ঢাকা, শনিবার, ২৩ মার্চ ২০১৯, ৯ চৈত্র ১৪২৫

2019-03-23

, ১৬ রজব ১৪৪০

আলোচনায় ২০১৪ সালের নির্বাচন ও আগুন সন্ত্রাস

প্রকাশিত: ০৮:৫৪ , ০৭ নভেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০২:১৪ , ০৭ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: বিগত ২০১৪ সালে বিএনপির জাতীয় নির্বাচন বয়কট, নির্বাচন ঠেকানোর জন্য ভয়াবহ সন্ত্রাসÑ এবারের ঢাকা বিভাগীয় ভোটের মাঠে আলোচনার বড় বিষয়গুলোর একটি। আর সে কারণেই কিছু আতংক আছে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে এবারের জাতীয় নির্বাচনের আগে। পাশাপাশি নানা নির্বাচনী আসনে যেমন পৃথক পৃথক ভোটের অংক রয়েছে, তেমনি এই অঞ্চলের ক্ষুদ্র জাতি গোষ্ঠীদের এলাকায় ভোটের হিসেবে আছে একবারেই অন্যরকম  চর্চা।

নির্বাচন মানে উৎসব, কোলাহলপূর্ণ এক পরিবেশ। মিছিল মিটিংয়ে দিনরাত সরগরম থকে এলাকা। নেতার কাছে রাজনৈতিক দলের কর্মীদের কদর বাড়ে। তবে এসবের মাঝেও আছে আতঙ্কের ছায়া। নির্বাচনোত্তর সহিংসতার আশঙ্কাও থাকে অনেকের মাঝে। তাই আগে থেকেই নানা কিছু ভাবছে এক শ্রেনীর ভোটাররা।  

ময়মনসিংহের হালুয়াঘাটে ক্ষুদ্র জাতিগোষ্ঠী গারোদের অধ্যূষিত এলাকায় কথা হয় তাদের এক স্থানীয় দলনেতার সাথে। গারো পাহাড়ের পাদদেশের এই মানুষগুলো খুব সহজ সাবলিল ভাবেই জানালেন এখনো তারা তাদের দলনেতার সিদ্ধান্তেই সবাই ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। সম্মিলিত সিদ্ধান্তের মাধ্যমে ভোট দেয়াকে তারা চিরায়ত চর্চা বলে সম্মান করেন সেই সিদ্ধান্তকে।

নির্বাচন নিয়ে ইতিমধ্যে মিছিল মিটিংয়ে সরগমর অনেক ভোটের মাঠ। নিয়মিত গণসংযোগ করে যাচ্ছেন মনোনয়ন প্রত্যাশীরা। বিভিন্ন আসনে বর্তমান এমপিদের চাপে রেখেছে দলের তরুণ নেতারা। নিয়মিত গণসংযোগে তরুণদের দলে ভেড়ানোর পাশাপাশি তমুল প্রতিদ্বন্দ্বিতা চলছে ক্ষমতাসীন দলের মনোনয়ন পাওয়ার।

এদিকে মাঠে এখনও কোন ভাবেই দাঁড়াতে না পারলেও সুষ্ঠু নির্বাচন হলে জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী এক দশকের বেশী ক্ষমতার বাইরে থাকা বড় রাজনৈতিক দল বিএনপি। টাঙ্গাইল জেলা বিএনপির এই নেতা জানালেন তাদের নিজস্ব মাঠ জরিপসহ প্রতিটি আসনের জন্য দলের প্রার্থীও প্রস্তুত আছে। এখন শুধু অপেক্ষা নির্বাচনে যাওয়া নিয়ে দলের সিদ্ধান্ত ও সুষ্ঠু নির্বাচনের।

এদিকে পেশাজীবী নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিরা বলছেন, এখনো মাঠে না থাকলেও কোন ভাবেই এবার নির্বাচন বয়কট করার সিদ্ধান্ত বিএনপির জন্য বড় ভুল হবে। জনগণের প্রতি আস্থা রেখে নির্বাচনের মাধ্যমে সরকারি দলকে মোকাবেলা করার আহ্বান জানান তারা।

দলের মনোনয়ন পেতে নিজের শক্তি ও সমর্থন প্রদর্শন করতে বিপুল সংখ্যাক নেতাকর্মীদের নিয়ে আগ্রহী প্রার্থীরা গণসংযোগ করে গেলেও শেষ পর্যন্ত প্রর্থীতার ব্যাপারে দলীয় সিদ্ধান্ত মেনে নেওয়ার বিষয়েও একমত হতে পারবেন বলে জানালেন এই নেতারা।

 

এই বিভাগের আরো খবর

বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পর পাল্টাতে থাকে রাজনীতির দৃশ্যপট

নিজস্ব প্রতিবেদক: আদর্শিক লড়াইয়ের জায়গায় বৈষয়িক প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি বড় হয়ে উঠতে থাকলে এক সময় ছাত্র রাজনীতি ও আন্দোলন স্বাধীন বাংলাদেশে পথ...

ছাত্রদের টার্গেট করে হত্যা নির্যাতন চালায় পাকিস্তানীরা

নিজস্ব প্রতিবেদক: ঢাকা অঞ্চল কেন্দ্রিক ছাত্র রাজনীতি ও আন্দোলন স্বাধীনতার কেন্দ্রীয় সংগ্রামকে সরাসরি শক্তিশালী করেছে। একাত্তরের...

স্বাধীনতার সশস্ত্র সংগ্রামের নেতৃত্ব ছিল ছাত্র সমাজের হাতে

নিজস্ব প্রতিবেদক: আবারও আলোচনায় ছাত্র রাজনীতি। কারণ, কিছুদিন পরই দেশের দ্বিতীয় সংসদ খ্যাত ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসু...

ছাত্রসংসদ চালু হলে এখানে বন্ধ হবে হানাহানির রাজনীতি

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্রিটিশ বিরোধী অন্দোলন থেকে শুরু করে মুক্তিযুদ্ধ ও সর্বশেষ স্বৈরাচার বিরোধী অন্দোলনে সিলেট বিভাগের ছাত্রনেতারা কাঁধে...

সিলেটের ছাত্র রাজনীতিতেও ঢুকে পড়েছে সুবিধা আদায়ের কৌশল

নিজস্ব প্রতিবেদক: ব্রিটিশ বিরোধী আন্দোলন থেকে পাকিস্তান প্রতিষ্ঠা, তৎপরবর্তীতে পাকিস্তান বিরোধী আন্দোলনের মধ্য দিয়ে বাংলাদেশের জন্ম এবং...

ডাকসু নির্বাচন আশা জাগিয়েছে সিলেটের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে

নিজস্ব প্রতিবেদক: ডাকসু নির্বাচনের পুনরুজ্জীবন চাঞ্চল্য ও আশা জাগিয়েছে সিলেট অঞ্চলের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে। সেখানের অকেজো...

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is