ঢাকা, সোমবার, ২০ মে ২০১৯, ৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-19

, ১৪ রমজান ১৪৪০

ব্যবসায়ী হত্যা: রিমান্ডশেষে আজ আদালতে আনা হবে নাগরীকে

প্রকাশিত: ১০:০৬ , ২৩ এপ্রিল ২০১৭ আপডেট: ১০:০৬ , ২৩ এপ্রিল ২০১৭

বৈশাখী অনলাইন ডেস্ক: রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের ফ্ল্যাটে ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যা মামলায় গ্রেপ্তারকৃত কবি ও গীতিকার এবং সাবেক কাস্টমস কর্মকর্তা শাহাবুদ্দীন নাগরীর পাঁচ দিনের রিমান্ডের গতকাল শনিবার ছিলো শেষদিন। আজ রোববার তাঁকে আদালতে হাজির করা হবে। সেখানে তিনি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দী দিতে পারেন।

তিনি যদি আদালতে জবানবন্দী না দেন, তবে ফের রিমান্ড চাইবে পুলিশ। জিজ্ঞাসাবাদে হত্যার দায় এড়িয়ে যেতে চাইছেন বলে একটি জাতীয় পত্রিকার অনলাইন সংস্করণ সূত্রে জানা গেছে।  

পত্রিকাটি জানায়, শনিবার পর্যন্ত তিনি খুনের বিষয়ে মুখ খোলেননি। তবে তদন্তে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে নাগরীর জড়িত থাকার তথ্য পেয়েছে পুলিশ। সন্দেহের আওতায় আনা হয়েছে তাঁর কয়েকজন ব্যবসায়ী বন্ধুকে। তাঁরাও নাগরীর সঙ্গে নূরুল ইসলামের বাসায় গিয়ে তার স্ত্রী নূরানী আক্তার সুমীর সঙ্গে আড্ডা দিতেন।

পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার (ডিসি) মারুফ হোসেন সরদারের উদ্ধৃতি দিয়ে পত্রিকাটি জানায়, শাহাবুদ্দীন নাগরী ও সুমির পাঁচ দিনের রিমান্ড শেষ হয়েছে। তাঁরা দোষ স্বীকার করেননি। তাঁদেরকে আদালতে পাঠিয়ে ফের রিমান্ডের আবেদন করা হতে পারে। নাগরী-সুমিসহ ওই ফ্ল্যাটের দারোয়ান, সিসি ক্যামেরার ফুটেজ ও চালক সেলিমের মাধ্যমে বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে। এসব তথ্য যাচাই-বাছাই করা হচ্ছে। আশা করছি দ্রুততম সময়ে ব্যবসায়ী নুরুল ইসলাম হত্যার রহস্য উন্মোচিত হবে।

সূত্র জানায়, অনৈতিক সম্পর্কে জড়িত থাকার তথ্য ফাঁস হওয়ায় নাগরী চিন্তিত থাকলেও সুমী জিজ্ঞাসাবাদে অনেকটা স্বাভাবিক। সুমী পরিচয় হওয়ার পর নাগরীর সঙ্গে কীভাবে গাঢ় সর্ম্পক গড়ে তোলেন তা জানিয়েছেন। নাগরীর কাছ থেকে বাসা ভাড়া, সংসার খরচ, কেনাকাটাসহ অনেক টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন সুমী। নূরুল ইসলামের ব্যবসায়িক মন্দা, দুর্ঘটনাসহ নানা কারণে সুযোগ নেন তিনি। স্বামী বাসা থেকে বের হলেই ফোনে নাগরীকে বাসায় ডেকে নিতেন তিনি। নাগরীও এই সুযোগকে কাজে লাগিয়েছেন। তিনি মাঝে-মধ্যে ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের নিয়েও ওই বাসায় যেতেন। নাগরীর কয়েকজন ব্যবসায়ী বন্ধুর ওপর নজরদারি করছে পুলিশ।  

গত ১৩ এপ্রিল এলিফ্যান্ট রোডের ১৭০/১৭১ নম্বর ডোম-ইনো ভবনের একটি ফ্ল্যাটে রহস্যজনক মৃত্যু হয় নুরুল ইসলাম নামের একজনের। পরে পুলিশ লাশ উদ্ধার করতে গিয়ে বুঝতে পারে তাকে হত্যা করা হয়েছে। এ সময় নুরুল ইসলামের স্ত্রী সুমী ও সুমীর গাড়ি চালককে আটক করে পুলিশ। তদন্তে নেমে পুলিশ জানতে ঘটনার দিন ওই ফ্ল্যাটে ছিলেন কবি শাহাবুদ্দীন নাগরী। পরে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর নাগরীকে পাঁচ দিনের রিমাণ্ডে নেওয়া হয়।

এই বিভাগের আরো খবর

মুক্তিযোদ্ধাদের বয়স নিয়ে পরিপত্র হাইকোর্টে অবৈধ ঘোষণা

নিজস্ব প্রতিবেদক : ১৯৭১ সালের ৩০ নভেম্বর পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধাদের ন্যূনতম বয়স ১২ বছর ৬ মাস নির্ধারণ করে জারি করা সংশোধিত পরিপত্র অবৈধ ঘোষণা...

বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার পরবর্তী শুনানি ১৯ জুন

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আদালতে হাজির না হওয়ায় বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠনের পরবর্তী শুনানি...

ঢাকার বায়ুদূষণ রোধের পদক্ষেপে আবারো অসন্তোষ হাইকোর্ট

নিজস্ব প্রতিবেদক: রাজধানীর বায়ুদূষণ রোধে সিটি করপোরেশনের পদক্ষেপে আবারো অসন্তোষ প্রকাশ করেছে হাইকোর্ট। মহানগরীতে বায়ু দূষণ, মশা নিধন,...

দুধে ক্ষতিকর উপাদান থাকা কোম্পানির তালিকা চায় হাইকোর্ট

দুধে ক্ষতিকর উপাদান থাকা কোম্পানিগুলোর তালিকা জমা দিতে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষকে একমাস সময় দিয়েছে হাইকোর্ট। সকালে বিচারপতি নজরুল ইসলাম...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is