ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২২ আগস্ট ২০১৯, ৭ ভাদ্র ১৪২৬

2019-08-21

, ১৯ জিলহজ্জ ১৪৪০

বন্যায় নষ্ট হাওর অঞ্চলে সাড়ে ৩ লাখ হেক্টর জমির ধান, মরেছে ১৩০০ মেট্রিক টন মাছ

প্রকাশিত: ০৩:২৭ , ২৫ এপ্রিল ২০১৭ আপডেট: ০৩:২৭ , ২৫ এপ্রিল ২০১৭

বৈশাখী অনলাইন ডেস্ক: অসময়ের বন্যা, টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে সিলেট, মৌলভীবাজার, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, নেত্রকোণা ও কিশোরগঞ্জ জেলার হাওর অঞ্চলে প্রায় সাড়ে তিন লাখ হেক্টর জমির বোরো ধান নষ্ট হয়েছে। মারা গেছে প্রায় তেরশ মেট্রিক টন মাছ।

পচে যাওয়া ধান থেকে সৃষ্ট অ্যামোনিয়া ও মিথেন গ্যাস ছড়ানোর কারণেই পানি দূষিত হয়ে হাঁস, মাছ ও অন্যান্য জলজ প্রাণী মারা গেছে বলে জানান বিশেষজ্ঞরা। ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ও জেলেদের পুনর্বাসনে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়েছে সরকার। 

কৃষি সম্প্রসারণ, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও মৎস্য অধিদপ্তরের তথ্যমতে, এসব এলাকার হাওর অঞ্চলে তিন লাখ ৩০ হাজার হেক্টর জমির বেরো ধান পানিতে ডুবে গেছে। পানি  দূষিত হওয়ায় মারা গেছে ১,২৭৬ মেট্রিক টন মাছ, ৩,৮৪৪টি হাঁস। 

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উদ্ভিদ বিজ্ঞান বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ আজমুল হোসেন ভুঁইয়া এবং ভুগোল ও পরিবেশ বিভাগের চেয়ারম্যান ড.  মো. আবদুর রব অভিমত ব্যক্ত করেন যে,  হাওরের পানিতে অক্সিজেনের অস্বাভাবিক ঘাটতি এবং অ্যামোনিয়া ও মিথেন গ্যাস বৃদ্ধির কারণেই মাছসহ বিভিন্ন জলজ প্রাণী মরে গেছে।

এদিকে, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. রিয়াজ আহমেদ জানান, আগাম বন্যায় এই ৬ জেলার প্রায় সাড়ে তিন লাখ পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদের মধ্যে ৭৪,৬২৬ জনই মৎস্যজীবী। ক্ষতিগ্রস্তদের আর্থিক অনুদান  প্রদান ও পুনর্বাসনে দীর্ঘমেয়াদি উদ্যোগ নিয়েছে সংশ্লিষ্ট দপ্তরগুলো।
 
স্বাস্থ্য, শিক্ষা, বাসস্থান ও রাস্তাঘাটসহ সার্বিক ক্ষতির হিসাব করতে মাঠ পর্যায়ে কাজ চলছে বলেও জানান তিনি। 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is