ঢাকা, শুক্রবার, ২০ জুলাই ২০১৮, ৫ শ্রাবণ ১৪২৫

2018-07-19

, ৬ জিলকদ্দ ১৪৩৯

এবার বাস ও ট্রাকের সংঘর্ষে বিচ্ছিন্ন হল যুবকের হাত

প্রকাশিত: ০২:০৬ , ১৭ এপ্রিল ২০১৮ আপডেট: ০৫:১৮ , ১৭ এপ্রিল ২০১৮

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি: ঢাকায় তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব দুই বাসের রেষারেষিতে হাত হারানোর পর তার মৃত্যুর খবর যেদিন এল, সেদিনই গোপালগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় হাত হারাল আরেক যুবক।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার বেদগ্রাম নামক স্থানে একটি যাত্রীবাহী বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি ট্রাকের পার্শ্ব সংঘর্ষ হলে এক যুবকের ডান হাত বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। পরে, তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

হাত হারানো ওই যুবকের নাম হৃদয় (৩০)। তিনি টুঙ্গিপাড়ার কাড়ারগাতি গ্রামের মো: রবিউল ইসলামের ছেলে। হৃদয় পেশায় পরিবহন শ্রমিক।  টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের একটি বাসে চালকের সহকারী (হেল্পার) ছিলেন তিনি।

গোপালগঞ্জ সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোহাম্মদ ফারুক হোসেন জানান, আহত হৃদয়কে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চিকিৎসার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়েছে। এদিকে, ঘাতক ট্রাকটিকে আটক করলেও চালককে আটক করতে পারেনি বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বাসটিতে থাকা এক যাত্রী ও ঢাকা ইডেন কলেজের অনার্স শেষ বর্ষের ছাত্রী রাহিমা মনি জানান, পিরোজপুর থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের বাসের একেবারে পিছনের ডান পাশের ছিটে বসে ছিলেন হৃদয়। বাসটি বেদগ্রাম পৌঁছালে অপরদিক থেকে আসা একটি ট্রাক পাশ কাটিয়ে যাওয়ার সময় বাসের পেছনে অংশে সজোরে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই হৃদয়ের বাহু থেকে ডান হাতটি বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়।

পরে সংকটজনক অবস্থায় তাকে গোপালগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা পাঠানো হয়।

ওই শিক্ষার্থীর অভিযোগ, ট্রাকটি বেপরোয়া গতিতে বাসটিকে অতিক্রম করার সময় বাসের পেছনের অংশে আঘাতটি করে। ট্রাক চালকের ভুলেই বাস শ্রমিকের হাতটি বিচ্ছিন্ন হয়েছে।

হৃদয়ের বাবা রবিউল মিনা জানান, রবিউল টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের চালকের সহকারী। সে টুঙ্গিপাড়া এক্সপ্রেসের অন্য একটি গাড়িতে ডিউটি করে। দুর্ঘটনা কবলিত বাসে করে হৃদয় ঢাকা যাচ্ছিল।

এদিকে ট্রাকটি আটকের জন্য অভিযান চলছে বলে জানিয়েছেন গোপালগঞ্জ সদর থানার অফিসার্স ইনচার্জ মো. মনিরুল ইসলাম।

এর আগে গত ৩ এপ্রিল রাজধানীতে বেপরোয়া দুই বাসের রেষারেষিতে পড়ে হাত হারায় সরকারি তিতুমীর কলেজের ছাত্র রাজীব হোসেন। এরপর ১৪ দিন জীবন-মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে সোমবার দিবাগত রাতে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মারা যান রাজীব। রাজীব হোসেনের বাড়ি পটুয়াখালীর বাউফল উপজেলার বাঁশবাড়ি গ্রামে। 
 

এই বিভাগের আরো খবর

নাটোরে নদীতে দুই বোনের সলিল সমাধি

নাটোর প্রতিনিধিঃ নাটোরে বেড়াতে এসে বৃহস্পতিবার দুপুর একটায় নন্দকুজা নদীতে গোসল করতে নেমে পানিতে ডুবে দুই বোনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা...

রূপনগরে বাস-লেগুনা সংঘর্ষ, নিহত ৩

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর রূপনগরে বাস-লেগুনার সংঘর্ষে শিশুসহ তিনজন নিহত হয়েছেন। ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও কয়েকজন। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে আটটার...

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল ৭ জনের

বৈশাখী ডেস্ক: কক্সবাজারের উখিয়ায় বাঁশবাহী ট্রাক উল্টে শিশুসহ ৪ নিহত হয়েছে। এসময় আহত হয়েছে আরো অন্তত আটজন। সকালে উখিয়ার বালুখালী এলাকায় এ...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is