ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ মে ২০১৮, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৫

2018-05-21

, ৬ রমজান ১৪৩৯

পুঁজিবাজারে লেনদেন কমছে উদ্বেগজনক হারে  

প্রকাশিত: ০৪:৪৮ , ১৪ মার্চ ২০১৮ আপডেট: ০৪:৪৮ , ১৪ মার্চ ২০১৮

বাণিজ্য ডেস্ক: সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে ধুঁকতে থাকা দেশের পুঁজিবাজারে দরপতন ঠেকলেও লেনদেনের পরিমাণ আজও কমেছে আশঙ্কাজনক হারে। গতদিনের চেয়ে আজও লেনদেন কমেছে ৫৮ কোটি টাকারও বেশি। 

বুধবার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে-ডিএসই’র প্রধান ডিএসইএক্স সূচক ১১ পয়েন্ট বেড়ে ৫৬৩৫ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর লেনদন হওয়া ৩৩৪ টি কোম্পানি ও মিউচুয়্যাল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৯৩ টির, কমেছে ৯২ টির আর অপরিবর্তিত রয়েছে ৪৯ টি শেয়ারের দাম।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার বাজার সূচক ৮১ পয়েন্ট হারায়। গত নয় মাসের মধ্যে সূচক সর্বনিু অবস্থানে নেমে এসেছে। গতকাল বিনিয়োগকারীরা ডিএসই’র সামনে বিক্ষোভ করে। বিকেলে জরুরি বৈঠকেও বসে ডিএসই ব্রোকার্স অ্যাসোসিয়েশন, মার্চেন্ট ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন, ব্যাংকার্স অ্যাসোসিয়েশন, লিস্টেড কম্পানি অ্যাসোসিয়েশন, লিজিং কম্পানি অ্যাসোসিয়েশন ও ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের শীর্ষ কর্মকর্তারা। 

বিনিয়োগকারীরা চরম হতাশা প্রকাশ করে বৈশাখী অনলাইনকে জানান, গতকালের বৈঠকে হয়ত আজ দরপতন ঠেকানো গেলেও বাজারে তারল্য অভাব রয়েছে বলে তাদের আশঙ্কা। তাই পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রণকারী সংস্থাগুলো দ্রুত কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না নিলে বাজার পরিস্থিতি আরও খারাপের দিকে যেতে পারে বলে বিনিয়োগকারীরা শঙ্কার মধ্যে রয়েছেন। সরকার পুঁজিবাজারকে বিশেষভাবে অগ্রাধিকার দিয়ে যদি মুদ্রানীতি করতো, তবে বাজারে এতটা নেতিবাচক প্রভাব পড়তো না।

উল্লেখ্য, চলতি বছরের ২৯ জানুয়ারি বাংলাদেশ ব্যাংক মুদ্রানীতি ঘোষণা করার পর থেকে বাজার ভয়াবহ দরপতনের সম্মুখীন হয়। তারপর থেকে বিনিযোগকারীদের মধ্যে সৃষ্ট আশঙ্কা আর আস্থার অভাবে পুঁজিবাজার আর ইতিবাচক ধারায় ফিরতে পারেনি।     

এই বিভাগের আরো খবর

খতিয়ে দেখার আহ্বান গবেষকদের

নয় মাসে রেকর্ড পরিমাণ বাণিজ্য ঘাটতি তেরশ’ কোটি ডলার

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে বাণিজ্য ঘাটতি রেকর্ড পরিমাণ বেড়েছে। চলতি অর্থবছরের নয় মাসে ঘাটতি দাঁড়িয়েছে এক হাজার ৩২০ কোটি ডলারে। গত বছরের চেয়ে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is