ঢাকা, রবিবার, ১৯ আগস্ট ২০১৮, ৪ ভাদ্র ১৪২৫

2018-08-18

, ৬ জিলহজ্জ ১৪৩৯

‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’এর প্রথম মুক্তি বাংলাদেশে

প্রকাশিত: ০৮:০৫ , ১৪ জুন ২০১৮ আপডেট: ০৮:০৫ , ১৪ জুন ২০১৮

বিনোদন ডেস্ক: সিনেমাপ্রেমীদের নানা রকম চমক দিয়ে আসছে দেশের প্রথম মাল্টিপ্লেক্স সিনেমা হল স্টার সিনেপ্লেক্স। সেই ধারা অব্যাহত রাখতে এবারের ঈদে যোগ হচ্ছে আরও একটি নতুন চমক।

সারাবিশ্বে সবার আগে বাংলাদেশে মুক্তি পাচ্ছে সাড়া জাগানো ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’ সিরিজের নতুন ছবি ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’। বাংলাদেশে মুক্তি পাবে ১৫ জুন। আর আন্তর্জাতিকভাবে ছবিটি মুক্তি পাবে ২২ জুন। 

ঈদ উপলক্ষে দেশের দর্শকদের এই চমকপ্রদ উপহার দিচ্ছেন স্টার সিনেপ্লেক্স কর্তৃপক্ষ।

স্টিভেন স্পিলবার্গ পরিচালিত কল্পবিজ্ঞান নিয়ে চলচ্চিত্র জুরাসিক পার্ক। মাইকেল ক্রিকটনের উপন্যাসের ওপর ভিত্তি করে নির্মিত এই চলচ্চিত্র ১৯৯৩ সালে মুক্তি পায়। বিপুল সাড়া জাগানো ছবিটি এ পর্যন্তপ্র্রায় ১০০০ মিলিয়ন ডলার আয় করেছে। চলতি বছর ‘জুরাসিক পার্ক’ সিনেমার ২৫ বছর পূর্তি হতে চলেছে।
১৯৯৭ সালে ‘দ্য লস্ট ওয়ার্ল্ড’ নামে জুরাসিক পার্ক এর দ্বিতীয় পর্ব মুক্তি পায়। ২০০১ সালে মুক্তি পায় ‘জুরাসিক পার্ক-থ্রি’। এরপর বড় একটা বিরতি দিয়ে ১৪ বছর পর ২০১৫ সালে মুক্তি পেয়েছিল জুরাসিক পার্ক সিরিজের নতুন সংস্করণ ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’। তিন বছর পরেও ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড’ ব্যবসার দিক দিয়ে এখনও বিশ্বে চতুর্থ অবস্থানে।

জুরাসিক ওয়ার্ল্ড এর প্রথম ছবির কাহিনি যেখানে শেষ হয়েছিল, ঠিক সেখান থেকেই শুরু হয়েছে ফলেন কিংডমের কাহিনি। ছবিটির কেন্দ্রীয় চরিত্র ওয়েন গ্রান্ডি এবং ক্লেয়ার ডিয়ারিং ফিরে যায় জুরাসিক পার্ক হিসেবে পরিচিত আইলা নুবলা দ্বীপে। এর আগের ছবিটিতে পার্কটি পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেলেও এখন পর্যন্ত সেখানে রয়ে গেছে প্রাগৈতিহাসিক যুগের কিছু প্রাণী। আগ্নেয়গিরির অগ্ন্যুৎপাত তাদের পুরোপুরি নিশ্চিহ্ন করে দিতে পারেনি। তাই তাদের বাঁচাতে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সেখানে পৌঁছান ওয়েন ও ক্লেয়ার। নানা প্রতিকূলতার সম্মুখীন হয় তারা। শ্বাসরুদ্ধকর সেই অভিযানের কাহিনি নিয়েই নির্মিত হয়েছে ‘জুরাসিক ওয়ার্ল্ড: ফলেন কিংডম’ ছবিটি।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is