ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২১ মার্চ ২০১৯, ৭ চৈত্র ১৪২৫

2019-03-21

, ১৪ রজব ১৪৪০

সাংবাদিক খাসোগির লাশ টুকরো করা হয়

প্রকাশিত: ০১:৩৫ , ১৭ অক্টোবর ২০১৮ আপডেট: ০৪:২০ , ১৮ অক্টোবর ২০১৮

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তুরস্কে নিখোঁজ সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার পর তাঁর লাশ টুকরো টুকরো করা হয়েছে। তুরস্ক সরকারের উচ্চপদস্থ এক কর্মকর্তার বরাতে দিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের গণমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী সৌদি সাংবাদিক খাসোগি বেঁচে নেই। তাঁকে হত্যার পর তাঁর লাশ টুকরো টুকরো করে ফেলা হয়েছে। 

সৌদি আরবের সর্বোচ্চ গোয়েন্দা বাহিনী ‘জেনারেল ইন্টেলিজেন্স প্রেসিডেন্সি’র উচ্চপদস্থ একজন কর্মকর্তার তত্ত্বাবধানে একটি দল ইস্তাম্বুলে খাসোগিকে জিজ্ঞাসাবাদ এবং অপহরণের ঘটনায় জড়িত ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। এ ঘটনায় সংশ্লিষ্ট তিনজনের বরাত দিয়ে এসব কথা জানায় সিএনএন।

ওই উচ্চপদস্থ গোয়েন্দা কর্মকর্তা সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানেরও ঘনিষ্ঠজন বলে জানায় সিএনএন। তবে যুবরাজ সাংবাদিক খাসোগিকে জিজ্ঞাসাবাদের বিষয়টি সরাসরি অনুমোদন দিয়েছিলেন কিনা তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

সিএনএন বলছে, নামের আদ্যক্ষর দিয়ে ‘এমবিএস’ নামে পরিচিত প্রতাপশালী সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের ইশারা ছাড়া সাংবাদিক খাসোগি হত্যার এই ঘটনা ঘটানো সম্ভব নয়।

এ ঘটনায় সবাই সৌদি প্রশাসনকে দুষলেও, বাস্তবে কী হয়েছে সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানেন না বলে দাবি করেছেন সৌদির প্রভাবশালী যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমান। মঙ্গলবার এক টুইট বার্তায় যুবরাজের এই দাবির কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

মোহাম্মদ বিন সালমানের সঙ্গে ফোনালাপ নিয়ে এক টুইটে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প লিখেছেন, অতি দ্রুততার সঙ্গে খাসোগি নিখোঁজের ঘটনায় বিস্তারিত এবং পূর্ণাঙ্গ তদন্ত চান সৌদি যুবরাজ।

এদিন বার্তা সংস্থা এপিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে ট্রাম্প সৌদি আরবের পক্ষ নিয়ে বলেন, ‘খাসোগি ইস্যুতে নিরপরাধ প্রমাণিত না হওয়া পর্যন্ত সবাই সৌদি আরবকেই দোষী সাব্যস্ত করছে।’ এর আগে মার্কিন সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম দাবি করেছিলেন,  যুবরাজের ইশারাতেই হত্যা করা হয়েছে সৌদি আরবের এই সাংবাদিককে।

ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেট ভবনে তুর্কি পুলিশ তল্লাশি চালানোর পর তুর্কি সরকার সাংবাদিক খাসোগি হত্যাসহ লাশ টুকরো টুকরো করার বিষয়গুলো জানতে পেরেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। সোমবার বিকেলে কনস্যুলেট ভবনে ঢুকে মঙ্গলবার সকালে সেখান থেকে বের হন তুরস্কের পুলিশ সদস্যরা।

তুরস্ক সরকারের গোয়েন্দা কর্মকর্তারা এর আগে জানায়, ১৫ সদস্যের একটি দল খাসোগি হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করতে সৌদি আরব থেকে তুরস্কে প্রবেশ করে। তাদের মধ্যে একজন ফরেনসিক বিশেষজ্ঞও ছিলেন বলে জানা যায়।

এই বিভাগের আরো খবর

নারী দিবসে বৈশাখীর বিশেষ আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদক : প্রতি বছরের মত এবারও বর্ণাঢ্য আয়োজনে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন করেছে বৈশাখী পরিবার। এ উপলক্ষে বৈশাখী টেলিভিশন...

জঙ্গির মতো মাদক নির্মূলেও সরকার বদ্ধপরিকর: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক: জঙ্গির মতো মাদক নির্মূলেও সরকার বদ্ধপরিকর বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জমান খান কামাল। শনিবার দুপুরে,...

বাংলাদেশের গণমাধ্যম অনেক দেশের তুলনায় স্বাধীন : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক : বাংলাদেশের গণমাধ্যম পৃথিবীর অনেক দেশের থেকেই বেশী স্বাধীন, বললেন তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদ। তিনি বলেন, সংবাদে অসত্য...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is