ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০১৯, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

2019-05-23

, ১৮ রমজান ১৪৪০

যুক্তরাষ্ট্রে আঘাত হেনেছে হারিকেন মাইকেল

প্রকাশিত: ০২:১৩ , ১১ অক্টোবর ২০১৮ আপডেট: ০২:১৪ , ১১ অক্টোবর ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডায় ২৫০ কিলোমিটার বেগে আঘাত হেনেছে হারিকেন মাইকেল। এর আগে মধ্য আমেরিকার ইউকাতান উপদ্বীপ ও পশ্চিম কিউবায় হারিকেন মাইকেলের প্রভাবে ব্যাপক বাতাস ও বৃষ্টিতে আকস্মিক বন্যা ও ভূমিধসে ১৩ জনের প্রাণহানি ঘটে। এ ব্যাপারে মিয়ামিভিত্তিক হারিকেন কেন্দ্র জানিয়েছে, মধ্য আমেরিকার ইউকাতান ও পশ্চিম কিউবায় আঘাতের সময় মাইকেলের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১৩০ কিলোমিটার। বুধবার- ১০ অক্টোবর বাংলাদেশ সময় দিবাগত রাত ১২টায় শক্তিশালী হারিকেন মাইকেল ফ্লোরিডায় আঘাত হানে। ক্যাটেগরি ৩ মাত্রার ঘূর্ণিঝড়ের গতিবেগ ঘণ্টায় ২শ’ কিলোমিটার। উপকূল ভাগে আসার সময় তার বেগ বেড়ে ২৫০ কিলোমিটার হয়েছে।
ইতোমধ্যে ফ্লোরিডার ৩ লাখ ৭০ হাজার লোককে উঁচু স্থানে সরিয়ে নেয়ার আদেশ জারি করা হয়েছে। এছাড়া ফ্লোরিডা, আলাবামা ও জর্জিয়ায়ও জরুরি অবস্থা ঘোষণা করা হয়েছে।
কয়েকদিন আগে হন্ডুরাস উপকূলের উত্তরে হারিকেন মাইকেলের সৃষ্টি হয়। বর্তমানে এটি সাফির-সিম্পসন উইন্ড স্কেলে পাঁচ মাত্রার মধ্যে এক মাত্রার ঝড় হিসেবে রয়েছে। তবে ফ্লোরিডায় এটি তিন মাত্রার হারিকেন হিসেবে আঘাত হেনেছে। বলা হচ্ছে, এটি ফ্লোরিডায় গত এক দশকের মধ্যে সবচেয়ে শক্তিশালী ঝড়।
মিয়ামি ভিত্তিক ন্যাশনাল হারিকেন সেন্টারের (এনএইচসি) বুলেটিনে বলা হয়, মাইকেল হারিকেনের গতিবেগ বেড়ে ক্যাটেগরি ৪-এ রূপ নিয়েছে। ফ্লোরিডার কোথাও কোথাও ১২ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কা রয়েছে। এটি স্থলে আঘাত হানার পর দুর্বল হয়ে দক্ষিণ-পূর্ব দিকে অগ্রসর হবে। এ ঝড়ের কারণে ৩শ’ মাইল উপকূল এলাকা ঝুঁকির সম্মুখীন হয়েছে।
ফ্লোরিডার গভর্নর রিক স্কট মাইকেলকে এক দানবীয় ঝড় বলে আখ্যায়িত করেছেন। এই এলাকার স্কুল ও অফিসগুলো এ সপ্তাহে বন্ধ রাখা হয়েছে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত মঙ্গলবার সাংবাদিকদের বলেন, আসন্ন হ্যারিকেন মোকাবেলার জন্য আমরা ভালোভাবে প্রস্তুত।’
মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, এই ঝড়টি ফ্লোরিডার উপসাগরীয় উপকূলের মেক্সিকো সৈকত উত্তর-পশ্চিমে ভূমিধ্বনি তৈরি করে এবং ১০০ বছরের মধ্যে এই অঞ্চলে বড় ঝড় হিসেবে আঘাত হানে।
ফ্লোরিডা গভর্নর রিক স্কট বলেন, এই ঝড় "অসম্ভাব্য বিধ্বংসী" নাগরিকদের সতর্ক করা হয়েছে। এর আগে সপ্তাহান্তে তুষারপাত ও বন্যার ফলে মধ্য আমেরিকায় অন্তত ১৩ জন প্রাণ হারিয়েছেন।

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is