ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫

2018-12-19

, ১০ রবিউস সানি ১৪৪০

স্বজনদের উৎকন্ঠা

প্রকাশিত: ১০:২৬ , ১২ মার্চ ২০১৮ আপডেট: ০৮:৩৩ , ১৩ মার্চ ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক : কাঠমান্ডুতে ইউএস বাংলার বিমান দুর্ঘটনার খবর পাওয়ার পর যাত্রীদের স্বজনরা অনেকেই ছুটে যান ঢাকার বারিধারায় ইউএস বাংলার প্রধান কার্যালয়ে। স্বজনদের অনেকেই কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।  আহতদের চিকিৎসা ব্যয় বহন ও মরদেহ দেশে আনার সব দায়িত্ব নিয়েছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

ঢাকা থেকে কাঠমান্ডুগামী ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের ফ্লাইট দুর্ঘটনার খবর বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রচার হওয়ার পর, রাজধানীর বারিধারায় ওই এয়ারলাইন্সের অফিসে ছুটে যান যাত্রীদের স্বজনদের অনেকে। তারা খোঁজ নেয়ার চেষ্টা করেন যাত্রীদের সম্পর্কে।

রাজধানীর দক্ষিণখানের বাসিন্দা ব্যবসায়ী কবির হোসেন তার দুই বন্ধসহ যাত্রী হয়েছিলেন ইউএস-বাংলার ওই ফ্লাইটের। তার ছেলে জানান- তার বাবা হাসপাতলে আছেন বলে জানতে পেরেছেন। বাকিদের কারো সম্পর্কে কিছু জানতে পারেননি।

একই ফ্লাইটে নেপাল ভ্রমণে যাচ্ছিলেন দম্পতি এহসান ইমাম ও বিলকিস বানু। তাদের সর্বশেষ অবস্থা জানতে সোমবার সন্ধ্যায় ইউএস বাংলার কার্যালয়ে যান বিলকিসের বোন।
তিন দিনের জন্য দাপ্তরিক সফরে ওই ফ্লাইটে কাঠমান্ডু রওনা হয়েছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র অ্যাসিস্ট্যান্ট চিফ উম্মে সালমা। তার সঙ্গে ছিলেন সিনিয়র সহকারী প্রধান নাজিয়া আফরিন চৌধুরী। দুর্ঘটনার খবর পেয়ে ইউএস বাংলা অফিসে ছুটে যান উম্মে সালমার বড় ভাই আবুল কালাম আজাদ।

আহতদের সার্বিক চিকিৎসা ও নিহতদের মরদেহ দেশে আনার সব ধরণের ব্যবস্থা নেয়ার কথা জানিয়েছে ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ।

দুর্ঘটনা এবং হতাহতদের সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে সিভিল এভিয়েশনের দুই কর্মকর্তা সোমবার বিকেলে কাঠমান্ডু যান। শাহজালাল বিমানবন্দরে সিভিল এভিয়েশন কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক করেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রী একেএম শাহজাহান কামাল। পরে তিনি হতাহত সম্পর্কে সাংবাদিকদের বিভ্রান্তিকর তথ্য দেন।

যেসব পরিবার তাদের নিখোঁজ সদস্যের খবর জানতে পারেনি তাদের সহায়তা করার আশ্বাস দিয়েছে রেড ক্রিসেন্ট।

 

এই বিভাগের আরো খবর

ব্রেক্সিট ইস্যুতে ১৪ জানুয়ারি ব্রিটিশ পার্লামেন্টে ভোট

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ব্রেক্সিট ইস্যুতে আগামী ১৪ জানুয়ারি পার্লামেন্টে ভোটের দিন নির্ধারণ করেছেন ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। বিবিসি...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is