ঘুরে আসুন মেঘের রাজ্য নীলগিরি

প্রকাশিত: ০৭:৩০, ০৬ নভেম্বর ২০১৮

আপডেট: ০৭:৩০, ০৬ নভেম্বর ২০১৮

ডেস্ক প্রতিবেদন: প্রকৃতির এক অনন্য দান বান্দরবানের নীলগিরি। যেখানে গেলে দেখতে পারবেন মেঘ আর পাহাড়ের মিতালী। যেখানে মেঘেরা আপন থেকে ছুঁয়ে যাবে আপনাকে। মাথার উপর নীল আকাশে সাদা মেঘের ভেলা খেলা করে নীলগিরি পাহাড়ে। অপরূপ সৌন্দর্যের এক সৃষ্টি নীলগিরি। নীলগিরির কারণে বান্দরবানকে বাংলাদেশের দার্জিলিং বলা হয়। শীতকাল এবং বর্ষাকাল দুই ঋতুতেই এখানে ভ্রমণে অনেক বেশি আনন্দ।

সমুদ্রপৃষ্ট থেকে ২২০০ ফুট উপরে অবস্থিত এই ভ্রমণ স্পটটি বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক নির্মিত এবং পরিচালিত হয়।  এখানে গড়ে তোলা হয়েছে আকাশ নীলা, মেঘদূত, নীলাতানা নামে পর্যটকদের জন্য সকল সুবিধা সম্বলিত তিনটি কটেজ। কটেজগুলো রাত্রি যাপনের জন্য ভাড়া পাওয়া যায় এক হাজার থেকে আড়াই হাজার টাকার মধ্যে। রয়েছে অত্যাধুনিক একটি রেস্টুরেন্টও। পাহাড়ি পথ পেরিয়ে নীলগিরিতে পৌঁছেই রেস্টুরেন্টে পেট পুরে খাওয়া যায়।

নীলগিরির চূড়া থেকে দেশের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ পাহাড় কেওক্রাডং, প্রাকৃতিক আশ্চার্য বগালেক, কক্সবাজারের সমুদ্র, চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরের আলো-আঁধারি বাতি এবং চোখ জুড়ানো পাহাড়ের সারি দেখতে পাওয়া যায়।   

যা দেখবেন:
চারদিকে শুধু পাহাড় আর পাহাড়। দু চোখ যেদিকে যায় শুধু সবুজ আর সবুজ। নীলগিরি যেন প্রকৃতির এক অনন্য উপহার। শুষ্ক মৌসুমে এখানে থেকে সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত দেখা যায়। আর বর্ষা মৌসুমে নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্র থেকে মেঘ ছোঁয়ার দূর্লভ সুযোগ রয়েছে। এডভেঞ্চার প্রিয়দের জন্য রাতের নীলগিরি হতে পারে উৎকৃষ্ট স্থান। কারণ, রাতে চারিদিকের হরিণ, শিয়ালসহ বিভিন্ন বন্য প্রাণির ডাক আর পাহাড়গুলোর আলো-আঁধারির রহস্যময় খেলা দেখতে পাবেন। এছাড়াও দেখতে পাবেন বান্দরবানের উপর দিয়ে বয়ে চলা সর্পিল সাঙ্গু নদীর অপরূপ সৌন্দর্য।
 
নীলগিরি যাওয়ার পথে আরও দেখবেন বান্দরবানের অপার সৌন্দর্যময় শৈলপ্রপাত।  এর পরই দেখা মিলবে আরেক  চমৎকার জায়গা স্বপ্নচূড়া। বাংলার দার্জিলিং খ্যাত চিম্বুক পাহাড় রয়েছে এরপরেই।
 

কিভাবে যাবেন:
ঢাকা থেকে ভাল মানের চেয়ারকোচ প্রতিদিন বান্দরবানের উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়।  পর্যটকদের নীলগিরি যেতে হলে বান্দরবান এসে সেখান থেকে জেলা সদরের রুমা জীপষ্টেশন থেকে থানছিগামী জীপ অথবা বাসে করে নীলগিরি পর্যটন কেন্দ্রে যেতে হবে। বান্দরবন জীপ ষ্টেশন থেকে জীপ, ল্যান্ড রোভার, ল্যান্ড ক্রুজারসহ অন্যান্য হালকা গাড়ী ভাড়ায় পাওয়া যায়।  
 
কোথায় থাকবেন :
বান্দরবানে থাকার জন্য অসংখ্য রিসোর্ট, হোটেল, মোটেল এবং রেস্টহাউজ রয়েছে। যেখানে ৬০০ থেকে তিন হাজার টাকায় রাত্রিযাপন করতে পারবেন।

এই বিভাগের আরো খবর

ঐতিহাসিক পানাম নগরীর ইতিহাস 

অনলাইন ডেস্ক: পৃথিবীর ১০০টি...

বিস্তারিত
নৈসর্গিক পূণ্যভূমির দেশ ভুটান

অনলাইন ডেস্ক: দক্ষিণ এশিয়ার...

বিস্তারিত
মাধবপুর লেক

অনলাইন ডেস্ক: উচ্চ পাহাড়ের মাঝখানে...

বিস্তারিত
শীতে নিরাপদে সিকিম ঘুরে আসুন 

ভ্রমন ডেস্ক: এনআরসি ইস্যুতে উত্তাল...

বিস্তারিত
ময়না দ্বীপ ভ্রমন

ডেস্ক প্রতিবেদন: ব্রহ্মপুত্র নদীতে...

বিস্তারিত
কাপ্তাই পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্র

ডেস্ক প্রতিবেদন: দেশের একমাত্র পানি...

বিস্তারিত
বাংলাদেশে নিউজিল্যান্ড পাড়া

ভ্রমণ ডেস্ক: শুনে অবাক লাগছে? অবাক করা...

বিস্তারিত
হিমছড়ি পর্যটন কেন্দ্র

ডেস্ক প্রতিবেদন: হিমছড়ি পর্যটন...

বিস্তারিত

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

মন্তব্য প্রকাশ করুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রচার করা হবে না. প্রয়োজনীয় ক্ষেত্রগুলি চিহ্নিত করা আছে *