ঢাকা, মঙ্গলবার, ২১ আগস্ট ২০১৮, ৬ ভাদ্র ১৪২৫

2018-08-20

, ৮ জিলহজ্জ ১৪৩৯

ফ্রান্সের হাতে আবারো বিশ্বকাপ

প্রকাশিত: ১১:৫৬ , ১৫ জুলাই ২০১৮ আপডেট: ১২:২২ , ১৬ জুলাই ২০১৮

ক্রীড়া প্রতিবেদক : শেষ হলো দুই দশকের অপেক্ষা। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে এক দল তরুণের হাত ধরে ফ্রান্স ফুটবলে আবারো ফিরে এলো নতুন বসন্ত। দ্বিতীয়বারে মতো বিশ্বকাপ জয় করে  নতুন রেঁনেসার আনন্দে উদযাপনে যেন কমতি রাখেনি এমবাপ্প্,ে পগবা  গ্রিজম্যানেরা। অধিনায়ক ও কোচ হিসেবেও বিশ্কাপ জয়ের রেকর্ড করলেন দিিিদংয়ে দেশম।  মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে নীল উৎসবে মাতলো লা ব্লুসরা। অন্যদিকে দারুণ খেলেও  ফরাসিদের অভিজ্ঞতার কাছে হার মানলো ক্রোয়েশিয়া।

তবে মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে দারুণ শুরু করে ক্রোয়েশিয়া। মস্কোর লুঝনিকি স্টেডিয়ামে ম্যাচের শুরু থেকে দাপট দেখায় ক্রোয়েটরা। মডরিচ, রাকিটিচ, পেরিসিচদের সৃষ্টিশীল ফুটবলে কোঠাসা হয়ে পড়ে লা ব্লুসদের ডিফেন্স। তবে, ম্যাচের ১৮ মিনিটে ক্রোয়েশিয়ার অ্যাটাকিং থার্ডে ফ্রি কিক পায় ফরাসিরা। গ্রিজম্যানের ফ্রি ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালে বল জড়ান ক্রোয়েশিয়ার ফরোয়ার্ড মানজুকিচ। ১-০ গোলের লিড নিয়ে আত্মবিশ্বাসী ফুটবল খেলতে শুরু করে ফ্রান্স। তবে ম্যাচে ফেরার চেষ্টায় সমানতালে লড়তে থাকে ক্রোয়েশিয়া। ২৮ মিনিটে পেরিসিচের গোলে সমতায় ফেরে দলটি। তবে সমতায় ফেরার আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। নিজেদের পেরেসিচের হ্যান্ডবলে পেনাল্টি ৩৮ মিনটে গ্রিজম্যান পেনাল্টি থেকে গোল করলে ২-১ ব্যবভদানের লিড নিয়ে বিরতিতে যায় ফ্রান্স।

ম্যাচে ফিরতে হলো বিরতির পরই গোল শোধ করতে হতো দালিচের দলকে। ক্রোয়েটদের প্রেসিং ফুটবলে আবারো দিশেহারা ফ্রেঞ্চ ডিফেন্স। ৪৮ মিনিটেই সমতায় ফিরতে পারতো ক্রোয়েটরা। রেবিজের শট পাঞ্চ করে দলকে রক্ষা করেন গোলরক্ষক লরিস। এরপরও আক্রমণের ঝড় তোলে ক্রোয়েট ফরোয়ার্ডরা

ম্যাচের ৫২ মিনিটে মাঠে দর্শক ঢুকে পড়লে কিছু সময়ের জন্য বন্ধ থাকে খেলা। ৫৯ মিনিটে ক্রোয়েট ডিফেন্সের ভুলের সুযোগে পগবর দারুণ ফিনিংশে ৩-১ গোলের লিড নেয় ফ্রান্স। এরপরই পাল্টে যায় ম্যাচের চেহারা।

এর ছয় মিনিট পর  তরুণ এমবাপ্পের গতির কাছে হার মানে ক্রোয়েট ডিফেন্ডার ভিদা। বা প্রান্ত থেকে বল পেয়ে দারুণ এক শটে ক্রোয়েশিয়াকে ম্যাচ থেকে ছিটকে দেন এই তরুণ ফরোয়ার্ড।

৪-১ গোলে এগিয়ে যাওয়ার পর দ্বিতীয় বিশ্বকাপ জয় যেন সময়ের ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায় ফ্রান্সের জন্য। তবে ৬৯ মিনিটে  ফরাস অধিনায়ক লরিসের ভুলের সুযোগে   ব্যবধান কমান মানজুকিচ।  ৪-২ গোলের লিড রেখে শেষ পর্যন্ত বিশ্বজয়ের আনন্দে মেতে উঠে ফ্রান্স। আগামী চার বছর বিশ্বকাপ ফুটবলের শাসনকর্তায় হয়ে থাকবে ফরাসিরা। ২০০২বিশ্বকাপের পর আবারো নির্ধারিত সময়ে  শেষ হলো ফাইনালে লড়াই।

 

এই বিভাগের আরো খবর

চমকে পরিপূর্ণ ছিল রাশিয়া বিশ্বকাপ

স্পোার্টস ডেক্স: বিশ্বকাপ ফুটবলের এবারের আসরের শুরুতে বোঝা যায়নি, অপেক্ষায় রয়েছে একগাদা চমক আর পরিবর্তনের ইঙ্গিত। আসর যত এগিয়েছে, একে একে...

বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স ফুটবল দলের রাজকীয় প্রত্যাবর্তন

স্পোর্টস ডেক্স: বিশ্বকাপ জয়ী ফ্রান্স ফুটবল দলকে রাজকীয় ভাবে বরণ করে নিলো  দেশবাসী। দেশে ফেরার পর তাদের বীরোচিত সংবর্ধনা দেয়া হয়। এদিকে...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is