ঢাকা, সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-19

, ১০ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

কমিউনিটি পুলিশের জবাবদিহিতার নিশ্চিতে আইনি কাঠামোর তাগিদ বিশেষজ্ঞদের

প্রকাশিত: ১০:১৪ , ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮ আপডেট: ১১:৪৬ , ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: কমিউনিটি পুলিশ সদস্যদের কর্মপরিধি নির্ধারণ ও জবাবদিহিতার মধ্যে আনতে তাদেরকে আইনি কাঠামোর মধ্যে আনার জন্য মত দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। পাশাপাশি দলীয়করণ বন্ধে ভারসাম্য মূলক কমিটি গঠনেরও তাগিদ রয়েছে। এর ব্যত্যয় ঘটলে কমিউনিটি পুলিশের  কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হওয়াসহ বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির আশঙ্কা করেন সংশ্লিষ্ট পর্যবেক্ষকরা। তবে কমিউনিটি পুলিশের কাজকে আইনের বেড়াজালে আটকানোর পক্ষে নয় এর প্রধান পৃষ্ঠপোষক সদ্য বিদায় নেয়া পুলিশ বাহিনীর প্রধান।  

কোনো আদেশ বা আইনের অধীনে কমিউনিটি পুলিশের প্রচলন না ঘটলেও প্রচলিত এ কার্যক্রমে কোন বাধা নেই। ফৌজাদারি আইনে কিছু ক্ষেত্রে পুলিশ ও ম্যাজিস্ট্রেটকে জনসাধরণের সহায়তা করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। এছাড়া পুলিশ রেগুলেশনেও জনসাধরণের প্রতিনিধি, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান-সদস্যদের পুলিশের কাজে সহায়তা করার বিধান আছে। মূলত বিধানকে আশ্রয় করেই দেশব্যাপী কমিউনিটি পুলিশের এর কাজ চলছে। তবে স্বচ্ছতা ও জবাদিহিতার স্বার্থে কমিউিনিটি পুলিশকে আইনী কাঠামোর মধ্যে আনার প্রয়োজনীয়তা নিয়ে বিপরীতমূখী মত আছে।

কমিউনিটি পুলিশের কমিটি গঠন নিয়েও আছে বিতর্ক। পুলিশের পক্ষ থেকে সকল স্তরের জনগণকে সদস্য করার কথা বলা হলেও কমিটির বেশির সদস্যই হয় ক্ষমতাসীন দলের অনুসারীরা। কমিটিতে চিহ্নিত অপরাধীসহ বিতর্কিত ব্যক্তি অন্তর্ভুক্তির অভিযোগ রয়েছে। এতে ক্ষমতার অপব্যবহার যেমন হচ্ছে, তেমনি বিতর্ক উঠছে এর গ্রহণযোগ্যতা নিয়ে। দলীয় মানসিকতার উর্ধ্বে সর্বস্তরের জনগণকে নিয়ে ভারসাম্যমূলক স্বচ্ছ কমিটির গঠনের দাবি সাবেক ক’জন পুলিশ প্রধানের।
জনবান্ধব ও গণমুখি পুলিশিংয়ের লক্ষে কমিউনিটি পুলিশের কার্যক্রমের আরও প্রসার চায় সরকার। এর মাধ্যমে শতভাগ জননিরাপত্তা দেয়া সম্ভব হবে বলে দাবি সরকারের।
জননিরাপত্তার নামে কোন আয়োজনেই সাধারণ মানুষের যেন ভোগান্তি না হয় এটা সবার আকুতি। কমিউনিটি পুলিশকে সেই মানসিকতায় গড়ে তুলে কাজে নামানের তাগিদ দেন পর্যবেক্ষকরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে ঢাকা ও ময়মনসিংহ বিভাগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা বিভাগীয় নির্বাচনী আসন গুলোতে, হোক তা শহরে কিংবা প্রত্যন্ত অঞ্চলে, পোষ্টার ব্যানারে ছেয়ে গেছে এরই মধ্যে। কর্মব্যস্ত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is