ব্যবসায়ী হত্যা: রিমান্ডশেষে আজ আদালতে আনা হবে নাগরীকে

প্রকাশিত: ১০:০৬, ০৮ অক্টোবর ২০১৮

আপডেট: ১০:০৬, ০৮ অক্টোবর ২০১৮

বৈশাখী অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের ফ্ল্যাটে ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত কবি ও গীতিকার এবং সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তা শাহাবুদ্দীন নাগরীর পাঁচ দিনের রিমান্ডের গতকাল শনিবার ছিলো শেষদিন। আজ রোববার তাঁকে আদালতে হাজির করা হবে। সেখানে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিতে পারেন।

তিনি যদি আদালতে জবানবন্দী না দেন, তবে ফের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় এড়িয়ে যেতে চাইছেন বলে একটি জাতীয় পত্রিকার অনলাইন সংস্করণ সূত্রে জানা গেছে।  

পত্রিকাটি জানায়, শনিবার পর্যন্ত তিনি খুনের বিষয়ে মুখ খোলেননি। তবে তদন্তে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে নাগরীর জড়িত থাকার তথ্য পেয়েছে পুলিশ। সন্দেহের আওতায় আনা হয়েছে তাঁর কয়েকজন ব্যবসায়ী বন্ধুকে। তাঁরাও নাগরীর সঙ্গে নূরুল ইসলামের বাসায় গিয়ে তার স্ত্রী নূরানী আক্তার সুমীর সঙ্গে আড্ডা দিতেন।

পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদারের উদ্ধৃতি দিয়ে পত্রিকাটি জানায়, শাহাবুদ্দীন নাগরী ও সুমির পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছে। তাঁরা দোষ স্বীকার করেননি। তাঁদেরকে আদালতে পাঠিয়ে ফের রিমান্ডের আবেদন করা হতে পারে। নাগরী-সুমিসহ ওই ফ্ল্যাটের দারোয়ান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও চালক সেলিমের মাধ্যমে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। এসব তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ে ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যার রহস্য উন্মোচিত হবে।

সূত্র জানায়, অনৈতিক সম্পর্কে জড়িত থাকার তথ্য ফাঁস হওয়ায় নাগরী চিন্তিত থাকলেও সুমী জিজ্ঞাসাবাদে অনেকটা স্বাভাবিক। সুমী পরিচয় হওয়ার পর নাগরীর সঙ্গে কীভাবে গাঢ় সর্ম্পক গড়ে তোলেন তা জানিয়েছেন। নাগরীর কাছ থেকে বাসা ভাড়া, সংসার খরচ, কেনাকাটাসহ অনেক টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন সুমী। নূরুল ইসলামের ব্যবসায়িক মন্দা, দুর্ঘটনাসহ নানা কারণে সুযোগ নেন তিনি। স্বামী বাসা থেকে বের হলেই ফোনে নাগরীকে বাসায় ডেকে নিতেন তিনি। নাগরীও এই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছেন। তিনি মাঝে-মধ্যে ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের নিয়েও ওই বাসায় যেতেন। নাগরীর কয়েকজন ব্যবসায়ী বন্ধুর ওপর নজরদারি করছে পুলিশ।  

গত ১৩ এপ্রিল এলিফ্যান্ট রোডের ১৭০/১৭১ নম্বর ডোম-ইনো ভবনের একটি ফ্ল্যাটে রহস্যজনক মৃত্যু হয় নুরুল ইসলাম নামের একজনের। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করতে গিয়ে বুঝতে পারে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় নুরুল ইসলামের স্ত্রী সুমী ও সুমীর গাড়ি চালককে আটক করে পুলিশ। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে ঘটনার দিন ওই ফ্ল্যাটে ছিলেন কবি শাহাবুদ্দীন নাগরী। পরে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর নাগরীকে পাঁচ দিনের রিমাণ্ডে নেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

আবারও শপথ নিলেন হাইকোর্টের ১৮ বিচারপতি 

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্টের...

বিস্তারিত
১৫ জুন পর্যন্ত চলবে ভার্চ্যুয়ালি বিচারকাজ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা ভাইরাসের...

বিস্তারিত
হাইকোর্টের ১৮ বিচারপতির স্থায়ী নিয়োগ

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্টের...

বিস্তারিত
বগুড়ায় ১৭ টন চালসহ একজন আটক

বগুড়া সংবাদদাতা: বগুড়ার গাবতলীতে...

বিস্তারিত
করোনামুক্ত হলেন আরও ১৬১ পুলিশ

নিজস্ব প্রতিবেদক: করোনা আক্রান্ত আরও...

বিস্তারিত
করোনায় পুলিশ ইন্সপেক্টরের মৃত্যু

অনলাইন ডেস্ক: করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত...

বিস্তারিত
রাজশাহীতে করোনায় এক পুলিশের মৃত্যু

রাজশাহী সংবাদদাতা: রাজশাহীতে করোনা...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *