ঢাকা, বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, ৫ পৌষ ১৪২৫

2018-12-19

, ১০ রবিউস সানি ১৪৪০

সমুদ্রের গভীরে নতুন প্রজাতির মাছের সন্ধান

প্রকাশিত: ০১:০৮ , ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০১:০৮ , ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮

তথ্যপ্রযুক্তি ডেস্ক: এই পৃথিবীতে কত প্রজাতির প্রাণী রয়েছে তা ঠিক করে বলা অসম্ভব। এমন সব আশ্চর্য প্রাণীর সন্ধান পাওয়া যাচ্ছে দিন দিন যাদের অস্তিত্ব আগে করো জানা ছিল না। আবার অনেক প্রাণী বিলুপ্ত হয়ে গেছে, আবার অনেক বিলুপ্তির পথে। নতুন প্রজাতির তালিকায় সাম্প্রতিক সংযোজন হলো এক অদ্ভুত মাছ। আপাতত তার নাম রাখা হয়েছে আটাকামা স্নেইল ফিশ।

এ এমন এক মাছ যার শরীর অদ্ভুত স্বচ্ছ। শরীরে কাঁটার সংখ্যাও নগণ্য। সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে ২৬ হাজার ফুট নিচে এদের বাস। গবেষকদের দাবি, এরা সমুদ্রের সবচেয়ে গভীরে বসবাসকারী মাছেদের অন্যতম। এদেরই গোত্রের আর এক ধরনের স্নেইল ফিশ মেরিয়ানাস স্নেইল ফিশ। এরা বাস করে ২৬,৬০০ ফুট নিচে।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘কোয়ার্টজ’-এ প্রকাশিত এক প্রতিবেদন থেকে জানা যাচ্ছে, নিউ ক্যাসল ইউনিভার্সিটি আয়োজিত ২০১৮ চ্যালেঞ্জার কনফারেন্স নামের একটি সম্মেলনে এই মাছটির কথা সকলকে জানানো হয়। সারা পৃথিবীতে ৪০০-রও বেশি স্নেইল ফিশের প্রজাতি রয়েছে। কিন্তু এই আটাকামা স্নেইল ফিশ সত্যিই আলাদা।

নিউ ক্যাসল ইউনিভার্সিটির গবেষক থমাস লিনলে জানিয়েছেন, এই মাছ খুবই নরম। দাঁত আর কানের ভিতরে থাকা হাড়, যার সাহায্যে এরা দেহের ভারসাম্য রক্ষা করে সেই দু’টি অংশ সবচেয়ে কঠিন।

পৃথিবীর গভীর তলদেশে বাস করা এই মাছেরা মোটামুটি তিন রংয়ের হয়। নীল, গোলাপি ও পার্পল। তাদের এই নরম শরীরই তাদের প্রতিবন্ধক হয়ে ওঠে সমুদ্রের উপরে। দেখা গিয়েছে, সমুদ্রপৃষ্ঠে আনা হলে সেখানকার তাপমাত্রায় এরা গলে যায়! আপাতত বিজ্ঞানীরা একটি মাছকে আলাদা করে সংরক্ষণ করেছেন। সেটিকে বাঁচানো না গেলেও, তার শরীরকে গলে যাওয়া থেকে আটকানো হয়েছে। সেটিকে নিয়ে গবেষকরা পরীক্ষা করে দেখছেন।

এই বিভাগের আরো খবর

চার্জ ফুরাবেনা ব্যাটারির!

ডেস্ক প্রতিবেদন: বর্তমানে বাজারে বেশিরভাগ ব্যাটারি সাধারণত লিথিয়াম আয়নভিত্তিক। তাই একবারে খুব বেশি চার্জ ধরে রাখতে পারে না।...

চিতার চেয়ে ৫ গুণ দ্রুততম যে প্রাণী

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: পৃথিবীর দ্রুততম প্রাণী চিতা বলেই জানে সবাই। কিন্তু চিতার চেয়েও প্রায় পাঁচ গুণ দ্রুততম এক প্রণীর সন্ধান দিলেন...

সৌরজগৎ পার করল ‘ভয়েজার-২’

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি ডেস্ক: ৪১ বছর পর ইন্টারস্টেলার স্পেসে ঢুকতে পেরেছে যুক্তরাষ্ট্রের মহাকাশ গবেষণা প্রতিষ্ঠান নাসার তৈরি নভোযান...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is