ঢাকা, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫

2019-03-23

, ১৬ রজব ১৪৪০

নতুন ন্যূনতম মজুরি অন্যায্য : বিশ্লেষক ও শ্রমিক প্রতিক্রিয়া

প্রকাশিত: ০৫:৩৩ , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৫:৩৩ , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: তৈরী পোশাক শ্রমিকদের ন্যূনতম মজুরি প্রায় ৫১ শতাংশ বাড়ানো হলেও একে জীবনযাত্রার ব্যয় বৃদ্ধির তুলনায় অপ্রতুল বলে মনে করছেন শ্রমিকেরা। বিশ্লেষকরাও বলছেন, শ্রমিকের চাহিদা ও অর্থনৈতিক বাস্তবতা বিবেচনায় এই মজুরি অন্যায্য। শ্রমিক নেতা ও বিশ্লেষকরা বললেন, মজুরি বাড়ানোর সুবিধা কাজে লাগাতে হলে বাড়ি ভাড়া আইন প্রয়োগ ও দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রনে রাখতে হবে।

তৈরী পোশাক খাতের শ্রমিকদের জন্য সবশেষ ২০১৩ সালে ন্যূনতম মজুরি ঘোষণা করা হয়েছিল ৫ হাজার ৩’শ টাকা। প্রতি পাঁচ বছর পরপর মজুরি বাড়ানোর ধারাবাহিকতায় বৃহস্পতিবার ঘোষণা করা হয় নতুন নূন্যতম মজুরি। যার পরিমাণ ৮ হাজার টাকা। আগের তুলনায় যা ৫১ শতাংশ বেশি।

মজুরি বাড়ানোর এই উদ্যোগকে পোশাক শ্রমিকদের পক্ষ থেকে স্বাগত জানানো হলেও তারা বলছেন, নতুন ন্যূনতম মজুরি, প্রয়োজনের তুলনায় বেশ কম।

এদিকে, অর্থনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, ২০১৩ সাল থেকে ২০১৮ পর্যন্ত জাতীয় আয় বেড়েছে ৭৬ শতাংশ। ফলে নতুন ন্যূনতম মজুরি, তৈরী পোশাক শ্রমিকদের জন্য অন্যায্য।

তিনি বললেন, তৈরী পোশাক শিল্পের জন্য সরকার ইতোমধ্যে বিভিন্ন কর সুবিধা দিয়েছেন। নতুন এই মজুরি কাঠামোতেও শিল্প উদ্যোক্তারাই বেশি লাভবান হয়েছেন।

অর্থনৈতিক বিশ্লেষক ও শ্রমিক সংগঠনের প্রতিনিধিরা বলছেন, নতুন মজুরি কাঠামোর সুবিধা পুরোপুরি নিশ্চিত করতে চাইলে প্রয়োজন বাড়িভাড়া আইনের কঠোর প্রয়োগ ও দ্রব্যমুল্য নিয়ন্ত্রণে রাখা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

চলতি অর্থবছর শেষে জিডিপি ৮ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে : অর্থমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : চলতি অর্থবছর শেষে জিডিপির প্রবৃদ্ধি বেড়ে দাঁড়াবে ৮ দশমিক ১৩ শতাংশে, জানালেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।  । গতবছর...

সামাজিক নিরাপত্তা ব্যয় বাড়ানো ও আয় বৈষম্য কমানোর তাগিদ বিশ্লেষকদের

নিজস্ব প্রতিবেদক: বাংলাদেশকে একটি কল্যাণমূখী রাষ্ট্র হিসেবে গড়ে তুলতে হলে সামাজিক নিরাপত্তা খাতে ব্যয় বাড়ানোর পাশাপাশি আয় বৈষম্য কমানোর...

জাটকা সংরক্ষণ সপ্তাহ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক: ‘কোনও জাল ফেলবো না, জাটকা ইলিশ ধরবো না’ এই স্লোগান নিয়ে দেশের ইলিশ অধ্যুষিত ৩৬টি জেলায় শনিবার- ১৬ মার্চ থেকে শুরু হলো...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is