএসইর সাবেক সভাপতি এবং ডিএসইর পরিচালক রকিবুর রহমান। চীনের শেনচেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের কনসোর্টিয়ামের প্রস্তাব সর্বসম্মতিক্রমে গ্রহণ করা হয়েছে বলে তিনি নিশ্চিত করেন তিনি। পুঁিজবাজার নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) অনুমোদনের পর শেনচেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জের সঙ্গে ডিএসইর চূড়ান্ত চুক্তি হবে বলে জানান তিনি। আগামী তিন-চার মাসের মধ্যে  সব ধরনের প্রক্রিয়া শেষ হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি। এর ফলে বাজার আন্তর্জাতিক মানের দিকে ধাবিত হবে, পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগও বাড়বে উল্লেখযোগ্য হারে, আর বিদেশি বিনিয়োগ বাড়লে স্থানীয় বিনিযোগ বাড়বে বলেও আশাবাদ করেন এ কর্মকতা। 

ডিএসই সূত্রে যায়, ডিএসই আহ্বানের বিপরীতে অংশীদার পেতে গত তিন মাস আগে যেসব দরপত্র জমা পড়েছিল, মঙ্গলবার ডিএসইর পর্ষদ সভায় সেগুলো পরীক্ষা-নিরিক্ষা করা হয়। চীনের কনসোর্টিয়ামটির পাশাপাশি ভারত, বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের আরেকটি কনসোর্টিয়ামও প্রস্তাব দিয়েছে, যাতে রয়েছে- ভারতের ন্যাশনাল স্টক এক্সচেঞ্জ, বাংলাদেশের ফ্রন্ট্রিয়ার ফান্ড বাংলাদেশ ও যুক্তরাষ্ট্রের নাসডাক। এ তিন কনসোর্টিয়ামের মধ্যে চীনের শেনচেন ও সাংহাই স্টক এক্সচেঞ্জ কনসোর্টিয়ামকের প্রস্তাবগুলো সবচেয়ে আকষর্ণীয় বলে বিবেচিত হয় ডিএসই’র কাছে। কেননা, কনসোর্টিয়ামটি ৯৯০ কোটি টাকায় ডিএসইর ৪৫ কোটি বা ২৫ শতাংশ শেয়ার (প্রতিটি শেয়ার ২২ টাকা দরে) কেনার প্রস্তাব দেয়। পাশাপাশি ডিএসইর কারিগরি ও প্রযুক্তিগত উন্নয়নেও ভূমিকা রাখবে বলে প্রস্তাব করা হয়। এ উন্নয়নে ৩০০ কোটি টাকারও বেশি (৩৭ মিলিয়ন ডলার) খরচ করবে বলে তারা প্রস্তাবে উল্লেখ করেছে ।

উল্লেখ্য, চীনের প্রধান তিনটি স্টক এক্সচেঞ্জের মধ্যে সাংহাই ও শেনচেন রয়েছে যথাক্রমে দ্বিতীয় ও তৃতীয় অবস্থানে। বাজার মূলধনের দিক থেকেও বিশ্বের সেরা ১০টি স্টক এক্সচেঞ্জের তালিকাতে রয়েছে তারা। ডিএসসি’র অংশীদারি নিতে সব কিছু চূড়ান্ত হবার পর, এর ২৫ শতাংশ শেয়ার ক্রয় করে মালিকানায় আসার পর ডিএসইর পর্ষদেও বসানো হবে এ কনসোর্টিয়াম প্রতিনিধিদের ।

বড় এ দুটি স্টক এক্সচেঞ্জ ডিএসইর কৌশলগত অংশীদার হলে দেশি-বিদেশি বিনিয়োগকারীরা বাজারের প্রতি আরও আকৃষ্ট ও আস্থাশীল হয়ে উঠবে বলে ধারণা করা হচ্ছে। তাইতো এমন চমৎকার খবরে বাজার রোববার শুরু থেকেই চাঙাভাব নিয়ে শুরু হয়ে ছুটতে থাকে দুর্বার গতিতে। আজ ডিএসইতে লেনদেনকৃত ৩৩৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ২৯৩টির, কমেছে  মাত্র ২৭টির। আর অপরিবর্তিত রয়েছে ১৪টি কোম্পানির দর।

এই বিভাগের আরো খবর

প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে ৩৮ হাজার কোটি টাকার প্রকল্প

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রাথমিক শিক্ষার উন্নয়নে বড় উদ্যোগ বাস্তবায়ন করতে যাচ্ছে সরকার। এজন্য ৩৮ হাজার কোটি ব্যয়ে একটি প্রকল্পের অনুমোদন...

খতিয়ে দেখার আহ্বান গবেষকদের

নয় মাসে রেকর্ড পরিমাণ বাণিজ্য ঘাটতি তেরশ’ কোটি ডলার

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বাণিজ্য ঘাটতি রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের নয় মাসে ঘাটতি দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৩২০ কোটি ডলারে। গত বছরের চেয়ে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is