ঢাকা, বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫

2018-11-21

, ১২ রবিউল আউয়াল ১৪৪০

সংসদ না ভেঙ্গে নির্বাচন কমিশনের জন্য চ্যালেঞ্জ

প্রকাশিত: ০৯:০৫ , ০৯ নভেম্বর ২০১৮ আপডেট: ০৯:০৫ , ০৯ নভেম্বর ২০১৮

নিজস্ব প্রতিবেদক: তফসিল ঘোষণা পেছাতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোটের দাবির মধ্যেই নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করায় কোন সংকট হবে না বলে মনে করেন বিশ্লেষক ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা। রাজনীতির মাঠে নিজেদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতে নির্বাচনে সকল দল অংশগ্রহণ করবে বলেই ধারণা করছেন তারা। তবে সংসদ না ভেঙ্গে নির্বাচন করা কমিশনের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। সেই সাথে সেনাবাহিনীকে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে না রেখে পেট্রল ফোর্স হিসেবে কাজ করানোর পরামর্শ দেন তারা।

আগামী ২৩ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় নির্বাচনের দিন ধার্য করে বৃহস্পতিবার তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। যদিও বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও জোটের দাবি ছিলো তফসিল ঘোষণা পিছিয়ে দেয়ার। এমন বাস্তবতায় তফসিল ও নির্বাচন নিয়ে সকল মহলেই চলছে আলোচনা।

নির্বাচন বিশ্লেষক ও পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, তফসিল ঘোষণার প্রেক্ষিতে বিতর্ককে ঘিরে নির্বাচন ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। রাজনৈতিক দল হিসেবে অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখতেই ভোটে সকল দল অংশ নেবে। তবে সংসদ না ভেঙ্গে ও সকল পরিস্থিতি সামলে জাতীয় নির্বাচন সম্পন্ন করা নির্বাচন কমিশনের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ বলেও মনে করছেন সাবেক সিইসি ছহুল হোসাইন এবং নির্বাচন বিশ্লেষক নাজমুল আহসান কলিম উল্লাহ।
 
সেনাবাহিনীর হাতে বিচারিক ক্ষমতা না দেয়ার সিদ্ধান্তকে সাধুবাদ জানান এই দুই বিশ্লেষক। তবে তাদের মতে, নির্বাচনে মানুষের আস্থা পেতে হলে সেনাবাহিনীকে স্ট্রাইকিং ফোর্স হিসেবে নয়, পেট্রল টিম হিসেবে কাজ করাতে হবে।

ইভিএম নিয়ে সমালোচনা প্রত্যাখ্যান করে তারা বলেন, এই পদ্ধতি ব্যবহারের ফলে ভোট নষ্ট হবেনা, সুষ্ঠুভাবেই সম্পন্ন করা যাবে।

 

এই বিভাগের আরো খবর

0 মন্তব্য

আপনার মতামত প্রকাশ করুন

Message is required.
Name is required.
Email is