ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, ১ কার্তিক ১৪২৫

2018-10-16

, ৫ সফর ১৪৪০

বিলুপ্তির পথে ধামরাইয়ের ঐতিহ্যবাহী তামা-কাঁসা শিল্প

প্রকাশিত: ০৫:৫৪ , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৫:৫৪ , ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮

সাভার প্রতিনিধি : বিলুপ্তির পথে ঢাকার ধামরাইয়ের দুশ’ বছরের পুরনো তামা-কাঁসা শিল্প। বন্ধ হয়ে যাচ্ছে একের পর এক কারখানা। এই শিল্পের সাথে জড়িতরা বলছেন, এসব পণ্যের পরিবর্তে মানুষ এখন প্লাস্টিক ও অ্যালুমিনিয়ামের পণ্যের দিকে ঝুঁকে পড়েছে। তবে দেশের বাইরে তামা-কাঁসার মূর্তি ও তৈজসপত্রের চাহিদা থাকায় এখনো আশার আলো দেখছেন তারা। এজন্য সরকারি সহযোগিতা চাইছেন শতাব্দী প্রাচীন তামা-কাঁসা শিল্পের উদ্যোক্তারা।

একসময় কাঁসা পেটানোর টুংটাং শব্দে মুখরিত ছিল ঢাকার ধামরাইয়ের রথখোলা, পাঠানতলা ও যাত্রাবাড়িসহ অন্তত ২০টি পাড়া-মহল­া। এসব এলাকায় তামা ও কাঁসার তৈজসপত্র তৈরীর ৩শ’রও বেশী কারখানা থাকলেও বর্তমানে সেই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে মাত্র ৫টিতে। দুশ’ বছরের পুরনো এই শিল্প এখন অনেকটাই বিলুপ্তির পথে।

ঐতিহ্যবাহী এই শিল্পের সাথে জড়িতরা বলছেন, প্লাস্টিক ও অ্যালুমিনিয়াম পণ্যের দাম কম ও সহজলভ্য হওয়ায় কাঁসা ও তামার তৈজসপত্রের কদর কমে গেছে।

এদিকে, কাঁসা ও তামার তৈজসপত্র তৈরীতে ব্যবহৃত কাঁচামালের দামও দিন দিন বাড়ছে। এমন বাস্তবতায় এই শিল্পকে টিকিয়ে রাখতে সহজ শর্তে ব্যাংক ঋণের পাশাপাশি সরকারের নীতিসহায়ক ভূমিকা চাইলেন এর সাথে জড়িতরা।

শতবর্ষী তামা-কাঁসা শিল্পকে বাঁচিয়ে রাখতে সহায়ক পদক্ষেপ নেবার আশ্বাস দিলেন স্থানীয় পৌরসভার মেয়র।

দেশে তামা-কাঁসার তৈজসপত্রের চাহিদা কমে গেলেও বিদেশে এসব ধাতুর তৈরী বিভিন্ন মূর্তির বেশ চাহিদা রয়েছে। সেই সম্ভাবনা বিবেচনায় নিয়ে ভবিষ্যত পরিকল্পনার তাগিদ দিলেন সংশ্লিষ্টরা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

রাজশাহীতে পুলিশ পেটানো মামলার আসামি গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার

রাজশাহী প্রতিনিধি: রাজশাহীতে পুলিশ পেটানো মামলার এক আসামিকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় গ্রেপ্তার করা হয়েছে। গুলিবিদ্ধ জার্জিস বোয়ালিয়া থানার...

দুই জেলায় গোলাগুলিতে চরমপন্থী নেতা-মাদক ব্যবসায়ী নিহত

ডেস্ক প্রতিবেদন : টাঙ্গাইলে র‌্যাবের সাথে গোলাগুলিতে শরিফ ওরফে ফরহাদ নামের চরমপন্থী দলের এক নেতা নিহত হয়েছেন। তিনি পূর্ব বাংলা কমিউনিস্ট...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is