ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১০ আশ্বিন ১৪২৫

2018-09-25

, ১৪ মহাররম ১৪৪০

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা কঠিন হবে: মনে করে সিপিডি

প্রকাশিত: ০২:১২ , ০৮ জুন ২০১৮ আপডেট: ০৪:১৫ , ০৮ জুন ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে নবীন বাংলাদেমের জন্য প্রবীন বাজেট বলে মন্তব্য করেছে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ-সিপিডি। পরিবহন ও বিদ্যুতের মতো খাতে বেশী বরাদ্দ রাখাতে স্বাগত জানিয়ে সংস্খাটি বলছে, বাজেটে সামগ্রিভাবে স্পষ্ট দিকনির্দেশনার প্রয়োজন ছিলো। সকালে রাজধানীর একটি হোটেলে প্রস্তাবিত বাজেট পরবর্তি সংবাদ সম্মেলনের এসব পর্যবেক্ষল তুলে ধরে সিপিডি। সংস্থাটি বলছে, এই বাজেটে মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা কঠিন হবে। আর, পরোক্ষ কর বাড়ানোর ফলে মধ্যবিত্তের উপর চাপ বাড়বে।

২০১৮-১৯ অর্থবছরের জন্য প্রস্তাবিত বাজেটের প্রতিক্রিয়া জানাতে শুক্রবার এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা-সিডিপি। যেখানে তুলে ধরা হয় বাজেট সম্পর্কে নানা পর্যবেক্ষণ।

সিপিডি বলছে, একদিকে বাংলাদেশ  উন্নত হচ্ছে, অন্যদিকে বৈষম্য বাড়ছে। কিন্তু নতুন বাস্তবতা মোকাবেলায় বাজেটে প্রথাগত ধারণার প্রয়োগ করা হয়েছে। জানালেন, সিপিডির সম্মানীয় ফেলো ড. দেবপ্রিয় ভট্টাচার্য্য।

বাজেটে পরিবহন, বিদ্যুৎ ও অবকাঠামো খাতে বরাদ্দের পরিমাণ ভালো জানিয়ে সিপিডি বলছে, স্বাস্থ্য ও শিক্ষা খাতে আরো বেশী বরাদ্দ থাকা উচিত ছিলো। বাজেটে অর্থায়নের উৎস বাড়লেও তা কিভাবে ব্যায় হবে তার কোন সুস্পষ্ট ধারনা দেয়া হয়নি বলেই জানিয়েছে সংস্থাটি।

এছাড়া ব্যাংকিং খাতে যে অস্থিরতা রয়েছে তা সমাধানের জন্য তেমন কোন পদক্ষেপ বাজেটে নেয়া হয়নি বলেও মনে করে সিপিডি।

 

এই বিভাগের আরো খবর

বাস্তবায়নযোগ্য বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে: সংবাদ সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাস্তবায়নযোগ্য বাজেটই ঘোষণা করা হয়েছে, বললেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। বছর শেষে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হলেও বাজেট...

বাজেট বাস্তবায়নের দক্ষতা ও সাহস সরকারের রয়েছে: আওয়ামী লীগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার মত সক্ষমতা আছে বলেই সরকার বড় আকারের বাজেট পেশ করেছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক...

মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে রাখা কঠিন হবে: মনে করে সিপিডি

নিজস্ব প্রতিবেদক: আগামী অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটকে নবীন বাংলাদেমের জন্য প্রবীন বাজেট বলে মন্তব্য করেছে বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is