ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-23

, ১৮ রমজান ১৪৪০

কোনোমতে বেঁচে আছেন খেতাব প্রাপ্ত মুক্তিযোদ্ধা কাকন বিবি

প্রকাশিত: ১০:২৭ , ০৯ মার্চ ২০১৮ আপডেট: ০২:২৭ , ০৯ মার্চ ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠি গুলোর মুক্তিযোদ্ধা সদস্যদের মধ্যে বিশেষ বীরত্বের জন্য রাষ্ট্রীয় খেতাব পেয়েছেন দু’জন। এরমধ্যে একজন নারী এবং অপরজন পুরুষ। তাঁরা বীরের বেশে মুক্তিযুদ্ধে বিজয় ছিনিয়ে আনলেও বিগত ছেচল্লিশ বছরেও জীবন যুদ্ধে উত্তীর্ণ করতে পারেননি পরিবারকে। তাদের একজন আজও জীবন সংগ্রামে কোনোমতে বেঁচে আছেন। আরেকজন দেহ ত্যাগ করেছেন বছর চারেক আগে।

কাকাত হেনইঞ্চিতা নামে সুনামগঞ্জের এই বৃদ্ধা পরিচিত কাকন বিবি নামে। নিজের জাতিগেষ্ঠির বাইরে বাঙ্গালী মুসলমান বিয়ে করে হন নূরজাহান বেগম। তবু কাকন বিবি নামেই আজো পরিচিত। খাসিয়া সম্প্রদায়ের কাকান বিবি ঘরে মাত্র তিন দিন বয়সী কন্যা সন্তানকে রেখে মুক্তিযুদ্ধে গিয়েছিলেন। ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠি গুলোর মধ্যে তিনিই একমাত্র নারী যিনি বাংলাদেশ স্বাধীন করতে বিশেষ বীরত্বের জন্য রাষ্ট্রিয় বীরপ্রতীক খেতাব পান ১৯৯৬ সালে।

কাকন বিবি একাধারে মুক্তিযোদ্ধাদের গুপ্তচর ও সশস্ত্র যোদ্ধা ছিলেন। যুদ্ধের এক পর্যায়ে ধরা পড়েন পাকিস্তানী সেনাদের হাতে, সইতে হয় অমানষিক নির্যাতন। অজ্ঞান কাকন বিবিকে মৃত ভেবে পাকিস্তানী সেনারা ফেলেযায়, প্রাণে বাঁচেন তিনি। জীবন ফিরে পেয়ে অদম্য কাকন বিবি আবার অস্ত্র হাতে তুলে নেন। প্রায় ২০টি যুদ্ধে অংশ নেন সক্রিয় ভাবে। তবে, জীবনযুদ্ধ কখনো সহজ হয়নি।

বিশেষ বীরত্বের জন্য রাষ্ট্রিয় খেতাব পাওয়া ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠির আরেকজন হলেন ইউ কে চিং।  ২০১৪ সালে দেহত্যাগ করেন। বীরবিক্রম খেতাব পেয়েছেন চিং। কিন্তু নিজের জীবন সংগ্রাম ও মুক্তিযুদ্ধ নিয়ে স্বাধীন দেশে বিতর্ক তাঁকে ভিশন ক্ষুব্ধ করেছিলো। যা সংগৃহীত ভিডিও চিত্রে পাওয়া যায়।
এক ছেলে, এক মেয়ে ও স্ত্রী আছেন চিং এর। বিভিন্ন সময় কিছু সহায়তা পেলেও এই বীর মুক্তিযোদ্ধার পরিবারের সদস্যদের জীবন আজো দারুন কষ্টের।

ইউ কে চিং এর দেহ ত্যাগের পর তার পরিবারের কাছে নানান সরকারি বেসরকারি প্রতিশ্র“তি আসে। কিন্তু আজো আসেনি প্রতিশ্র“ত সহায়তা গুলো।

এই বিভাগের আরো খবর

বিষের বাজারেও ভেজাল আছে

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বছরে বিষের যে চাহিদা, তা অর্থমূল্যে আড়াই হাজার কোটি টাকার। যার পুরোটাই আমদানি করতে হয় বিভিন্ন দেশে থেকে। অন্যদিকে...

দেশে ক্রমেই বড় হচ্ছে বিষের বাজার

নিজস্ব প্রতিবেগ: বিষ কথাটায় সাধারণত নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হয়, কিন্তু নিজেদের স্বার্থে জেনে না জেনে বিচিত্র বিষের ব্যবহারে অভ্যস্ত মানুষ।...

ফল রপ্তানীতে সুপরিকল্পনা ও উদ্যোগ চান ব্যবসায়ীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক : দেশের ফল বাণিজ্য অভ্যন্তীণ বাজার কেন্দ্রিক। সাম্প্রতিক দশকগুলোতে কিছু দেশীয় ফল বিদেশে রপ্তানী হলেও পরিমাণ খুব কম। তাই...

চাহিদা-পুষ্টিগুণ বিবেচনায় ফল চাষ পদ্ধতিতে এসেছে পরিবর্তন

নিজস্ব প্রতিবেদক : মৌসুমী ফলের উৎপাদন ক্রমেই বাড়ছে। চাহিদা এবং পুষ্টিগুণ বিবেচনায় চাষ পদ্ধতিতেও পরিবর্তন হচ্ছে। অপ্রচলিত এবং বিলুপ্ত...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is