ঢাকা, রবিবার, ২০ জানুয়ারী ২০১৯, ৭ মাঘ ১৪২৫

2019-01-21

, ১৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪০

ওজন কমাতে নিয়মিত খান আখের রস

প্রকাশিত: ০৭:৪৭ , ১৩ মে ২০১৮ আপডেট: ০৭:৪৭ , ১৩ মে ২০১৮

অনলাইন ডেস্ক: রোদের প্রচণ্ড গরমের দিনে বাহিরে বের হলে শরীরের পানির ঘাটতি মেটাতে আখের রসের বিকল্প নেই। মিষ্টি হলেও ওজন কমাতেও অদ্বিতীয় আখের রস, অনেকেরই তা জানা নেই। আখের রসে রয়েছে শর্করা জাতীয় উপাদান, ফলে আলাদা করে চিনি বা সুইটনার ব্যবহার করার প্রয়োজন পড়ে না। বাজারচলতি প্যাকেটজাত জুসগুলিতে প্রচুর পরিমাণ আর্টিফিশিয়াল সুইটনার থাকে, যা ওজন বাড়াতে সহায়তা করে। তাই অন্যান্য জুস নয়, নিয়মিত ডায়েট তালিকায় রাখুন আখের রস।

আখের রসে প্রচুর পরিমাণ ফাইবার রয়েছে, যা ওজন কমাতে সাহায্য করে। আখে থাকে ১৩ গ্রামের মতো ফাইবার। বিশেষজ্ঞেরা জানাচ্ছেন, চিনি বা কোনও রকম সুইটনার না মিশিয়ে নিয়ম করে আখের রস খেলে ধীরে ধীরে ওজন কমতে থাকে।

আখের রসে রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট পলিফেনল যা শরীরের মেদজনিত ফোলা ভাব কমিয়ে দেয়। কয়েক দিন পরেই দেখবেন নিজেকে অনেক বেশি ফিট এবং ঝরঝরে লাগছে। এছাড়া ওজন বাড়ার অন্যতম প্রধান কারণ শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রা বৃদ্ধি। এই কোলেস্টেরল রক্তের সঙ্গে মিশে শরীরে স্নেহজাতীয় পদার্থের পরিমাণ বাড়ায়। আখের রসে কোনও কোলেস্টেরল নেই। তাই নিশ্চিন্তে খান আখের রস, ওজন থাকবে নিয়ন্ত্রণেই।

আখের রস হজম শক্তি বাড়ায়, অ্যাসিডিটি নির্মূল করে। তাই নিয়মিত আখের রস খেলে হৃদরোগের ঝুঁকি কমে।

ডায়াবিটিস রোগীদের জন্যও অনেক কার্যকরী আখের রস। এটি রক্তে গ্লুকোজের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখে। তাই ডায়াবিটিস রোগীরা নির্দ্বিধায় খেতে পারেন আখের রস।

আখের রসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, পটাসিয়াম, আয়রন ও ম্যাঙ্গানিজ। যা স্তন ক্যানসার ও প্রস্টেড ক্যানসার প্রতিরোধে সক্ষম। শরীরের অবাঞ্ছিত টক্সিন দূর করে রোগ প্রতিরোধ শক্তি গড়ে তোলে আখের রস।

 

এই বিভাগের আরো খবর

স্বাস্থ্যের যত্নে রসুন

ডেস্ক প্রতিবেদন: রসুন একটি মসলা জাতীয় খাদ্য উপাদান। রান্নার মসলা হিসেবে রসুনের ব্যবহার সৃষ্টির শুরু থেকে চলে আসছে। রান্নায় স্বাদকে...

ঘুমের মধ্যে পায়ে টান পড়ে?

ডেস্ক প্রতিবেদন: হঠাৎ প্রবল যন্ত্রণা। পা সোজা করতে পারছেন না। ভোর রাতে পায়ের পেশিতে টান লেগে আমারা অনেকেই ভুগে থাকি। ফলে অসহ্য যন্ত্রণার...

শীতকালে গরম পানিতে স্নান স্বাস্থ্যকর না ক্ষতিকর?

ডেস্ক প্রতিবেদন: শীতকাল মানেই অনিয়মিত স্নান। আর স্নান করলেও গরম পানি দিয়ে। অনেকেই মনে করেন ঠান্ডার ভয়ে স্নান না করার চেয়ে গরম পানিতে স্নান...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is