ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮, ৬ ভাদ্র ১৪২৫

2018-08-20

, ৮ জিলহজ্জ ১৪৩৯

সাফল্যের পাশাপাশি কমিউনিটি পুলিশের বিরুদ্ধে রয়েছে অভিযোগও

প্রকাশিত: ১০:০৫ , ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ আপডেট: ০২:৪২ , ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: কমিউনিটি পুলিশের সাথে যুক্ত অনেকের বিরুদ্ধেও চাঁদাবাজি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের অভিযোগ রয়েছে। থানা পুলিশের সাথে সখ্যতা থাকায় বরাবরই তারা থাকেন ধরাছোঁয়ার বাইরে। তবে পুলিশ বলছে, কারও বিরুদ্ধে অনিয়মের অভিযোগ প্রমাণিত হলে ব্যবস্থা নেয়াসহ কমিটি থেকে বাদ দেয়ার নির্দেশনা রয়েছে।

নারায়ণগঞ্জ সিদ্ধিরগঞ্জে নয়াআটি মুক্তিনগর এলাকায় প্রায় ত্রিশ বছর ধরে নাজমা বেগমের বাস। স¤প্রতি এলাকায় উন্নয়ন কাজ শুরু হলে তান বাড়ির একাংশ ভাঙা পড়ে। এ সুযোগে সিদ্ধিরগঞ্জের তিন ওয়ার্ডে কমিউিনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আলী মাদানী বাড়ির একাংশ দখল করে নাজমার বেগমের কাছে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন। গত ২৪ ডিসেম্বর নাজমা সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় অভিযোগ জানান। টেলিফোন সাক্ষাৎকারে অভিযোগ অস্বীকার করেন মাদানী।

একই ধরনের অভিযোগ সিদ্ধিরগঞ্জের চার নম্বর ওয়ার্ড কমিউিনিটি পুলিশের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুমের বিরুদ্ধেও। একটি হাউজিং সোসাইটির সভাপতি আব্দুল আওয়ালের কাছে মোটা অংকের চাঁদা দাবি করে আব্দুল কাইয়ুম ও তার লোকজন। চাঁদা না দেওয়ায় আওয়ালের বিরুদ্ধে গত ৬ জানুয়ারি হামলা করে কাইয়ুম। আওয়ালের ছেলেকে নির্মমভাবে মারে। এই অভিযোগের মামলা নেয়নি স্থানীয় থানা।

দুটি ঘটনার বিষয়ে কথা বলতে সিদ্ধিরগঞ্জ থানায় গেলে ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আব্দুস সাত্তারকে পাওয়া যায়নি। টেলিফোনে তার বক্তব্য জানতে চাইলেও কথা বলতে রাজি হননি তিনি।

কমিউনিটি পুলিশ কমিটির নেতাদের বিরুদ্ধে যেমন আছে অভিযোগ, এলাকার ট্রাফিক ব্যবস্থাপনার জন্য   তাদের নিয়োগকৃত সদস্যরাও জড়াচ্ছেন অনিয়মে। মিরপুর ১০ নম্বর এলাকার চিত্র এটি। প্রধান সড়কে রিকশা চলার সুযোগ না থাকলেও টাকা দিলেই মিলছে রাজপথে চলার সুযোগ। যদিও এসব অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দায়িত্বরত সদস্যরা। কমিউনিটি পুলিশের মানসম্মত বেতন না থাকায় তারা অনিয়ম করছেন বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।
কমিউনিটি পুলিশ সদস্যদের চাঁদাবাজী, অনিয়ম এবং ক্ষমতার অপব্যবহার বন্ধে কমিটি গঠনের ক্ষেত্রে বিশেষ সতর্কতা ও যাচাই-বাছাই এবং তাদের ওপর নজদারদারি বাড়ানোর  দাবি আছে।

এই বিভাগের আরো খবর

আম চাষে আগ্রহ বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বাণিজ্যিকভাবে আমের চাষ ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। নিরাপদ, নিশ্চিত বাণিজ্যের স্বার্থে চাষের ক্ষেত্রে পোকা মাকড় এবং...

বিলুপ্ত হয়েছে অনেক জাতের আম

নিজস্ব প্রতিবেদক: আমের ভরা মৌসুম চলছে। দেশীয় মৌসুমী এই ফলের চাষ, বাণিজ্য ও ব্যবহারের ধরনে মাত্র কয়েক দশকে বিপুল পরিবর্তন এসেছে। মৌসুমী ফলের...

কবরের রক্ষণাবেক্ষণ ও পরিচর্যার পেছনের কুশীলব শুধু টাকা!

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বজন-বন্ধুরা যখন প্রিয়জনের লাশ কাধে করে কবরস্থানে আসেন সেটা এক বিশেষ মুহূর্ত। তখন তাদের মনের গভীরে বেদনা ও ভালোবাসায়...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is